Inqilab Logo

ঢাকা, শনিবার, ১৫ মে ২০২১, ০১ জৈষ্ঠ্য ১৪২৮, ০২ শাওয়াল ১৪৪২ হিজরী

সউদী যুবরাজের সতর্কতার পর হস্তক্ষেপ জনসনের

ব্রিটিশ ক্লাব নিউক্যাসল ইউনাইটেড ক্রয় আলোচনা

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ১৬ এপ্রিল, ২০২১, ১২:০৫ এএম

সউদী আরবের ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগের ফুটবল ক্লাব নিউক্যাসল ইউনাইটেড কেনার আলোচনা অসুবিধায় পড়ে যাওয়ার পর বরিস জনসন হস্তক্ষেপ করেছিলেন বলে জানা গেছে। সউদী যুবরাজ মোহাম্মদ বিন সালমান সতর্ক করে দেন যে, প্রিমিয়ার লিগের ক্লাবটি বিক্রি নিয়ে বিরোধ দুই দেশের সম্পর্কের ক্ষতি করতে পারে। মেল সংবাদপত্রের খবর অনুযায় প্রধানমন্ত্রী তার শীর্ষ সহকারীদের একজনকে যুবরাজের আবেদনের পর বিষয়টি তদন্ত করতে বলেন। একজন সরকারী মুখপাত্র বলেছেন, চুক্তিটি একটি ‘বাণিজ্যিক বিষয়’ এবং সরকার কর্তৃত্ব গ্রহণের আলোচনার কোনো পর্যায়েই জড়িত ছিল না।
বলা হয় যে, যুবরাজ জনসনকে প্রিমিয়ার লিগের ‘ভুল’ সিদ্ধান্ত ‘শোধরানো ও পুনর্বিবেচনা করতে বলেছিলেন, যার বিরুদ্ধে ক্লাবটি বিক্রিতে ৩০ কোটি ডলারে স্থির থাকার অভিযোগ ছিল।
প্রধানমন্ত্রী মধ্যপ্রাচ্য বিশেষজ্ঞ এবং তার দীর্ঘকালীন সহকারী লর্ড অডনি লিস্টারকে অভিযোগটি খতিয়ে দেখতে বলেন। লর্ড অডনি লিস্টারের পক্ষ থেকে বিষয়টি ‘তদন্ত’ করে দেখার প্রতিশ্রæতি দেয়া হয়েছিল। সউদী বিনিয়োগ ক্লাবের ভাগ্য পুনরুত্থিত করতে পারে বলে যারা বিশ্বাস করেছিল এমন নিউক্যাসল ভক্তদের ক্রোধে শেষ অবধি প্রিমিয়ার লীগকে ধসের জন্য দায়ী করে সউদীরা এ চুক্তি থেকে সরে এসেছিল।
তার পক্ষে ডেভিড ক্যামেরনের তদবির নিয়ে উদ্বেগের মাঝে মি. জনসন এ সপ্তাহে আর্থিক সংস্থা গ্রিনসেল ক্যাপিটালের পতনের পর্যালোচনা করার আদেশ দেয়ার পর এ প্রতিবেদনটি সামনে এসেছে। সউদী সাংবাদিক জামাল খাশোগি হত্যার সাথে জড়িত বিষয়ে আলোচনায় থাকার সময় মোহাম্মদ বিন সালমানের পক্ষে তদবিরসহ তার পদক্ষেপের জন্য প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রী সমালোচনার মুখোমুখি হন।
মেলের প্রতিবেদনের প্রতিক্রিয়ায় একজন সরকারী মুখপাত্র বলেছেন: ‘আমরা যখন বিদেশী বিনিয়োগকে স্বাগত জানাই, তখন জড়িত পক্ষগুলোর জন্য এটি একটি ব্যবসায়ের বিষয় ছিল এবং নিউক্যাসল ইউনাইটেড বিক্রির জন্য অধিগ্রহণ আলোচনায় সরকার কোনো সময় জড়িত ছিল না’।
মেল অনুসারে, যুবরাজ গত জুনে মি. জনসনের কাছে একটি বার্তা পাঠিয়েছিলেন, যখন তিনি প্রস্তাবিত চুক্তির অর্থ এই ক্লাবটি সউদী রাষ্ট্রের মালিকানাধীন হবে কিনা তা জানাতে প্রিমিয়ার লিগের দাবিতে ক্ষুব্ধ হয়েছিলেন।
বলা হয়, যুবরাজ সতর্ক করেছিলেন যে, ‘আমরা আশা করি প্রিমিয়ার লিগ এর ভ্রান্ত সিদ্ধান্ত পুনর্বিবেচনা এবং সংশোধন করবে’।
নিজের ব্যক্তিগত অফিসে একটি বার্তায় মি. জনসন বলেছিলেন ‘স্যার এডওয়ার্ডের জন্য একটি’। লর্ড অডনি-লিস্টারের একটি উক্তি, যিনি সেই সময়ে মনোনীত ছিলেন না। লর্ড অডনি লিস্টার প্রধানমন্ত্রীকে বলেছিলেন, ‘আমি মামলায় আছি। আমি তদন্ত করব’।
লর্ড অডনি লিস্টার সংবাদপত্রকে বলেছিলেন, ‘সউদীরা হতাশ হয়ে পড়ছিল। আমরা এটি কিনতে বা না কেনার জন্য তাদের পক্ষে তদবির করছিলাম না। আমরা চেয়েছিলাম যে, তারা (প্রিমিয়ার লিগ) সোজা হয়ে দাঁড়াক এবং ‘হ্যাঁ’ বা ‘না’ বলুক, তাদের (সউদীদের) ঝুলিয়ে রাখবেন না’।
কর্মকর্তারা স্বীকার করেছেন যে, লীগের অনুরোধে পররাষ্ট্র, কমনওয়েলথ এবং উন্নয়ন অফিসের কর্মকর্তারা এবং প্রিমিয়ার লিগের মধ্যে আলোচনা হয়েছে। কর্মকর্তারা প্রিমিয়ার লিগের কাছে পরিষ্কার বলেছিলেন যে, ক্লাবটির যে কোনো সম্ভাব্য অধিগ্রহণ সংশ্লিষ্ট দুই দলের ব্যাপার। সূত্র : ইভিনিং স্ট্যান্ডার্ড।

 

 



 

Show all comments
  • Hazi Ramzan Sharif Rajeeb ১৬ এপ্রিল, ২০২১, ১:১৯ এএম says : 3
    যুবরাজ আছে লেখাধুলা নিয়ে।
    Total Reply(0) Reply
  • মেঘদূত পারভেজ ১৬ এপ্রিল, ২০২১, ১:২০ এএম says : 4
    মুসলিম দেশগুলোর পক্ষ থেকে এভাবে শক্তভাবে কথা বললে অনেক কিছুই আদায় করা সম্ভব।
    Total Reply(0) Reply
  • নাজনীন জাহান ১৬ এপ্রিল, ২০২১, ১:২০ এএম says : 4
    সামান্য একটা ফুট ক্লাবের জন্য এভাবে যদি কথা বলতে পারেন তাহলে মুসলিম ইস্যুতে বলতে পারেন না।
    Total Reply(0) Reply
  • কুদ্দুস তালুকদার ১৬ এপ্রিল, ২০২১, ১:২১ এএম says : 4
    আমরা চাইবো সৌদি আরব উৎপাদন মূলক কাজে জড়িত হবে।
    Total Reply(0) Reply
  • সাইফুল ইসলাম ১৬ এপ্রিল, ২০২১, ৯:০৮ এএম says : 9
    সালমানের বড় স্বপ্ন! পূরণ করেই ছাড়বেন।
    Total Reply(0) Reply

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: সউদী যুবরাজ


আরও
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ