Inqilab Logo

ঢাকা, শনিবার, ১৫ মে ২০২১, ০১ জৈষ্ঠ্য ১৪২৮, ০২ শাওয়াল ১৪৪২ হিজরী

কাদের মির্জার উপস্থিতিতে আ.লীগ নেতা লাঞ্ছিত

নোয়াখালী ব্যুরো : | প্রকাশের সময় : ৮ এপ্রিল, ২০২১, ১২:০৩ এএম

কোম্পানীগঞ্জের মুছাপুর ইউনিয়নে বসুরহাট পৌরসভার মেয়র আবদুল কাদের মির্জার উপস্থিতিতে ইউনিয়ন আ.লীগ নেতাদের লাঞ্ছিত করেছে তার অনুসারীরা। গতকাল বুধবার সকালে উপজেলার বাংলাবাজারের ভিআইপি হোটেলের সামনে এ ঘটনা ঘটে।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, মির্জা কাদের সকাল সাড়ে ৯টার দিকে মুছাপুরে ত্রাণ বিতরণ শেষে বসুরহাট যাওয়ার পথে বাংলাবাজারের ভিআইপি হোটেলের সামনে ইউনিয়ন আ.লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক ইসমাইল হোসেন হেনজু, ২নং ওয়ার্ড আ.লীগের সাধারণ সম্পাদক আবুল কালাম, ইউনিয়ন যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক কামরুল হাসান ও ইউনিয়ন ছাত্রলীগের সহসভাপতি মো. হাসান অবস্থান করছিলেন। হঠাৎ ওই পথ দিয়ে গাড়িতে করে মেয়র যাওয়ার পথে তাদেরকে দেখে উদ্দেশ্যে কটাক্ষ করে। মেয়রের গাড়িতে থাকা অনুসারীরা আ.লীগ নেতা হেনজু মেম্বারকে তেড়ে এসে কিলঘুষি মেরে লাঞ্ছিত করে। আ.লীগ নেতা হেনজু মেম্বার জানান, তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করে হঠাৎ করে মির্জার কয়েকজন অনুসারী গাড়ি থেকে নেমে এসে কিল, ঘুষি দেয়।
কোম্পানীগঞ্জ উপজেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের সাধারণ সম্পাদক নজরুল ইসলাম চৌধুরী শাহীন অভিযোগ করেন, কাদের মির্জার নেতৃত্বে মুছাপুর ইউনিয়ন আ.লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক ইসমাইল হোসেন হেনজু, ২নং ওয়ার্ড আ.লীগের সাধারণ সম্পাদক আবুল কালাম, ইউনিয়ন যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক কামরুল হাসান ও ইউনিয়ন ছাত্রলীগের সহ-সভাপতি মো. হাসানকে, তার অনুসারীরা মারধর করে লাঞ্ছিত করে। তিনি আরো বলেন, ভবিষ্যতে মুছাপুরে আওয়ামী লীগ নেতাকর্মীদের ওপর হামলা করতে আসলে কঠিন জবাব দেয়া হবে। এ বিষয়ে জানতে আবদুল কাদের মির্জার মুঠোফোনে যোগাযোগ করা হলেও তিনি ফোন রিসিভ করেননি।
কোম্পানীগঞ্জ থানার পরিদর্শক (তদন্ত) মো. রবিউল হক জানান, বাংলাবাজারে দুই পক্ষের মধ্যে হাতাহাতি দস্তাদস্তির ঘটনা ঘটেছে। তবে এখন পর্যন্ত কোন পক্ষই থানায় কোন লিখিত অভিযোগ দেননি।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: আ.লীগ

২৪ ফেব্রুয়ারি, ২০২১

আরও
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ