Inqilab Logo

ঢাকা সোমবার, ১৯ এপ্রিল ২০২১, ০৬ বৈশাখ ১৪২৮, ০৬ রমজান ১৪৪২ হিজরী

হেফাজতের কর্মসূচি বাতিল হলেও আওয়ামী লীগের নির্বিঘ্ন সমাবেশ

স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ৮ এপ্রিল, ২০২১, ৬:২৯ পিএম

মুন্সিগঞ্জের সিরাজদিখানের কুচিয়ামোড়ায় ১৪৪ ধারা জারির দরুণ আজ বৃহস্পতিবার হেফাজতে ইসলামের পূর্ব ঘোষিত প্রতিবাদ সমাবেশ হয়নি। আজকের হেফাজতের সমাবেশে মাওলানা মামুনুল হকসহ হেফাজতে ইসলামের কেন্দ্রীয় শীর্ষ নেতৃবৃন্দের উপস্থিত হবার কথা ছিল। তবে দাঙ্গা পুলিশের উপস্থিতিতেই আজ কুচিয়ামোড়া হাই স্কুলে আওয়ামী লীগ-যুব লীগের সমাবেশ নিবিঘ্নে অনুষ্ঠিত হয়েছে। এতে স্থানীয় লোকজন হতবাক হয়েছেন। কুচিয়ামোড়া কলেজ মাঠের আশপাশের দোকানপাট বন্ধ করে দেয়া হয়। মুন্সিগঞ্জ থেকে নির্ভরযোগ্য সূত্র এতথ্য জানিয়েছে। ঢাকা-মাওলানা সড়কের হাসনাবাদ ব্রিজের ঢালে, সিরাজদিখানের নিমতলী, ধলেশ্বরী ব্রিজের টোল প্লাজা, কুচিয়ামোড়া বাজার, ধলেশ্বরী ব্রিজের দক্ষিণ প্রান্তসহ বিভিন্ন সড়কের প্রবেশ পথে দাঙ্গা পুলিশ মোতায়েত করা হয়। স্থানীয় প্রশাসন হেফাজতের পূর্ব ঘোষিত প্রতিবাদ সমাবেশ ঠেকাতে ১৪৪ ধারা জারি করায় এলাকার লোকজন বাড়ী ঘর থেকে বের হননি।

উল্লেখ্য, মুন্সিগঞ্জের সিরাজদিখানের নিমতলী থেকে কুচিয়ামোড়া কলেজ পর্যন্ত গতকাল বুধবার সন্ধ্যা থেকে আজ রাত ১০টা পর্যন্ত জেলা প্রশাসন সকল ধরণের সভা-সমাবেশ ও গণজমায়েত নিষিদ্ধ ঘোষণা করে ১৪৪ ধারা জারি করে। উপজেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে এলাকায় মাইকিং করা হয়েছে। অতিসম্প্রতি আহুতসারাদেশে হরতালে হেফাজতে ইসলাম বাংলাদেশ এর নায়েবে আমীর, খতমে নবুওয়াত সংরক্ষণ কমিটি বাংলাদেশের আমির আল্লামা আব্দুল হামিদ পীর সাহেব মধুপুরসহ শত শত তৌহিদী জনতার উপর বর্বরোচিত হামলা, নিরীহ জনগণের বিরুদ্ধে মিথ্যা মামলা, ২০ জন শহীদের হত্যার বিচার বিভাগীয় তদন্ত ও তাদের খুনিদের ফাঁসির দাবিতে আজ বৃহস্পতিবার বাদ আসর মুন্সিগঞ্জের সিরাজদিখানের কুচিয়ামোড়া কলেজ মাঠে প্রতিবাদ সমাবেশের ডাক দিয়েছিল হেফাজতে ইসলাম বাংলাদেশ মুন্সিগঞ্জ জেলা ও ঢাকা দক্ষিণ।

বুধবার সন্ধ্যায় হেফাজতে ইসলামের নায়েবে আমির আল্লামা আব্দুল হামিদ পীর সাহেব মধুপুর এক বিবৃতিতে জানিয়েছেন, করোনাভাইরাস দিনদিন বৃদ্ধি পাওয়ায় স্বাস্থ্যবিধির দিকে লক্ষ্য রেখে হেফাজতে ইসলাম বাংলাদেশ মুন্সিগঞ্জ জেলা ও ঢাকা দক্ষিণ আয়োজিত আজকের প্রতিবাদ সমাবেশ স্থগিত করা হয়েছে। আজ মধুপুর পীর সাহেব আল্লামা আব্দুল হামিদ ইনকিলাবের সাথে আলাপকালে বলেন, হেফাজতে ইসলাম বাংলাদেশ কোনো রাজনৈতিক দল নয়। হেফাজতে ইসলাম এদেশে ঈমান আক্বীদার ওপর আঘাত আসলে তা’প্রতিহত করার আন্দোলন করে। পীর সাহেব বলেন, নরেন্দ্র মোদির আগমন বিরোধী আন্দোলন ও হরতালে এ যাবত বিশজনকে গুলি করে শহীদ করা হয়েছে। এসব শহীদের রক্ত বৃথা যেতে দেয়া হবে না। পীর সাহেব বলেন, হামলা মামলা দিয়ে হেফাজতে ইসলামের ঈমান রক্ষার আন্দোলনকে স্তদ্ধ করা যাবে না। তিনি মোদি বিরোধী আন্দোলনের সকল গ্রেফতারকৃতদের দ্রæত নিঃশর্ত মুক্তি এবং নেতা-কর্মীদের বিরুদ্ধে দায়েরকৃত সকল মামলা প্রত্যাহারের জোর দাবি জানান। ১৪৪ ধারা জারির মাধ্যমে এলাকাবাসিকে অবরুদ্ধ করে রাখায় পীর সাহেব ক্ষোভ প্রকাশ করেন।



 

Show all comments
  • ABDUL QAYUM ৮ এপ্রিল, ২০২১, ৯:০৪ পিএম says : 1
    1.All the activities of Hefajat e islam are like a political party. Such as hartal , setting fire to tansports, govt. offices, attacking police stations, telling lies, but you hefajat telling you are not political party. 2. After the death of SHAFI hujur , now this is a different hefajat
    Total Reply(0) Reply

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: মুন্সীগঞ্জ


আরও
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ