Inqilab Logo

ঢাকা, মঙ্গলবার, ১১ মে ২০২১, ২৮ বৈশাখ ১৪২৮, ২৮ রমজান ১৪৪২ হিজরী

বন্ধের খবরে আজও ব্যাংকে গ্রাহকের উপচে পড়া ভিড়

স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ১৩ এপ্রিল, ২০২১, ১২:৩৬ পিএম

করোনাভাইরাসের সংক্রমণ ঠেকাতে আগামীকাল ১৪ এপ্রিল থেকে সাত দিনের জন্য কঠোর বিধিনিষেধ আরোপ করেছে সরকার। এ সময় ব্যাংকও বন্ধ থাকবে। এ খবরে আজ মঙ্গলবার (১৩ এপ্রিল) ব্যাংকগুলোয় টাকা তোলার হিড়িক পড়েছে। টাকা উত্তোলনের চাপে গ্রাহকদের সেবা দিতে হিমশিম খাচ্ছেন ব্যাংক কর্মকর্তারা।
রাজধানীর ব্যাংকপাড়া মতিঝিল, দিলকুশা দৈনিক বাংলা, পল্টনসহ বিভিন্ন এলাকা ঘুরে দেখা গেছে, বেশিরভাগ ব্যাংকের শাখায় গ্রাহকের উপচে পড়া ভিড়। ব্যাংকাররা বলছেন, সাত দিন বন্ধের খবরে আজকে স্বাভাবিক দিনের তুলনায় গ্রাহকের অনেক চাপ। তবে টাকা জমা দেওয়ার চেয়ে উত্তোলন বেশি করছেন গ্রাহকরা।

বেসরকারি খাতের এক্সিম ব্যাংকের মতিঝিল শাখার সিনিয়র ভাইস প্রেসিডেন্ট মোহাম্মদ আজহার উদ্দিন বলেন, সাত দিন বন্ধ থাকবে তাই আজকে গ্রাহকের অনেক চাপ। টাকা উত্তোলন বেশি করছে। সকাল থেকেই কর্মকর্তারা গ্রাহকদের সেবা দিতে হিমশিম খাচ্ছেন। এছাড়া কেন্দ্রীয় ব্যাংকের নির্দেশনা অনুযায়ী ৩টা পর্যন্ত লেনদেন হবে। ব্যাংক খেলা থাকবে ৫টা পর্যন্ত।
স্বাস্থ্যবিধি মেনে গ্রাহককে সেবা দেওয়া হচ্ছে দাবি করে বেসরকারি ব্যাংকের এ কর্মকর্তা জানান, সরকারের নির্দেশনা অনুযায়ী স্বাস্থ্যবিধি পরিপালন করছি। মাস্ক ছাড়া কাউকে শাখায় ঢুকতে দেওয়া হচ্ছে না। অন্যান্য স্বাস্থ্যবিধিও মেনে চলা হচ্ছে।
মতিঝিল সোনালী ব্যাংকের লোকাল অফিসের গিয়ে দেখা যায় গ্রাহকের উপচে পড়া ভিড়। দীর্ঘ লাইনে টাকা উত্তোলনের জন্য গ্রাহকরা দীর্ঘ লাইনে দাঁড়িয়ে আছেন।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে মতিঝিল সোনালী ব্যাংকের লোকাল অফিসের ক্যাশ কাউন্টারের দায়িত্বে থাকা এক কর্মকর্তা জানান, গ্রাহকের অনেক ভিড়, লেনদেনও বেশি হচ্ছে। স্বাভাবিক দিনের চেয়ে আজকে লেনদেন বেশি হবে এটাই স্বাভাবিক। কারণ সাত দিন ব্যাংক বন্ধ। মানুষ প্রয়োজনীয় টাকা উত্তোলন করে রাখছেন।
মতিঝিল এক্সিম ব্যাংকে আসা গোলাম আহসান নামে এক গ্রাহক জানান, আগামী এক সপ্তাহ লকডাউন ঘোষণা করেছে সরকার। ব্যাংকও বন্ধ থাকবে। পরিস্থিতি কী হয় বোঝা মুশকিল। তাই প্রয়োজনীয় টাকা উঠাতে এসেছি। সাড়ে ১০টায় এসেছি এখনো লাইনে দাঁড়িয়ে আছি। কতক্ষণ লাগবে কে জানে?

উল্লেখ্য, করোনাভাইরাসের সংক্রমণ ঠেকাতে ১৪ থেকে ২১ এপ্রিল পর্যন্ত কঠোর বিধিনিষেধ জারি করেছে সরকার। এ সময় জরুরি সেবা দেওয়া প্রতিষ্ঠান ছাড়া বন্ধ থাকবে সব কিছু। এই সাত দিন বন্ধ থাকবে ব্যাংকসহ দেশের সব আর্থিক প্রতিষ্ঠান। এ অবস্থায় বন্ধের আগের দিন মঙ্গলবার (১৩ এপ্রিল) সকাল ১০টা থেকে বিকেল ৩টা পর্যন্ত ব্যাংকে লেনদেন হবে। লেনদেন-পরবর্তী আনুষঙ্গিক কার্যক্রম শেষ করার জন্য ব্যাংক খোলা থাকবে বিকাল ৫টা পর্যন্ত।
বন্ধের আগে ভিড় সামলাতে এ সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে বলে জানিয়েছেন বাংলাদেশ ব্যাংকের মুখপাত্র ও নির্বাহী পরিচালক সিরাজুল ইসলাম।
তিনি জানান, ১৪ এপ্রিল থেকে ব্যাংক বন্ধের সিদ্ধান্তের ফলে মঙ্গলবার ভিড় হতে পারে। যে কারণে এমন সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। আগের সিদ্ধান্ত অনুযায়ী, মঙ্গলবার ১টা পর্যন্ত লেনদেন ও ৩টা পর্যন্ত ব্যাংক খোলা রাখার কথা ছিল।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

আরও পড়ুন
গত​ ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ