Inqilab Logo

ঢাকা, শুক্রবার, ০৭ মে ২০২১, ২৪ বৈশাখ ১৪২৮, ২৪ রমজান ১৪৪২ হিজরী

নোয়াখালীর কেম্পানীগঞ্জে মাস্ক নিতে অস্বীকৃতি, যুবককে মারধর

নোয়াখালী ব্যুরো | প্রকাশের সময় : ১২ এপ্রিল, ২০২১, ৬:২৮ পিএম

কোম্পানীগঞ্জ উপজেলার মুছাপুর ইউনিয়নে মাস্ক বিতরণকালে এক যুবক মাস্ক নিতে অস্বীকৃতি জানালে তাকে মারধরের অভিযোগ উঠেছে স্থানীয় আ.লীগের নেতাকর্মীর বিরুদ্ধে। এ ঘটনায় আহত কাজী নজরুল ইসলাম (৩২), সে একই ইউনিয়নের ৮নং ওয়ার্ডের মিস্ত্রি বাড়ির মাকসুদুর রহমানের ছেলে।

সোমবার বেলা সাড়ে ১১টার দিকে উপজেলার মুছাপুর ইউনিয়নের ৮নং ওয়ার্ডের চৌধুরী বাজারে এ ঘটনা ঘটে।

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, আজ সকালে মুছাপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান ও উপজেলা স্বেচ্ছাসেকলীগের সাধারণ সম্পাদক নজরুর ইসলাম শাহীন চৌধুরী স্থানীয় চৌধুরী বাজারে কিছু মাস্ক বিতরণ করেন। পরে তিনি চলে যাওয়ার পর তার চাচাতো ভাই মামুন বাকী মাস্ক বিতরণ করার সময় নজরুল ইসলাম নামে এক যুবক মাস্ক নিতে অস্বীকৃতি জানালে তাকে চেয়ারম্যানের চাচাতো ভাইয়ের নেতৃত্বে চৌধুরী বাজারের একটি হোটেলের মধ্যে মারধর করে। বর্তমানে সে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসাধীন রয়েছে।

এ বিষয়ে চেয়ারম্যান নজরুল ইসলাম শাহীন চৌধুরী জানান, আমি ঘটনাস্থলে ছিলাম না। প্রত্যক্ষদর্শীদের কাছ থেকে শুনেছি, মামুন মাস্ক বিতরণকালে নজরুলকে মাস্ক দিতে চাইলে সে অকথ্য ভাষায় গালমন্দ করে। পরে সেখানে উপস্থিত কয়েক জন যুবক তাকে চড় থাপ্পড় দেয়। এ সময় সে হোটেলের তুন্দল রুটির তাবার রডের উপর পড়ে গেলে তার শরীর থেকে কিছু রক্ত বাহির হয়।

কোম্পানীগঞ্জ থানার ওসি মীর জাহেদুল হক রনির মুঠোফোনে একাধিকবার যোগাযোগ করা হলেও তিনি ফোন রিসিভ করেননি। তবে পরিদর্শক (তদন্ত) মো. রবিউল হক জানান, এ বিষয়ে কেউ এখন পর্যন্ত থানায় কোন অভিযোগ করেননি।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: নোয়াখালী


আরও
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ
গত​ ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ