Inqilab Logo

বৃহস্পতিবার, ২৭ জানুয়ারী ২০২২, ১৩ মাঘ ১৪২৮, ২৩ জামাদিউস সানি ১৪৪৩ হিজরী

দরিদ্রদের ১ বিলিয়ন ডলারের খাদ্য সহায়তা দিন

সরকারের প্রতি জাফরুল্লাহ

স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ২৩ এপ্রিল, ২০২১, ১২:১০ এএম

গণস্বাস্থ্যের প্রতিষ্ঠাতা ও ট্রাস্টি ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরী সরকারের প্রতি আহবান জানিয়ে বলেছেন, দেশের আড়াই কোটি দরিদ্র পরিবারের মধ্যে ১ বিলিয়ন ডলারের খাদ্য সরবরাহ করুন। গতকাল জাতীয় শহীদ মিনারে অনুষ্ঠিত ‘লকডাউনে মানুষের হাহাকার বন্ধে ঘরে ঘরে খাদ্য পৌঁছাও নাগরিক প্রতীকী অবস্থান কর্মসূচিতে তিনি এ কথা বলেন।
সভাপতির বক্তব্যে ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরী বলেন, অবস্থা প্রতিদিনই খারাপের দিকে যাচ্ছে। এই দুর্বিষহ অবস্থার মধ্যে একটা সুখবর আছে তা হচ্ছে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী সুস্থ আছেন। ওনার ইবাদতের ফল দিয়েছে, উনি ভালো আছেন।

জাফরুল্লাহ চৌধুরী বলেন, সব ধরনের গবেষণা বলেছে যে বাংলাদেশে দরিদ্র পরিবার সোয়া ২ কোটি অতিক্রম করেছে। এই সোয়া দুই কোটি পরিবারের জন্য প্রধানমন্ত্রী সাড়ে ১০ কোটি টাকা বরাদ্দ করেছেন। এর মানে হচ্ছে প্রতি পরিবারে সোয়া ৪ টাকা করে পাবে। সোয়া ৪ টাকা দিয়ে রমজান মাসে কী খেতে পারেন? এই জাতীয় মশকরা করছেন আমাদের মাননীয় প্রধানমন্ত্রী। আজ ওনাকে স্মরণ করিয়ে দেয়া দরকার যে এই মশকরার দিন ফুরিয়ে আসছে। আপনি সাড়ে ১০ কোটি টাকা দান করে ভিক্ষা দিচ্ছেন কাকে? যার টাকা তাকেই। আপনার ঘোষণা অনুযায়ী আপনার (সরকার) তহবিলে আছে ৪৩ বিলিয়ন ডলার। কোনো চিন্তাভাবনা না করে আড়াই কোটি দরিদ্র পরিবারের মধ্যে ১ বিলিয়ন ডলার খাদ্য সহায়তা দেন।

তিনি বলেন, আরেকটা কথা আমি বলতে চাই আমাদের যত রাজনীতিবিদ আছেন, সে বিএনপি হোক, কমিউনিস্ট পার্টি হোক, বাসদ হোক, সবাই মিলে চেষ্টা করলে বাংলাদেশ এক লক্ষ ধনী পরিবার, ব্যবসায়ীর কাছ থেকে সাত দিন চেষ্টা করলে ১০ কোটি টাকা উঠাতে পারি না? যারা মুক্তিযুদ্ধের সুবিধা নিয়ে, বাংলাদেশের সুবিধা নিয়ে কোটি কোটি টাকার মালিক হয়েছেন তাদের মনে করিয়ে দিতে চাই আপনারা যদি সাহায্যে না নামেন তাহলে জাতি আপনাদের ক্ষমা করবে না।

ডা. জাফরুল্লাহ বলেন, সরকারের খামখেয়ালীপনার বিরুদ্ধে আমাদের রুখে দাঁড়াতে হবে। ডাকাতের সরকার কখনো জনগণের কথা ভাবে না। আমাদের সম্মিলিত প্রচেষ্টা অব্যাহত রাখতে হবে। সবার সম্মিলিত প্রচেষ্টায় জনগণ জিতবে। গণতন্ত্র প্রতিষ্ঠিত হবে।

কর্মসূচিতে বিশিষ্ট নাগরিকদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন মাহমুদুর রহমান মান্না, বীর মুক্তিযোদ্ধা নঈম জাহাঙ্গীর, বীর মুক্তিযোদ্ধা ইশতিয়াক আজিজ উলফত, সাদেক খান, গণসংহতি আন্দোলনের প্রধান সমন্বয়কারী জোনায়েদ সাকি, জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপিকা দিলারা চৌধুরী, আলোকচিত্রী শহিদুল আলম, জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপিকা রেহনোমা আহমেদ, ব্যারিস্টার সাদিয়া আরমান, নাগরিক ঐক্যের সমন্বয়ক শহীদুল্লাহ কায়সার, ভাসানী অনুসারী পরিষদের মহাসচিব শেখ রফিকুল ইসলাম বাবলু, নারীর জন্য সুশাসনের নির্বাহী পরিচালক রুবি আমাতুল্লাহ, রাষ্ট্রচিন্তার সদস্য দিদারুল আলম ভ‚ইয়া প্রমুখ।

 



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: দরিদ্র


আরও
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ