Inqilab Logo

ঢাকা, রোববার, ০৯ মে ২০২১, ২৬ বৈশাখ ১৪২৮, ২৬ রমজান ১৪৪২ হিজরী

স্বাস্থ্যসেবায় দুর্নীতিতে চিকিৎসাব্যবস্থা ভেঙে পড়েছে : বিএনপি

স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ১২ এপ্রিল, ২০২১, ১২:০০ এএম

স্বাস্থ্যসেবা ও করোনা চিকিৎসা নিয়ে সরকারের ভয়াবহ দুর্নীতির কারণে চিকিৎসা ও প্রতিরোধ ব্যবস্থা সম্পূর্ণ ভেঙে পড়েছে বলে অভিযোগ করেছে বিএনপি। গত শনিবার দলটির ভার্চুয়াল স্থায়ী কমিটির সভায় এই অভিযোগ করা হয়। সভায় সারা দেশে করোনাভাইরাসের সংক্রমণ আশংকাজনক হারে দ্রুত বেড়ে যাওয়ায় গভীর উদ্বেগ প্রকাশ করে বলা হয়, সরকারের সীমাহীন উদাসীনতা, অযোগ্যতা, সমন্বয়হীনতার কারনে পরিস্থিতি দ্রুত অবনতি হয়েছে। ২০২০ সালের মার্চ মাস হতে যথেষ্ট সময় হাতে পাওয়ার পরেও সরকারি হাসপাতালগুলোতে করোনাভাইরাসের চিকিৎসার জন্য প্রয়োজনীয় বেড, অক্সিজেন, আইসিইউ, ভেন্টিলেটর সংযোজন করতে সরকার ব্যর্থ হয়। উপরন্ত বসুন্ধরা ও মহাখালীতে যে জরুরি হাসপাতাল নির্মাণ করা হয় যথাক্রমে ৩১ কোটি ও ১৩ কোটি টাকা ব্যয়ে তা বন্ধ করে দেয়া হয় এবং বসুন্ধরা এবং মহাখালীর হাসপাতাল দুটি উধাও হয়ে যায়। সংক্রমণের হার ও মৃত্যুর হার যে আশংকাজনক হারে বৃদ্ধি পেয়েছে তা ইতোমধ্যেই জনগণের মধ্যে ভীতি ও আতঙ্কের সৃষ্টি করেছে।

সভায় আরো বলা হয়, সময়মতো লকডাউন ঘোষণা না করে পরিস্থিতির অবনতি ঘটাতে সরকার সাহায্য করেছে। লকডাউন ঘোষণা করার পরেও গণপরিবহন চালু করা, শপিংমল, দোকানপাট খুলে দেয়া এবং গার্মেন্টস চালু রাখা প্রমাণ করেছে যে সরকারের সিদ্ধান্তহীনতা ও সমন্বয়ের অভাবে জনগণের জীবন ও জীবিকা বিপন্ন হয়ে পড়েছে। অবিলম্বে চিকিৎসার জন্য জরুরি ভিত্তিতে মেকশিপট হাসপাতাল তৈরি করা, যথেষ্ট পরিমাণে বেড, অক্সিজেন সরবরাহ, আইসিইউ এবং ভেন্টিলেটরের ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য সরকারের প্রতি আহ্বান জানান স্থায়ী কমিটির নেতারা।

তারা দিন আনে দিন খায় মানুষ, মাঝারী, ছোট কল কারখানার শ্রমিক, রিক্সা-ভ্যান শ্রমিক, গণপরিবহণ শ্রমিক, কৃষক এবং অপ্রতিষ্ঠানিক (ছোট ও ক্ষুদ্র) উদ্যোক্তদের ভাতা প্রদানের আহ্বান জানান। নেতারা বলেন, বিএনপি ২০২০ সালে করোনাকালীন অর্থনীতিকে সচল রাখার বিষয়ে ৮৭ হাজার কোটি টাকার বিভিন্ন সেক্টরে প্রণোদনা প্রদানের প্রস্তাব করেছিল। সরকার কর্ণপাত করেনি। সরকার যে প্রণোদনা ঘোষণা করেছিল তা শুধুমাত্র কল কারখানার মালিক, গার্মেন্টস মালিক ও মধ্যস্বত্বভোগীদের নিকট গেছে। কিন্তু সাধারণ প্রান্তিক মানুষের কাছে পৌঁছায়নি। তাই অবিলম্বে বিশেষজ্ঞ সমন্বয়ে টাক্স ফোর্স গঠন করে মানুষের জীবিকা ও অর্থনীতিকে সচল রাখার পরিকল্পনা ও রোডম্যাপ প্রস্তুত করে ব্যাপক প্রণোদনা প্রদানের আহ্বান জানানো হয়।

স্থায়ী কমিটির সভায় মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেনের জলবায়ু বিষয়ক বিশেষ দূত জন কেরীর ঢাকা সফর নিয়ে আলোচনা হয়। মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেনের ৪০টি দেশের নেতৃবৃন্দর শীর্ষ বৈঠককে সময়োচিত বলে মনে করা হয়। বাংলাদেশ জলবায়ু পরিবর্তনের অন্যতম ভুক্তভোগী দেশ এবং অদূর ভবিষ্যতে বাংলাদেশের পরিবেশ, জীববৈচিত্র্য এবং সমুদ্র উপক‚ল এলাকা ভয়াবহ ক্ষতিগ্রস্থ হওয়ার সম্ভাবনা আছে বলে এ বিষয়ে সরকারি উদ্যোগ আরো অনেক বাড়ানো উচিত। সভা মনে করে এই সরকার দুর্নীতিগ্রস্ত হওয়ার কারণে ইতোমধ্যে আন্তর্জাতিক জলবায়ু তহবিল হতে প্রাপ্ত অনুদান নিয়ে ব্যাপক দুর্নীতি হয়েছে এবং বেশ কিছুঅংশ ফেরত গেছে।

এছাড়া সম্প্রতি নারায়ণগঞ্জের নিকট শীতলক্ষ্যা নদীতে বাগেরহাট-২ আসনের সরকারদলীয় এমপির মালিকানাধীন জাহাজের ধাক্কায় যাত্রীবাহী লঞ্চ ডুবে যাওয়ায় প্রায় ৩৫ জনের মৃত্যুতে গভীর শোক প্রকাশ করা হয় এবং তাদের রুহের মাগফেরাত কামনা করা হয়। এই ঘটনার দায়ী জাহাজের মালিক অথবা চালক কারো বিরুদ্ধেই মামলা না করায় তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানানো হয়। অবিলম্বে মালিকসহ সংশ্লিষ্ট সকলের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণের দাবি জানানো হয়।

এদিকে সম্প্রতি ফরিদপুরের সালথা উপজেলায় সংঘটিত ঘটনায় প্রায় ১১টি মামলায় ১৭ হাজার মানুষকে আসামী করায় এবং বেশিরভাগ ক্ষেত্রেই বিএনপি’র নেতা-কর্মীদের বিরুদ্ধে মিথ্যা মামলা দায়ের করে সালথা থানায় চরম নির্যাতন চালানোর তীব্র ক্ষোভ ও নিন্দা জানানো হয় এবং নিরপেক্ষ তদন্ত অনুষ্ঠানের দাবি জানানো হয়।

বিএনপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমানের সভাপতিত্বে স্থায়ী কমিটির সভায় অংশ নেন- ব্যরিস্টার জমির উদ্দিন সরকার, মির্জা আব্বাস, গয়েশ্বর চন্দ্র রায়, ড. আব্দুল মঈন খান, নজরুল ইসলাম খান, মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর, আমীর খসরু মাহমুদ চৌধুরী ও ইকবাল হাসান মাহমুদ টুকু।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: বিএনপি


আরও
আরও পড়ুন