Inqilab Logo

ঢাকা, মঙ্গলবার, ১১ মে ২০২১, ২৮ বৈশাখ ১৪২৮, ২৮ রমজান ১৪৪২ হিজরী
শিরোনাম

ঘুমাতে কি পেরেছিলেন স্যামসন-মুস্তাফিজ?

স্পোর্টস ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ১৪ এপ্রিল, ২০২১, ১২:০২ এএম

রাজস্থান রয়্যালসের জয়ের জন্য শেষ ওভারে প্রয়োজন ছিল ১৩ রান। পাঞ্জাবের পেসার আর্শদীপ সিংয়ের চতুর্থ বলে ছক্কা হাঁকিয়ে ম্যাচ জমিয়ে তুলেছিলেন রাজস্থানের অধিনায়ক সাঞ্জু স্যামসন। জেতার জন্য শেষ দুই বলে প্রয়োজন ৫ রানের। কিন্তু আর্শদীপ রান তো দিলেনই না, উল্টো আইপিএলের চলতি আসলের প্রথম সেঞ্চুরিয়ান স্যামসনকে ফেরালেন। আর তাতেই ৪ রানে নিজেদের প্রথম ম্যাচটি জিতে নিলো পাঞ্জাব কিংস। প্রতিপক্ষের এমন জয়ে নিশ্চিতভাবে সবচেয়ে হতাশ স্যামসন। অন্যদিকে রাজস্থানের হয়ে অভিষেক ম্যাচে নিশ্চিত দুটি উইকেট বঞ্চিত মুস্তাফিজুর রহমান কী রাতে ঘুমাতে পেরেছিলেন?
সেটা নিশ্চিত জানা না গেলেও একটুতো বোঝাই যায়, আইপিএল এখান থেকে শুরু। শেষ নয়। আগামীকাল দিল্লী ক্যাপিটালের বিপক্ষে মাঠে নামার আগে তাই সব ভুলে মানসিকভাবে চাঙা হয়েই মাঠে নামতে হবে।
গত পরশু পাঞ্জাবের দেওয়া ২২২ রানের বিশাল লক্ষ্যে খেলতে নেমে শুরুতেই হোঁচট খায় রাজস্থান। ২৫ রানে দুই ওপেনারকে হারিয়ে রাজস্থানের সব দায়িত্ব চাপে অধিনায়ক স্যামসনের ওপর। সেই দায়িত্বটা খুব ভালোভাবেই পালন করলেন ২৬ বছর বয়সী এই ব্যাটসম্যান। খেলেছেন টি-টোয়েন্টি ক্যারিয়ার সেরা ১১৯ রানের ইনিংস। ৬৩ বলে ১২ চার ও ৭ ছক্কায় স্যামসন নিজের ইনিংসটি সাজিয়েছেন। জস বাটলার (১৩ বলে ২৫), শিবম দুবে (১৫ বলে ২৩) ও রিয়ান পরাগ (১১ বলে ২৫) এই তিন ব্যাটসম্যানের ইনিংসগুলো আরও একটু বড় হলেই জয়ই সঙ্গী হতো রাজস্থানের!
এদিকে দারুণ দুটি সুযোগ হাতছাড়া হওয়া মুস্তাফিজের জন্যও ম্যাচটি হতাশার। ৪ ওভার বোলিং করে ৪৫ রান খরচায় উইকেটশ‚ন্য ছিলেন মোস্তাফিজ। যদিও তার সামনে দুটি উইকেট নেওয়ার সুযোগ এসেছিল। কিন্তু ফিল্ডারদের ব্যর্থতা ও নিজের আত্মবিশ্বাসহীনতার কারণে দুটি উইকেট থেকে বঞ্চিত হন ফিজ।
নিজের প্রথম ওভারের দ্বিতীয় বলেই মায়াঙ্ক আগরওয়ালকে এলবিডাবিøউয়ের ফাঁদে ফেলেছিলেন মুস্তাফিজ। রিভিউতে নিশ্চিত আউট দেখা গেলেও আম্পায়ার আবেদনে সাড়া দেননি। আর রাজস্থানও রিভিউ নেয়নি, মুস্তাফিজও সাহস করে রিভিউ চাননি। নিশ্চিত একটি উইকেট থেকে বঞ্চিত হন তিনি। আর দ্বিতীয় সুযোগটি পান ১৫তম ওভারে। ফিজের প্রথম বলেই দীপক উড়িয়ে মারেন। কিন্তু উইকেটকিপার জস বাটলার ও বেন স্টোকসের ভুল বোঝাবুঝিতে ক্যাচ মিস হয়ে যায়।
এরআগে টস হেরে আগে ব্যাটিং করা পাঞ্জাব কিংস শুরু থেকেই আক্রমণাত্মক ক্রিকেট খেলেছে। রাহুল-গেইল-দীপকের দাপটে নির্ধারিত ২০ ওভারে ৬ উইকেটে ২২১ রানের বড় সংগ্রহ দাঁড় করায় পাঞ্জাব। রাজস্থানের বোলারদের মধ্যে চেতন সাকারিয়া সর্বোচ্চ তিনটি উইকেট নেন। এছাড়া ক্রিস মরিস নেন দুটি উইকেট।

 



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: ক্রিকেট


আরও
আরও পড়ুন
গত​ ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ