Inqilab Logo

ঢাকা, সোমবার, ১৭ মে ২০২১, ০৩ জৈষ্ঠ্য ১৪২৮, ০৪ শাওয়াল ১৪৪২ হিজরী
শিরোনাম

দৈনন্দিন জীবনে ইসলাম

| প্রকাশের সময় : ১৬ এপ্রিল, ২০২১, ১২:০৭ এএম

প্রশ্ন : গৃহকর্মী ও শ্রমিককে কাজ কম করবে মনে করে রোজা রাখতে বাধা দিলে মালিকের কেমন গোনাহ হবে? ভুলবশত এমন করে থাকলে গোনাহ মাফের উপায় কি জানতে চাই?

উত্তর : শরীয়তের বিধান হলো, রমজানে শ্রমিকের কাজ কমিয়ে দেওয়া। আল্লাহ তায়ালা তখন এই মালিকের পাপের বোঝা কমিয়ে সহজে জান্নাত দিবেন। প্রয়োজনে দ্বিগুণ শ্রমিক নিয়োগ দিয়ে হলেও জরুরী কাজ সম্পন্ন করতে হবে, কিন্তু তাদের রোজা রাখা থেকে বিরত করা যাবে না। যদি কেউ করে থাকে, তাহলে সে শাস্তিস্বরূপ প্রচুর দান খয়রাত করবে এবং আল্লাহর নিকট ক্ষমা চাইতে থাকবে। আর সংশ্লিষ্ট শ্রমিক রোজা কাযা করে নিবে।

প্রশ্ন : কোনো বেগানা নারী/পুরুষের সাথে রোজা অবস্থায় চ্যাটিং/ভিডিও চ্যাটিং/এসএমএস করে আলাপচারিতা করলে রোজার ক্ষতি হবে কি?
উত্তর : বেগানা নারী/পুরুষের সাথে শরীয়ত সম্মত কারণ ছাড়া জরুরী আলাপচারিতাও নিষিদ্ধ। শরীয়ত সম্মতি দিলে প্রয়োজন পরিমাণ যোগাযোগ করা জায়েজ। এখানে যে ধরনের চ্যাটিং/ভিডিও চ্যাটিং ইত্যাদির কথা বলা হয়েছে, তা রোজা না রেখেও করা যাবে না। রোজা রেখে তো প্রশ্নই উঠে না। এতে শাব্দিক অর্থে রোজা ভেঙ্গে না গেলেও রোজার তাৎপর্য ও উপকারিতা প্রায় নিঃশেষ হয়ে যাবে। বেগানা নারী/পুরুষের সাথে মনের আবেগ শেয়ার করা মানসিক যিনার সমান। রোজা বা রোজা ছাড়া সবসময়ই এর থেকে বেঁচে থাকা জরুরী। আশা করি উত্তরটি পেয়েছেন।

প্রশ্ন : রমজানে শপিংয়ের সময় ট্রায়াল দেওয়ার জন্য ছোট কক্ষে কাপড় পাল্টানোর প্রয়োজন হলে সুরক্ষিত জায়গা হওয়ায় আমরা পুরো কাপড় ছেড়ে দেই। নতুন কাপড় পরি আবার পাল্টাই। এতে রোজার ক্ষতি হবে কি?

উত্তর : বাথরুম বা ট্রায়াল রুমে কিংবা একাকী নিজ কক্ষে কাপড় পাল্টানোর কারণে রোজা ভাঙ্গে না। তবে এ ধরনের আচরণে ক্ষেত্রভেদে রোজার ক্ষতি হয়। কোনো আড়াল ছাড়া পরিপূর্ণ বিবস্ত্র হওয়া শরীয়তে পছন্দনীয় নয়। এমনকি পেশাব পায়খানা বা একান্ত ব্যক্তিগত প্রয়োজনে কাপড় ছাড়তে হলেও দরকার পরিমাণ ছাড়াই বিধেয়। অকারণে পূর্ণ বিবস্ত্র না হওয়াই উচিত। শপিংমলে বা বিউটি পার্লারে অতীতে যে গোপন ক্যামেরার কথা শোনা গেছে তা মনে রেখে যতদূর সম্ভব সতর্ক থাকা জরুরী। রোজা অবস্থায় এসব নির্দেশনা সবসময়ই অধিক কঠোর ও পালনযোগ্য হয়ে থাকে।

 



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: ইসলাম


আরও
আরও পড়ুন