Inqilab Logo

ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ০৬ মে ২০২১, ২৩ বৈশাখ ১৪২৮, ২৩ রমজান ১৪৪২ হিজরী

কবরীর মৃত্যুতে ফেসবুকে তারকাদের আবেগঘন স্ট্যাটাস

বিনোদন ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ১৭ এপ্রিল, ২০২১, ১১:০৪ এএম

কিংবদন্তি অভিনেত্রী সারাহ বেগম কবরী মারা গেছেন। করোনায় আক্রান্ত হয়ে শুক্রবার রাত ১২টা ২০মিনিটে রাজধানীর শেখ রাসেল গ্যাস্ট্রোলিভার হাসপাতালে শেষ নিশ্বাস ত্যাগ করেন ঢাকাই সিনেমার ‘মিষ্টি মেয়ে’। তার মৃত্যুতে দেশের সাংস্কৃতিক অঙ্গনে নেমে এসেছে শোকের ছায়া। সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুকে শোক জানিয়ে স্মৃতিচারণ করেছেন তারকারা। অভিনেত্রীর দীর্ঘদিনের সহকর্মী থেকে শুরু করে জুনিয়র শিল্পীরা ফেসবুকে আবেগঘন স্ট্যাটাস দিয়েছেন।

৬০ দশকের ঢাকাই চলচ্চিত্রের জনপ্রিয় চলচ্চিত্র নায়িকা সুজাতা আবেগঘন ফেসবুক পোস্টে লিখেছেন,ভাবনার বাহিরে যা ঘটে আমরা তা মেনে নিতে পারিনা! আকাশের উজ্জ্বল নখত্র গুগি বুঝি এইভাবেই ঝরে যায়! এইসব নখত্র গুলো বিশাল আকাশে আর জলবে না কোন কালেই না! এক সাথে কাজ করেছি" পথ চলেছি জীবনের কত গল্পই না আছে আমাদের ভালো থেকো ওপারে ...আমিন!


চিত্রনায়িকা অঞ্জনা রহমান লিখেছেন, ‘আরেকটি নক্ষত্রের পতন। কবরী আপা নেই, মানতে পারছি না। ভাষা হারিয়ে ফেলেছি। এতো বড় একটি শোক মেনে নেয়ার মতো না। বিনম্র শ্রদ্ধা সবসময় আপনার প্রতি। বাংলা চলচ্চিত্রের অন্যতম স্বর্ণমুকুট হয়ে থাকবেন চিরজীবন।’


বাংলা সিনেমার সুপারস্টার চিত্রনায়ক শাকিব খান তার ভেরিফাইড ফেসবুক পেজে লেখেন, কিংবদন্তি এই মানুষটির সঙ্গে আমার অসংখ্য স্মৃতি। যখনই দেখা হতো আমাকে স্নেহ করতেন। তার সময়কার বিভিন্ন স্মৃতি শেয়ার করতেন। কবরী আপার মৃত্যুতে প্রিয় অভিনেত্রী হারানোর পাশাপাশি একজন অভিভাবক হারানোর শোক অনুভব করছি।
যেখানেই থাকুন, ভালো থাকুন কবরী আপা...


কণ্ঠশিল্পী ফাহমিদা নবী লিখেছেন, ‘আজ আর কোনো ছবি নয়, মনের ভেতর থাকুক সেই স্মৃতি, যে স্মৃতি অমলিন। কিন্তু এই ছবিটাতে ওনাকে একজন সংগ্রামী, কষ্টকে জয় করা এবং আবার স্বপ্ন দেখবার প্রত্যয়ে নিজেকে তৈরি করবার এক নতুন সাহসী নারীকে দেখলাম, মনে হলো ওনাকে নিয়ে লিখে কিছুটা হারানোর বেদনা ভুলি....! মিষ্টি মেয়ে খ্যাত চিত্রনায়িকা কবরী চিরনিদ্রায় চলেই গেলেন! মনে হচ্ছে অনেক বৃষ্টি হোক, ঝড় হোক ঝরে যাক অব্যক্ত বেদনা এই ভোর রাতে!’


তিনি আরো লেখেন, ‘মৃত্যু যার যখন হবে, তার তখনই চলে যেতে হবে। এ নিয়ে আর কিছু বলব না। পবিত্র মাসে চলে গেলেন.. সেটাই ভালো হলো। আব্বার কথা মনে পড়ছে..... কাঁদতে পারি না আর.........!’


অভিনেত্রী তারিন তার ফেসবুক টাইমলাইনে লেখেন, আমরা আরও একজন কিংবদন্তিকে হারালাম। তিনি ছিলেন প্রখ্যাত রাজনীতিবিদ। তিনি ছিলেন যোদ্ধা, জীবনের শেষ দিন পর্যন্ত যুদ্ধ করেছেন। আল্লাহ তার বিদেহী আত্মার শান্তি দান করুন। দয়া করে সবাই তার জন্য প্রার্থনা করুন। আমরা একজন কিংবদন্তিকে হারালাম। আসুন আমরা সবাই আল্লাহর কাছে দোয়া করি।


ব্যান্ড তারকা শফিক তুহিন তার ফেসবুকে লিখেছেন, বাংলা চলচ্চিত্র ইতিহাসের অন্যতম কিংবদন্তি অভিনেত্রী মিষ্টি মেয়ে খ্যাত কবরী ইহলোকের মায়া ত্যাগ করেছেন (ইন্নালিল্লাহি ওয়া ইন্না ইলাহি রাজিউন)। এদেশ সারাজীবন আপনার ঐতিহাসিক কাজগুলো মনে রাখবে। ওপারে ভালো থাকবেন...


গীতিকার ও লেখক ইশতিয়াক আহমেদ তার ফেসবুক টাইমলাইনে লেখেন, সাদাকালো টিভি দেখা মানুষ আমরা। শাবানা, কবরীকে দেখে বড় হয়েছি। সেই কবরী একদিন চলে এলেন আমাদের খুব কাছে। আমাদের আসনে দাঁড়িয়ে গেলেন অভিনেত্রী থেকে নেত্রী হওয়ার নতুন পরিচয়ে। তারপর বছর পাঁচেক সিনেমার কবরী, সেলুলয়েডের কবরী, গানের কবরী, নাচের কবরী, হয়ে গেলেন আমাদের নারায়ণগঞ্জের কবরী, আমাদের চাষাড়ার কবরী, আমাদের জনসভার কবরী, আমাদের শহরের আইন শৃঙ্খলা কমিটির কবরী। ক্যামেরার সামনের মিষ্টি অভিনেত্রী, ক্যামেরার বাইরে ঝাঁঝালো নেত্রী সব মিলিয়ে কবরী আমাদের কাছের মানুষ এক। কবরীকে মনে থাকবে অনেকদিন। করোনাকেও...


কণ্ঠশিল্পী কনক চাপা লিখেছেন, আসলেই আর পারছি না! কবরী আপা নেই। ঘন্টা পাঁচেক আগে দোয়া চেয়ে স্ট্যাটাস দিলাম আর এখনই এটা শুনলাম! এভাবেই আমরা একে একে হারাবো আমাদের প্রিয়জনকে! আবারও বলি আমরা অবশ্যই জানি আমরা একান্তই তোমার আল্লাহ! এবং তোমার দিকেই প্রত্যাবর্তনকারী। তারপরও আমরা মানুষ। আপনজনকে ভালোবাসা আমাদের স্বভাবজাত স্বভাব। প্রিয়জন চলে গেলে পাঁজরটাই মনে হয় ভেঙে যায় আর যদি মোটামুটি নিয়মিত হয় তখন তা সহ্যের বাইরে চলে যায়। আল্লাহ, এই রমজানে চলে যাওয়া মানুষটিকে এবং আরও যারা চলে যাচ্ছেন সবাইকে তুমি দয়া করো। বিশেষ অনুগ্রহ করো। আমাদের সবাইকে মাফ করে দাও আল্লাহ।
এই করোনার ভয়াবহ থাবা তুমি তুলে নাও। তোমার রহমানুর রাহিম নামের শান দেখাও আল্লাহ! তুমি তো সব পারো!


জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কারপ্রাপ্ত সুরকার ও সংগীত শিল্পী বেলাল খান তার টাইমলাইনে লেখেন, আমাদের কৈশোর কালের নায়িকা ছিলেন কবরী। মুগ্ধ হয়ে দেখতাম। কী মিষ্টি হাসি তার! শেষ বয়সে এসে রাজনীতিতেও নাম লেখালেন। এমপি হলেন। করোনা আক্রান্ত হয়ে গত কয়েকদিন ধরেই আইসিইউতে মেকানিক্যাল ভেন্টিলেটরে ছিলেন তিনি। আজ চলে গেলেন চিরতরে।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: কবরী

১৮ এপ্রিল, ২০২১
২৮ মার্চ, ২০২১

আরও
আরও পড়ুন