Inqilab Logo

ঢাকা, মঙ্গলবার, ১৮ মে ২০২১, ০৪ জৈষ্ঠ্য ১৪২৮, ০৫ শাওয়াল ১৪৪২ হিজরী

দেশের বাজারে টলুইনমুক্ত ছাপার কালি সরবরাহে জিগওয়ার্কের নতুন ব্লেন্ডিং সেন্টার শুরুর ঘোষণা

অর্থনৈতিক রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ১২ এপ্রিল, ২০২১, ৫:১৬ পিএম

প্যাকেজিং এবং লেবেলিংয়ের কাজে ব্যবহৃত ছাপার কালি উৎপাদনে বিশ্বের অন্যতম শীর্ষস্থানীয় প্রতিষ্ঠান জিগওয়ার্ক সম্প্রতি রাজধানী ঢাকায় তাদের ব্লেন্ডিং সেন্টার উদ্বোধন করেছে। দেশের বাজারের নানামুখী চাহিদার যোগান দিতে এই ৬৫ হাজার বর্গ ফুটের সেন্টারটিতে রয়েছে ভিন্ন ভিন্ন সমাধান। নতুন এ সেন্টারটির মাধ্যমে প্রত্যক্ষ ও পরোক্ষভাবে প্রায় ৫০ জনের কর্মসংস্থানের সুযোগ তৈরি করবে জিগওয়ার্ক। এর মাধ্যমে দেশের অভ্যন্তরীণ বাণিজ্য আরো সম্প্রসারিত হবে এবং এশীয় অঞ্চলের বাজারে শীর্ষস্থান দখলে বাংলাদেশের সম্ভাবনা আরো বৃদ্ধি পাবে বলে আশা করা যাচ্ছে। এছাড়াও, এই ব্লেন্ডিং সেন্টার স্থাপনের ফলে ভবিষ্যতে গ্রাহক সেবার মজুদ ব্যয় (ইনভেন্টরি কস্ট) কমে আসবে এবং স্থানীয় ক্রেতাদের জন্য তাৎক্ষণিক কারিগরি সমাধান প্রাপ্তির সুবিধাও তৈরি করবে।
নব্বই দশকের মাঝামাঝি থেকে দেশের বাজারে ছাপার কালি সরবরাহ করে আসছে জিগওয়ার্ক। এ নিয়ে জিগওয়ার্কের প্রেসিডেন্ট এশিয়া আশিষ প্রধান বলেন, ‘ব্লেন্ডিং সেন্টারটি যে কেবল আমাদেরকে ক্রেতাদের আরো নিকটে নিয়ে যাবে শুধু তাই নয়, পাশাপাশি গ্রাহক সেবায় আমাদের সক্ষমতাকেও এটি দেবে এক নতুন মাত্রা। সর্বাধুনিক প্রযুক্তির ব্লেন্ডিংয়ের মাধ্যমে এখন আমরা আরো বিশেষায়িত রূপে, গ্রাহকের চাহিদা অনুসারে আলাদা করে তৈরি কালি সরবরাহ করতে পারবো।’
তিনি আরও বলেন, ‘সাম্প্রতিক সময়ের আগে জিগওয়ার্কের ভারতীয় কারখানা থেকে বাংলাদেশে কালি সরবরাহ করা হতো। দেশে প্রতিষ্ঠিত নতুন কারাখানাটি ইতোমধ্যেই চালু হয়ে গিয়েছে এবং চলতি বছরের ফেব্রুয়ারি মাস থেকে ব্লেন্ডেড কালি সরবরাহ আরম্ভ করে দিয়েছে। স্থানীয় যেকোনো কারিগরি সমস্যা সমাধানে সেন্টারটি বেশ গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখছে, সেই সাথে আগের চাইতে অনেক কম সময়ে অতিরিক্ত কারিগরি সহায়তার ব্যবস্থাও করে দিচ্ছে। গ্রাহকদের জন্য কারিগরি সহায়তা ও নিজ নিজ চাহিদা অনুসারে বিশেষায়িত সমাধান প্রাপ্তি এখন অনেক স্বাচ্ছন্দ্যময় হয়ে উঠেছে। বিশ্বমানের টলুইনমুক্ত নিরাপদ কালি সরবরাহ করবে এই ব্লেন্ডিং সেন্টার।’
জনস্বাস্থ্য, বিশেষ করে প্যাকেটজাত খাবারের ক্রেতাদের সম্ভাব্য স্বাস্থ্যঝুঁকির কথা বিবেচনা করে জিগওয়ার্ক সদ্য প্রতিষ্ঠিত ব্লেন্ডিং সেন্টারের মাধ্যমে টলুইনমুক্ত কালি উৎপাদন করবে। অর্থাৎ, এই কারখানার উৎপাদন প্রক্রিয়ার কোথাও কোনো টলুইন বা টলুইনযুক্ত কাঁচামাল ব্যবহৃত হবে না। প্যাকেজিংয়ের কাজে ব্যবহার্য ছাপার কালি এমনভাবে প্রস্তুত করা হবে, যা আন্তর্জাতিকভাবে স্বীকৃত মানের সাথে সামঞ্জস্যপূর্ণ হয় এবং গ্রাহকের চাহিদা পূরণের পাশাপাশি ভবিষ্যত সকল প্যাকেজিং কার্যকে নিরাপদ ও ঝুঁকিমুক্ত রাখে। প্রায় দুই শতক ধরে জিগওয়ার্ক উৎকৃষ্ট মানের পণ্য ও সেবা সরবরাহ করে গোটা বিশ্বে নিজেদের প্রশংসনীয় অবস্থান ধরে রেখেছে। ক্রেতাদের সাথে প্রতিষ্ঠানটির মধ্যে রয়েছে আস্থা ও সুসম্পর্ক। উৎপাদন কার্যে টেকসই ও পরিবেশবান্ধব কাঁচামাল ব্যবহারের ক্ষেত্রেও জিগওয়ার্ক অত্যন্ত দায়িত্বশীল। বিশ্বের বিভিন্ন স্থানে অবস্থিত ১৫টি জিগওয়ার্ক-সেন্টারের আওতায় আদর্শ উপায়ে প্রতিষ্ঠানটি নিজ বেসিক কালার ও বার্নিশ উৎপাদন করে থাকে। মানের ক্ষেত্রে আপোষহীন জিগওয়ার্কের প্রতিটি পণ্য হুবুহু একই নকশায় প্রস্তুত করা হয়। বাংলাদেশে নতুন ব্লেন্ডিং সেন্টারটি প্রতিষ্ঠার মাধ্যমে বিশ্বের ৩১টিরও বেশি দেশে ব্যবসায়ের পরিসীমা বিস্তৃত করল জিগওয়ার্ক।
দীর্ঘকাল ধরেই নিরাপদ ছাপার কালি উৎপাদনের বিষয়টিতে জোর দিয়ে আসছে জিগওয়ার্ক। স্বাস্থ্যকর উপায়ে কালি উৎপাদনকে নীতিমালা রূপে প্রতিষ্ঠা করেছে তারা। পণ্যের নিরাপত্তা নীতিমালা প্রণয়নের ক্ষেত্রে জিগওয়ার্ক বিশ্বের শীর্ষস্থান অর্জন করেছে, এমনকি এ প্রসঙ্গে একটি বিশেষজ্ঞ দলও রয়েছে জিগওয়ার্কের। গ্লোবাল রেগ্যুলেটরি কমপ্লায়েন্স, ব্র্যান্ড ওনার রিকোয়ারমেন্ট, রিস্ক অ্যাসেসমেন্ট-সহ নানা বিষয়কে গুরুত্ব দিয়ে জিগওয়ার্কের প্রোডাক্ট সেফটি গাইডেন্স পরিচালিত হয়, যার মাধ্যমে ক্রেতা ও ভোক্তা পর্যায়ে নিরাপদ ব্যবহার সুনিশ্চিত করা সম্ভব হয়।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

আরও পড়ুন