Inqilab Logo

ঢাকা, মঙ্গলবার, ১১ মে ২০২১, ২৮ বৈশাখ ১৪২৮, ২৮ রমজান ১৪৪২ হিজরী
শিরোনাম

বামন হলেও সূর্যের চেয়ে ১০০ গুণ শক্তিশালী!

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ২২ এপ্রিল, ২০২১, ৪:৩০ পিএম

সূর্যের কাছের একটি নক্ষত্র হচ্ছে প্রক্সিমা সেন্টোরি। দীর্ঘদিন ধরেই এ্ই বামন আকৃতির নক্ষত্রটি গবেষণা করছেন বিজ্ঞানীরা। এবার নতুন একটি গবেষণায় জানা গেছে, এটি থেকে সূর্যের চেয়েও ১০০ গুণ বেশি শক্তিশালী শিখা বের হয়েছে।

প্রক্সিমা সেন্টোরির এই রশ্মিকে রেকর্ড ব্রেকিং বলে মন্তব্য করেছেন গবেষকেরা। তারা জানিয়েছেন, মহাকাশ বিজ্ঞানীদের একটি বৈশ্বিক প্রতিনিধি দল ২০১৯ সালের ১ মে এটি পর্যবেক্ষণ করেন। স্থায়ী ছিল মাত্র সাত সেকেন্ড। মুহূর্তটি ধারণ করতে বিজ্ঞানীরা পাঁচটি টেলিস্কোপ ব্যবহার করেন। গবেষণার ফলাফল দ্য অ্যাস্ট্রোফিজিক্যাল জার্নাল লেটারসে বুধবার প্রকাশিত হয়েছে।

গবেষকেরা লিখেছেন, ‘নক্ষত্রটি ওই রশ্মি নির্গমনের সময় স্বাভাবিক সময়ের চেয়ে ১৪ হাজার গুণ উজ্জ্বল হয়েছিল।’ নক্ষত্রটি ইউরোপিয়ান সাউদার্ন অবজারভেটরির ২০০০ থেকে ২০১৪ সালের পর্যবেক্ষণের সাহায্যে প্রথম দেখা যায়। আবিষ্কারটির জন্য ব্যবহার করা হয় ডপলার উবেল পদ্ধতি, যাতে পর্যবেক্ষকরা একটি নক্ষত্রের লাইন-অফ-সাইট গতির নির্ভুল পরিমাপ করেন এবং মহাকাশে সেটির গতিবিধির নজর রাখেন।

প্রক্সিমা সেন্টোরি সূর্যের সবচেয়ে কাছের নক্ষত্র। পৃথিবী থেকে প্রায় ৪ অলোক বর্ষ অথবা ২৫ ট্রিলিয়ন মাইল দূরে এর অবস্থান। এম ৫ দশমিক ৫ টাইপের এই নক্ষত্রটি আলফা সেন্টোরি সিস্টেমের ক্ষুদ্রতম সদস্য। এর ব্যাসার্ধ সূর্যের চাইতে ১৪ শতাংশ ও ভর ১২ শতাংশ কম। পৃষ্ঠের তাপমাত্রা প্রায় ২ হাজার ৭৭৭ ডিগ্রি সেলসিয়াস বা ৫ হাজার ৩১ ডিগ্রি ফারেনহাইট।

নক্ষত্রটি আকারে ছোট, লাল। একে প্রদক্ষিণ করছে কমপক্ষে দুটি গ্রহ। একটি পৃথিবীর মতো হতে পারে বলে বিজ্ঞানীদের ধারণা। এটি সূর্যের চেয়ে এক হাজার গুণ কম আলোকিত। ফলে পৃথিবীর সবচেয়ে কাছাকাছি যখন অবস্থান করে, তখনও একে খালি চোখে দেখা যায় না। সূত্র: অ্যাস্ট্রোনমি নাউ।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ
গত​ ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ