Inqilab Logo

ঢাকা, রোববার, ১৬ মে ২০২১, ০২ জৈষ্ঠ্য ১৪২৮, ০৩ শাওয়াল ১৪৪২ হিজরী

পনের দিন পর রহস্য উদ্ঘাটন

ধর্ষণের পর হত্যা গ্রেফতার ১

রাজশাহী ব্যুরো : | প্রকাশের সময় : ৮ এপ্রিল, ২০২১, ১২:০৩ এএম

পনেরদিন পর অবশেষে পুলিশ উদ্ধার করলো শামিমা আক্তার সিমা বেগম (৩৫) নামের এক নারীর হত্যা রহস্য। হত্যার সাথে জড়িত বজলুর রহমান নামে একজনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। গত মঙ্গলবার ভোর রাতে ফরিদপুর সদর থানা এলাকা থেকে তাকে গ্রেফতার করে পুলিশ।
গ্রেফতার বজলুর রহমান পুলিশের স্বীকারোক্তিতে জানায়, নিহত শামিমা আক্তার সিমা ছিলেন তার বন্ধুর প্রেমিকা। সিমা অন্তঃসত্ত¡া হয়ে পড়ায় তার বন্ধুকে বিয়ের জন্য চাপ দিচ্ছিলো। তাই দুই বন্ধু মিলে সিমাকে ধর্ষণের পর হত্যা করেন।
পুলিশ জানায়, বাঘা উপজেলার বাজুবাঘা ইউনিয়নের আরিফপুর গ্রামের আতব আলীর মেয়ে শামিমা আক্তার সিমা (৩৫)। তার স্বামী সড়ক দুর্ঘটনায় ৩ বছর আগে মারা যায়। তারপর থেকে সে বাঘা উপজেলা সদরে ভাড়া বাড়িতে থাকতেন। সেই সুবাদে বাঘা বাজারের মুরগী ব্যবসায়ী ও উপজেলার বাজুবাঘা গ্রামের শহিদুল ইসলামের ছেলে রাজার (২৪) সাথে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে উঠে। এ ঘটনায় অপর আসামি বারখাদিয়া গ্রামের বিচ্ছাদ আলীর ছেলে বজলুর রহমান (৪০)।
বাঘা থানার অফিসার ইনচার্জ আবদুল বারি জানান, গত ২৩ মার্চ শামিমা আক্তার সিমাকে হত্যা করে আরিফপুর মাঠের আরেন আলীর আম বাগানে রেখে যায়। সেখান থেকে তার লাশ উদ্ধার করা হয়। এ সময় লাশের গলায় আঘাতের চিহ্ন ও মুখে বিষ দেখে তাকে হত্যা করা হয়েছে বলে পুলিশের সন্দেহ হয়। এ হত্যার রহস্য উদঘাটনের চেষ্টা চালায় পুলিশ। বজলুর রহমানকে গ্রেফতারের পর রহস্য উৎঘাটন হয়। এ হত্যাকান্ডের প্রধান আসামি রাজাকে গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: ধর্ষণ


আরও
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ