Inqilab Logo

ঢাকা, মঙ্গলবার, ১৮ মে ২০২১, ০৪ জৈষ্ঠ্য ১৪২৮, ০৫ শাওয়াল ১৪৪২ হিজরী
শিরোনাম

সখিপুরে হারানো স্বর্ণালংকার ও টাকা ফেরত পেয়ে কেঁদে ফেললেন নারী

সখিপুর (টাঙ্গাইল) উপজেলা সংবাদদাতা | প্রকাশের সময় : ১৮ এপ্রিল, ২০২১, ৮:৩৭ পিএম

টাঙ্গাইলের সখিপুরে স্বর্ণালংকার, টাকাসহ কুড়িয়ে পাওয়া একটি ভ্যানিটি ব্যাগ মালিককে ফিরিয়ে দিয়েছেন সখিপুর থানার সহকারী উপপরিদর্শক (এএসআই) আবদুল হাকিম। আজ রোববার(১৮এপ্রিল) বেলা ১১টায় সখিপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তার (ওসি) মাধ্যমে ব্যাগটি ওই নারীর হাতে তুলে দেওয়া হয়। ব্যাগটি ফেরত পেয়ে আনন্দে কেঁদে ফেলেন ওই নারী।

সখিপুর থানা সূত্রে জানা যায়, গতকাল শনিবার রাতের দায়িত্ব (নাইট ডিউটি) পালনের সময় এএসআই আবদুল হাকিম উপজেলার দেওদীঘি বাজারে একটি ভ্যানিটি ব্যাগ কুড়িয়ে পান। রাত পৌনে তিনটায় পাওয়া ওই ব্যাগে স্বর্ণালংকার ও টাকা ছিল। ওই বাজারের নৈশপ্রহরীকে ব্যাগ কুড়িয়ে পাওয়ার কথা জানিয়ে ওই পুলিশ কর্মকর্তা ভোররাতে থানায় ফিরে আসেন। ব্যাগটি থানার দায়িত্বরত কর্মকর্তার (ডিউটি অফিসারের) কাছে জমা রাখেন।

আজ রোববার সকাল ১০টার দিকে ব্যাগের মালিক ওই নারী সখিপুর থানায় এসে হারিয়ে যাওয়া ব্যাগের বর্ণনা দেন। বর্ণনায় মিলে যাওয়ায় ওই নারীর হাতে ব্যাগটি তুলে দেন সখিপুর থানার ওসি এ কে সাইদুল হক ভূঁইয়া।নাজমা আক্তার নামের ওই নারী বলেন, তিনি খুবই অসহায়। স্বামী তাঁকে তালাক দিয়ে অন্যত্র বিয়ে করেছেন। ওই ব্যাগে যে স্বর্ণালংকার ছিল, এটাই তাঁর শেষ সম্বল। ব্যাগে এক হাজার ২৫ টাকা ছিল। তিনি ওই এএসআইয়ের কাছে কৃতজ্ঞ। আজ থেকে পুলিশ সম্পর্কে তাঁর ধারণা পাল্টে গেছে।

সখিপুর থানার এএসআই আবদুল হাকিম বলেন, এর আগেও তিনি কিছু টাকা কুড়িয়ে পেয়েছিলেন। সেই টাকাও তিনি থানায় জমা রেখেছিলাম। এক মাস পার হওয়ার পর টাকার মালিক না পাওয়ায় ওসির পরামর্শে থানার মসজিদে দেওয়া হয়েছিল। ওই অসহায় নারীকে তাঁর স্বর্ণালংকার ও টাকা ফিরিয়ে দিতে পেরে খুবই ভালো লাগছে।

সখিপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) এ কে সাইদুল হক ভূঁইয়া বলেন, ‘তাঁর (আবদুল হাকিম) এ সততার জন্য আমরা তাঁকে অভিনন্দন জানিয়েছি। পরবর্তী সময়ে তাঁকে পুরস্কৃত করা হবে।’



 

Show all comments
  • Jack+Ali ১৮ এপ্রিল, ২০২১, ১০:০৭ পিএম says : 0
    We need honest police like him,, they will not kill us or they will not do remand business.
    Total Reply(0) Reply

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ