Inqilab Logo

ঢাকা, বুধবার, ১২ মে ২০২১, ২৯ বৈশাখ ১৪২৮, ২৯ রমজান ১৪৪২ হিজরী

জায়ান্টদের স্বস্তির রাত

স্পোর্টস ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ২৪ এপ্রিল, ২০২১, ১২:০২ এএম

‘ইউরোপিয়ান সুপার লিগ’ ধাঁধাঁ পেরিয়ে মাঠের লড়াইয়ে স্বস্তির একটি রাত কাটিয়েছে জায়ান্ট ক্লাবগুলো। ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগে শুরুতে পিছিয়ে পড়েও দুই লাল কার্ডের ম্যাচে অ্যাস্টন ভিলাকে তাদেরই মাঠে গতপরশু ২-১ গোলে হারিয়েছে ম্যানচেস্টার সিটি। একই রাতে লিগের আরেক ম্যাচে নিজেদের মাঠে পিছিয়ে পড়া টটেনহ্যাম ২-১ ব্যবধানে সাউদাম্পটনকে হারিয়ে অভিষেক জয় উপহার দিয়েছে হোসে মরিনহোর স্থলাভিষিক্ত হওয়া অন্তবর্তীকালীন কোচ রায়ান ম্যাসনকে। ৩৩ ম্যাচে ৫৩ পয়েন্ট নিয়ে প্রিমিয়ার লিগে পয়েন্ট তালিকার ষষ্ঠ স্থানে ওঠে এসেছে টটেনহ্যাম। সমান ম্যাচে ৭৭ পয়েন্ট পয়েন্ট নিয়ে শীর্ষস্থান অটুট রেখেছে সিটি।
মাউরো ইকার্দির হ্যাটট্রিক, নেইমারের এক গোল আর একটি আত্মঘাতি গোলে ফ্রেঞ্চ কাপের কোয়ার্টার ফাইনালে অ্যাঞ্জার্সকে ৫-০ গোলে উড়িয়ে দিয়েছে প্যারিস সেইন্ট জার্মেই। আর তাতেই সেমিফাইনালের টিকিট নিশ্চিত পিএসজির।
গেল অক্টোবরে ঘরের মাঠে কাদিজের বিপক্ষে ১-০ গোলে হেরেছিল রিয়াল মাদ্রিদ। এবার কাদিজের মাঠেই ৩-০ গোলের ব্যবধানে জিতে যেন তারই প্রতিশোধ নিল জিনেদিন জিদানের দল। সেই সঙ্গে পূর্ণ তিন পয়েন্ট নিয়ে লা লিগার পয়েন্ট টেবিলের শীর্ষে উঠে এসেছে লস ব্ল্যাঙ্কোসরা। কাদিজের বিপক্ষে জয়ের পর ৩২ ম্যাচে ২১ জয়, ৭ ড্র আর ৪ হারে ৭০ পয়েন্ট নিয়ে শীর্ষে রিয়াল মাদ্রিদ। এক ম্যাচ কম খেলে সমান ৭০ পয়েন্ট হলেও রিয়ালের বিপক্ষে মুখোমুখি দেখায় পিছিয়ে থেকে দুইয়ে অ্যাটলেটিকো মাদ্রিদ। তবে গতকাল রাতে ম্যাচে হুয়েস্কাকে হারিয়ে দিলে অথবা ড্র করে থাকলে ইতিমধ্যেই শীর্ষে চলে গেছে অ্যাটলেটিকো। তা পাঠে এতক্ষণে জেনে গেছেন নিশ্চয়ই। ৬৭ পয়েন্ট নিয়ে তিনে অবস্থান করছে সেভিয়া আর ৩০ ম্যাচে ৬৫ পয়েন্ট নিয়ে চার নম্বরে অবস্থান করছে বার্সেলোনা।
ক্রিশ্চিয়ানো রোনালদো জুভেন্টাসে যোগ দেওয়ার পরে দলকে জিতিয়েছেন বহু ম্যাচ। কিন্তু পার্মার বিপক্ষে সেই রোনালদোর ভুলেই কিনা, হারের শঙ্কাও জেগেছিল ইতালিয়ান চ্যাম্পিয়নদের। তবে পরে ৩-১ গোলে ঠিকই জিতেছে কোচ আন্দ্রেয়া পিরলোর শিষ্যরা, উঠে এসেছে লিগ টেবিলের তৃতীয় স্থানেও।
ফরোয়ার্ডের কাজ গোল করা আর ডিফেন্ডারদের কাজ গোল ঠেকানো হলেও আধুনিক ফুটবল একজন খেলোয়াড়ের কাছ থেকে চায় তার চেয়ে বেশি কিছু। একজন ফরোয়ার্ডকে তাই গিয়ে দাঁড়াতে হয় ফ্রি কিকের রক্ষণ দেয়ালে, আবার একজন ফুলব্যাককে তাই উঠে আসতে হয় আক্রমণে। জুভেন্টাসের রক্ষণ দেয়ালে ডাক পড়ে রোনালদোর। গ্যাস্তন ব্রুগমানের নেওয়া ফ্রি কিকটিতে ডিফেন্ড করার সময় রোনালদো মাথা নুইয়ে ফেলেন, বলটাও তার ঠিক ওপর দিয়ে গিয়েই আছড়ে পড়ে জালে। ফলে ২৫তম মিনিটে জুভেন্টাসের মাঠে গোল পেয়ে যায় সফরকারী পার্মা।
এর আগে ম্যাচের শুরু থেকে অবশ্য বল দখল ও আক্রমণে জুভেন্টাসেরই আধিপত্য ছিল। বিরতির দুই মিনিট পরই দলকে ২-১ গোলে এগিয়ে দেন সান্দ্রো। কুয়াদ্রাদোর ক্রসে দিবালা মাথা ছোঁয়াতে না পারলেও দূরের পোস্টে থাকা সান্দ্রো গোল করে বসেন। ৬৭ মিনিটে ম্যাচের অনিশ্চয়তা মুছে দেওয়া গোলটাতেও অবদান ছিল কুয়াদ্রাদোর। তার কর্নার থেকেই দারুণ এক হেডারে ৩-১ গোলে দলকে এগিয়ে দেন ডি লিখট।
এর ফলে ৩২ ম্যাচে ৬৫ পয়েন্ট নিয়ে জুভেন্টাস পেছনে ফেলল ৩১ ম্যাচে ৬৪ পয়েন্ট পাওয়া আটালান্টাকে, উঠে এসেছে তালিকার তিনে। সমান ম্যাচে ৭৬ পয়েন্ট নিয়ে শীর্ষে ইন্টার মিলান।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

আরও পড়ুন