Inqilab Logo

ঢাকা, শনিবার, ১৫ মে ২০২১, ০১ জৈষ্ঠ্য ১৪২৮, ০২ শাওয়াল ১৪৪২ হিজরী

সমরাস্ত্র উৎপাদনে কোনো সীমারেখা ইরান মানবে না

ইরানের পরমাণু স্থাপনা ধ্বংস করা সম্ভব নয় : ইসরাইল

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ২০ এপ্রিল, ২০২১, ১২:০২ এএম

শত্রুর হুমকির ধরন অনুযায়ী ইরান তার ক্ষেপণাস্ত্রের পাল্লা ঠিক করে বলে জানিয়েছেন দেশটির সাবেক প্রতিরক্ষামন্ত্রী ও সর্বোচ্চ নেতার সামরিক উপদেষ্টা ব্রিগেডিয়ার জেনারেল হোসেইন দেহকান। ইয়েমেনের আল-মাসিরা টেলিভিশনকে দেয়া এক সাক্ষাৎকারে তিনি বলেন, হুমকি যত বাড়বে আমাদের ক্ষেপণাস্ত্রের পাল্লাও তত বাড়তে থাকবে। হোসেইন দেহকান বলেন, ইরানের বিরুদ্ধে যেকোনো উসকানিমূলক পদক্ষেপের উপযুক্ত জবাব দেয়া হবে। আর সে জবাব কখন কোথায় দেয়া হবে তা তেহরানই ঠিক করবে। এর ফলে শত্রু ইরানের বিরুদ্ধে একই ধরনের পদক্ষেপের পুনরাবৃত্তি করার আগে শতবার চিন্তা করবে। এ সময় হুঁশিয়ার করে দিয়ে ইরানের সাবেক প্রতিরক্ষামন্ত্রী বলেন, গণবিধ্বংসী অস্ত্র ছাড়া অন্য যেকোনো সমরাস্ত্র উৎপাদনের দিক দিয়ে ইরান কোনো সীমারেখা মানবে না। ইরানের নাতাঞ্জ পরমাণু স্থাপনায় সাম্প্রতিক সাইবার হামলার দায় কে স্বীকার করল তা বড় কথা নয় বলে উল্লেখ করেন জেনারেল দেহকান। তিনি বলেন, ইহুদিবাদী ইসরাইল, সৌদি আরব ও আমেরিকা এই হামলার সঙ্গে জড়িত এবং মার্কিন সরকার এর দায় এড়াতে পারবে না। অপর দিকে, ইসরাইলের সেনা গোয়েন্দা সংস্থার সাবেক পরিচালক মেজর জেনারেল আমোস ইয়াদলিন বলেছেন, সামরিক হামলা চালিয়ে ইরানের পরমাণু স্থাপনা ধ্বংস করা অত্যন্ত কঠিন কাজ। তিনি মার্কিন একটি টিভি চ্যানেলকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে এ কথা বলেন। এতে তিনি আরও বলেন, ইসরাইল যেভাবে ১৯৮১ সালে ইরাকের এবং ২০০৭ সালে সিরিয়ার পরমাণু স্থাপনা মাত্র একবার হামলা চালিয়ে ধ্বংস করে দিয়েছিল, ইরানের পরমাণু স্থাপনা সেভাবে ধ্বংস করা সম্ভব নয়। খবর সিএনবিসির। ইসরাইলের এই সাবেক জেনারেল ও তেলআবিব ন্যাশনাল সিকিউরিটি স্টাডিজ ইনস্টিটিউটের নির্বাহী পরিচালক ইরানের পরমাণু কর্মসূচির সঙ্গে ইরাক ও সিরিয়ার পরমাণু কর্মসূচির তুলনামূলক পার্থক্য তুলে ধরেন। তিনি বলেন, ইরানের পরমাণু কর্মসূচি অনেক বেশি সমৃদ্ধ ও বিভিন্ন স্থানে ছড়ানো-ছিটানো। অথচ ইরাক ও সিরিয়ার পরমাণু কর্মসূচি ছিল একটি স্থানে সীমাবদ্ধ। ইরানের পরমাণু স্থাপনাগুলো বহু স্থানে ছড়িয়ে দেওয়া হয়েছে এবং এগুলোর বেশিরভাগ পাহাড়ের নিচে ভূগর্ভে স্থাপন করা হয়েছে। ইসরাইলের বা পশ্চিমা দেশগুলোর পক্ষে ইরানের পরমাণু কর্মসূচির সার্বিক চিত্র সম্পর্কে স্পষ্ট ধারণা লাভ করা সম্ভব হয়েছে কিনা তা নিয়েও তিনি সঙ্কয় প্রকাশ করেন।আল-মাসিরা টিভি, সিএনবিসি।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: ইরান


আরও
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ