Inqilab Logo

ঢাকা, মঙ্গলবার, ১৮ মে ২০২১, ০৪ জৈষ্ঠ্য ১৪২৮, ০৫ শাওয়াল ১৪৪২ হিজরী

পুঠিয়া-তাহেরপুর আঞ্চলিক সড়কে বালু-পাথর সরবরাহকে কেন্দ্র করে ক্ষমতাসীন দলের দু’গ্রুপে সংঘর্ষ

পুঠিয়া (রাজশাহী) উপজেলা সংবাদদাতা | প্রকাশের সময় : ২২ এপ্রিল, ২০২১, ৪:১৮ পিএম

পুঠিয়া-তাহেরপুর নির্মাণাধীন আঞ্চলিক সড়কে ইটবালু ও পাথর সরবরাহকে কেন্দ্র করে ক্ষমতাসীন দলের দু’গ্রুপের নেতাকর্মীদের মধ্যে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে। এ ঘটনায় উভয় পক্ষের ৪ জন আহত হয়েছে। থানা পুলিশ ঘটনা স্থলে উপস্থিত হয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে। এ ঘটনার পর থেকে উপজেলা সদর এলাকা জুড়ে চরম আতঙ্ক বিরাজ করছে।

বৃহস্পতিবার (২২ এপ্রিল) সকাল সাড়ে ১১ টার দিকে উপজেলা পরিষদের তাহেরপুর সড়কের ১নং খাদ্য গুদাম গেইটের সামনে এ সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। প্রত্যক্ষদশী সূত্রে জানাগেছে, সকাল ১১টা থেকে তাহেরপুর সড়কের খাদ্যগুদাম গেইটের সামনে আব্দুলা ও তার লোকজন বসে আড্ডা দিচ্ছিলেন।

সে সময় সেখানে রাজা ও তার লোকজন উপস্থিত হয়। তারা উভয়ে ক্ষমতাসিন দলের যুবলীগ ও ছাত্রলীগের নেতাকর্মী। পরে উভয় পক্ষের মধ্যে কথাকাটাকাটির এক পর্যায়ে ধাক্কাধাক্কি শুরু হয়। পরে দু'পক্ষ সংঘর্ষে লিপ্ত হয়। এতে উভয় পক্ষের ৪ জন আহত হয়েছে।

তবে তৎক্ষনিক আহতদের নাম পরিচয় পাওয়া যায়নি। এরপর থানার পুলিশ আসলে ঘটনাস্থল থেকে উভয় পক্ষের লোকজন সটকে পড়ে।

জানতে চাইলে জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি হাবিবুর রহমান হাবিব বলেন, নির্মাণাধীন পুঠিয়া-তাহেরপুর সড়কে বালু সরবরাহ নিয়ে দু’পক্ষের মধ্যে কিছুটা বিভেদ দেখা দিয়েছে। তবে বিষয়টি দু’পক্ষকে নিয়ে আপোষ করা হবে।

এ বিষয়ে উপজেলা চেয়ারম্যান জিএম হীরা বাচ্চু বলেন, তাহেরপুর সড়ক নির্মাণ কাজের ঠিকাদারকে স্থানীয় ছেলেরা বালু-পাথর সরবরাহ করছে। এ বিষয়টি নিয়ে গত কয়েকদিন ধরে দু’পক্ষের মধ্যে কিছুটা সমস্যা দেখা দিয়েছে। আজ সন্ধ্যার ভেতর উভয়পক্ষকে নিয়ে মিমাংশা করার কথা ছিল। কিন্তু হঠাৎ করে সকালে দু’পক্ষের মধ্যে বিবাদ শুরু হয়েছে বলে আমি শুনেছি।

থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা সোহরাওয়ার্দী হোসেন বলেন, দুই গ্রুপের সংঘর্ষের খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠানো হয়। বিষয়টি তদন্তপূর্বক আইনী ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।



 

Show all comments
  • Jack Ali ২২ এপ্রিল, ২০২১, ৪:৫৪ পিএম says : 0
    আমরা কিসের জন্য পাকিস্তান হানাদার বাহিনীর কাছ থেকে দেশ স্বাধীন করেছিলাম????আমরা এখন আওয়ামী লীগের কাছে পরাধীন তারা দেশটাকে যে ইচ্ছে হবে চালাচ্ছে এবং আমাদেরকে জঘন্যতম ভাবে অত্যাচার করতেছে.
    Total Reply(0) Reply

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: সংঘর্ষ


আরও
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ