Inqilab Logo

ঢাকা, রোববার, ১৩ জুন ২০২১, ৩০ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৮, ০১ যিলক্বদ ১৪৪২ হিজরী

মাধবদীতে যুবককে গাছে বেঁধে নির্মম নির্যাতন

অনলাইন ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ১২ এপ্রিল, ২০২১, ১০:৫৬ এএম

দেশের বিভিন্ন স্থানে প্রায় সময় কিশোর-যুবকদের ওপর নির্যাতনের ভিডিও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভাইরাল হয়। এই পর শুরু হয় তোলপাড়।  

এদিকে নরসিংদীর মাধবদীতে চোর সন্দেহে এক যুবককে গাছের সাথে বেঁধে নির্মম  নির্যাতনের ঘটনা ঘটেছে। এমন ঘটনার একটি ভিডিও সোশ্যাল মিডিয়ায় ছড়িয়ে পড়লে ঘটনাটি স্থানীয় পুলিশ, সাংবাদিকসহ এলাকার মানুষের নজরে আসে। এঘটনায় মাধবদীতে ব্যাপক নিন্দার ঝড় ওঠেছে। মুমূর্ষু অবস্থায় ওই যুবককে উদ্ধার করে আড়াইহাজার উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে। আহত যুবকের নাম সুমন মিয়া (২৫)। সে মাধবদী থানার কাঁঠালিয়া ইউনিয়নের আমতলা গ্রামের হাবিবুল্লার ছেলে।

খোঁজ নিয়ে জানাযায়, গত শনিবার (১০ এপ্রিল) দুপুরে কাঁঠালিয়া ইউনিয়নের ডৌকাদী গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। এ বিষয়ে প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, ঘটনার দিন দুপুরে ডৌকাদীর দীঘিরপাড় গ্রামে ব্যাটারি চালিত একটি অটোরিকশা চুরির প্রস্তুতির সময় সন্দেহজনকভাবে সুমনকে আটক করে গাছের সাথে বেঁধে ব্যাপক মারপিট করে স্থানীয় লোকজন। এক পর্যায়ে সে জ্ঞান হারিয়ে ফেললে তাকে রাস্তার পাশে ফেলে যাওয়া হয়।

পরে তাকে উদ্ধার করে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।  

শনিবার রাত ১১টার পর সে কিছুটা সুস্থ হলে তার সাথে কথা বলে জানা যায়, ক্রিকেট খেলা নিয়ে পুরানো একটা বিরোধ ছিল ওই এলাকার কয়েকজন য্বুকের সাথে। শনিবার দুপুরে ওই এলাকায় একটি অটো গাড়িতে বসে মুঠোফোনে সে কথা বলছিল সুমন। এমনসময় হঠাৎ পিকাপে চাপ লেগে গাড়িটি রাস্তার ঢালে চলে যায়। এতে ভয় পেয়ে দৌড়ে পালানোর সময় তাকে কয়েকজন যুবক ধরে ফেলে। এসময় তারা একটি গাছের সাথে তাকে দড়ি দিয়ে বেঁধে এলাপাতাড়ি পিটিয়ে হত্যার চেষ্টা করে।

এদিকে এ ঘটনার একটি ভিডিও ফেসবুকে ভাইরাল হয়। আইন নিজের হাতে তুলে নেয়ার অপরাধে এ ঘটনার সাথে জড়িতদের দৃষ্টান্তমূলক বিচারের দাবি জানান কাঁঠালিয়া একতা মানবসেবা সংগঠন।

এব্যাপারে রোববার রাতে মাধবদী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (তদন্ত) তানভির আহমেদের কাছে জানতে চাইলে তিনি জানান, ঘটনাটি তিনি শুনেছেন। তবে এবিষয়ে এখন পর্যন্ত কেউ থানায় অভিযোগ করতে আসেনি। অভিযোগ পেলে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া হবে বলেও তিনি জানান।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: নির্যাতন


আরও
আরও পড়ুন
গত​ ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ