Inqilab Logo

ঢাকা, মঙ্গলবার, ১৮ মে ২০২১, ০৪ জৈষ্ঠ্য ১৪২৮, ০৫ শাওয়াল ১৪৪২ হিজরী

একদিনে আরো ৯৫ জনের মৃত্যু

দেশে করোনাভাইরাস

স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ২৩ এপ্রিল, ২০২১, ১২:১৫ এএম

করোনা মহামারির থাবায় দেশজুড়ে সংক্রমণ ও প্রাণহানি অব্যাহত রয়েছে। দেশে করোনাভাইরাসে গত ২৪ ঘণ্টায় আরো ৯৫ জনের মৃত্যু হয়েছে। এ পর্যন্ত মোট মৃত্যু হয়েছে ১০ হাজার ৬৮৩ জন। এদিন ২৮ হাজার ৪০৮ জনের নমুনা পরীক্ষা করা হয়। এরমধ্যে আক্রান্ত হিসেবে শনাক্ত হয়েছে ৪ হাজার ২৮০ জন। এ পর্যন্ত মোট আক্রান্তের সংখ্যা ৭ লাখ ৩২ হাজার ৬০ জন। গতকাল বুধবার স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়।

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, রাজধানী ঢাকা সিটিসহ দেশের বিভিন্ন হাসপাতালে ও বাড়িতে উপসর্গবিহীন রোগীসহ গত ২৪ ঘণ্টায় সুস্থ হয়েছেন ৭ হাজার ৭২ জন। এ পর্যন্ত মোট সুস্থ হয়েছেন ৬ লাখ ৩৫ হাজার ১৮৩ জন। সারাদেশে সরকারি ও বেসরকারি ব্যবস্থাপনায় ৩৩৫টি ল্যাবে নমুনা সংগ্রহ ও পরীক্ষা হয়েছে। এর মধ্যে আরটি-পিসিআর ল্যাব ১২২টি, জিন এক্সপার্ট ৩৪টি, র‌্যাপিড অ্যান্টিজেন ১৭৯টি। এসব ল্যাবে ২৪ ঘণ্টায় নমুনা সংগ্রহ হয়েছে ২৮ হাজার ৫৬১টি। মোট নমুনা পরীক্ষা করা হয়েছে ২৮ হাজার ৪০৮টি। এ পর্যন্ত নমুনা পরীক্ষা হয়েছে ৫২ লাখ ৪৯ হাজার ৬৮৩ টি।

স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়, গত ২৪ ঘণ্টায় নমুনা পরীক্ষায় শনাক্তের হার ১৫ দশমিক ০৭ শতাংশ। এ পর্যন্ত নমুনা পরীক্ষা বিবেচনায় শনাক্তের হার ১৩ দশমিক ৯৪ শতাংশ এবং শনাক্ত বিবেচনায় সুস্থতার হার ৮৬ দশমিক ৭৭ এবং শনাক্ত বিবেচনায় মৃত্যুর হার এক দশমিক ৪৬ শতাংশ। ২৪ ঘণ্টায় মৃত ৯৫ জনের মধ্যে ঢাকা বিভাগে ৫৮ জন, চট্টগ্রাম বিভাগে ১৭ জন, রাজশাহী বিভাগে ৮ জন। খুলনা, সিলেট ও রংপুর বিভাগে ৩ জন করে ৯ জন, বরিশাল বিভাগে ২ জন। এছাড়া ময়মনসিংহ বিভাগে এক জন রয়েছেন। এদের মধ্যে সরকারি হাসপাতালে মারা গেছেন ৬০ জন, বেসরকারি হাসপাতালে ৩১ জন, বাড়িতে ৪ জন। মৃতদের বয়স বিশ্লেষণে দেখা যায়, ৬০ বছরে ঊর্ধ্বে ৫৭ জন, ৫১ থেকে ৬০ বছরের মধ্যে ২২ জন, ৪১ থেকে ৫০ বছরের মধ্যে ১৩ জন, ৩১ থেকে ৪০ বছরের মধ্যে ৩ জন রয়েছেন।

বিজ্ঞপ্তিতে আরো জানানো হয়, গত ২৪ ঘণ্টায় আইসোলেশনে এসেছেন ৭২৯ জন ও আইসোলেশন থেকে ছাড় পেয়েছেন ৩৬২ জন। এ পর্যন্ত আইসোলেশনে এসেছেন এক লাখ ১৭ হাজার ৮৭৮ জন। আইসোলেশন থেকে ছাড়পত্র নিয়েছেন ৯৮ হাজার ৮৮৮ জন। বর্তমানে আইসোলেশনে আছেন ১৮ হাজার ৯৯০ জন।

এর আগে গত ৭ এপ্রিল দেশে একদিনে করোনা আক্রান্ত হিসেবে শনাক্ত হয় ৭ হাজার ৬২৬ জন। যা দেশে একদিনে করোনা শনাক্তে সর্বোচ্চ রেকর্ড। আর গত ৬ এপ্রিল একদিনে করোনা শনাক্ত হয় ৭ হাজার ২১৩ জন।
স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের তথ্য মতে, ২০২০ সালের ৮ মার্চ দেশে করোনা ভাইরাসের প্রথম রোগী শনাক্ত হয়। এর ১০ দিন পর ১৮ মার্চ করোনায় আক্রান্ত হয়ে প্রথম মৃত্যু হয়। এরপর ধীরে ধীরে আক্রান্তের হার বাড়তে থাকে।

এদিকে করোনাভাইরাসে গত ২৪ ঘণ্টায় সারা বিশ্বে মারা গেছেন প্রায় ১৪ হাজার মানুষ। একই সময়ে ভাইরাসটিতে নতুন করে আক্রান্ত হয়েছেন প্রায় ৮ লাখ ২৫ হাজার মানুষ। এতে বিশ্বব্যাপী করোনায় আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে হয়েছে প্রায় ১৪ কোটি ৩৫ লাখ ৪৩ হাজার। অন্যদিকে মৃতের সংখ্যা বেড়ে হয়েছে প্রায় ৩০ লাখ ৫৮ হাজার। গত বুধবার করোনাভাইরাসে আক্রান্ত, মৃত্যু ও সুস্থতার হিসাব রাখা ওয়েবসাইট ওয়ার্ল্ডোমিটারস থেকে পাওয়া সর্বশেষ তথ্য

এটা জানানো হয়। এত বলা হয় গত ২৪ ঘণ্টায় সারা বিশ্বে করোনায় আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন ১৩ হাজার ৯০৫ জন। একই সময়ের মধ্যে ভাইরাসটিতে নতুন করে আক্রান্ত হয়েছেন ৮ লাখ ২৪ হাজার ৯৭৫ জন। এতে ভাইরাসে আক্রান্ত মোট রোগীর সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ১৪ কোটি ৩৫ লাখ ৪২ হাজার ৫৫০ জনে।

করোনাভাইরাসে সবচেয়ে ক্ষতিগ্রস্ত দেশ যুক্তরাষ্ট্র। দেশটিতে এখন পর্যন্ত ৩ কোটি ২৫ লাখ ৩৬ হাজার ৪৭০ জন করোনায় আক্রান্ত এবং ৫ লাখ ৮২ হাজার ৪৫৬ জন মারা গেছেন। লাতিন আমেরিকার দেশ ব্রাজিল করোনায় আক্রান্তের দিক থেকে তৃতীয় ও মৃত্যুর সংখ্যায় তালিকার দ্বিতীয় অবস্থানে রয়েছে। দেশটিতে মোট শনাক্ত রোগী এক কোটি ৪০ লাখ ৫০ হাজার ৮৮৫ জন এবং মৃত্যু হয়েছে ৩ লাখ ৭৮ হাজার ৫৩০ জনের। করোনায় আক্রান্তের তালিকায় দ্বিতীয় অবস্থানে রয়েছে প্রতিবেশী দেশ ভারত। তবে ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে মৃতের সংখ্যার তালিকায় দেশটির অবস্থান চতুর্থ। দেশটিতে মোট আক্রান্ত এক কোটি ৫৬ লাখ ৯ হাজার ৪ জন এবং মারা গেছেন ১ লাখ ৮২ হাজার ৫৭০ জন।

এছাড়া এখন পর্যন্ত ফ্রান্সে ৫৩ লাখ ৩৯ হাজার ৯২০ জন, রাশিয়ায় ৪৭ লাখ ১৮ হাজার ৮৫৪ জন, যুক্তরাজ্যে ৪৩ লাখ ৯৩ হাজার ৩০৭ জন, ইতালি ৩৮ লাখ ৯১ হাজার ৬৩ জন, তুরস্কে ৪৩ লাখ ৮৪ হাজার ৬২৪ জন, স্পেন ৩৪ লাখ ৩৫ হাজার ৮৪০ জন, জার্মানি ৩১ লাখ ৮০ হাজার ৮১০ জন এবং মেক্সিকোতে ২৩ লাখ ১১ হাজার ১৭২ জন করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন।

অন্যদিকে করোনায় আক্রান্ত হয়ে এখন পর্যন্ত ফ্রান্সে এক লাখ এক হাজার ৫৯৭ জন, রাশিয়ায় এক লাখ ৬ হাজার ৩০৭ জন, যুক্তরাজ্যে এক লাখ ২৭ হাজার ৩০৭ জন, ইতালিতে এক লাখ ১৭ হাজার ৬৩৩ জন, তুরস্কে ৩৬ হাজার ৬১৩ জন, স্পেনে ৭৭ হাজার ২১৬ জন, জার্মানিতে ৮১ হাজার ৮৬ জন এবং মেক্সিকোতে ২ লাখ ১৩ হাজার ৪৮ জন মারা গেছেন। ##



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: করোনাভাইরাস


আরও
আরও পড়ুন