Inqilab Logo

শুক্রবার, ০৩ ডিসেম্বর ২০২১, ১৮ অগ্রহায়ণ ১৪২৮, ২৭ রবিউস সানী ১৪৪৩ হিজরী

ভারতের সাথে সীমান্ত বন্ধে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে জোরালো দাবি

শাহেদ নুর | প্রকাশের সময় : ২৭ এপ্রিল, ২০২১, ৮:৩৮ এএম | আপডেট : ১১:২৩ এএম, ২৭ এপ্রিল, ২০২১

বৈশ্বিক মহামারি করোনাভাইরাসের প্রভাবে চরম বিপর্যয়ে পরেছে পার্শ্ববর্তী দেশ ভারত। প্রতিনিয়ত হাজার হাজার লোক মারা যাচ্ছে এই মহামারীতে। আক্রান্ত হচ্ছে লক্ষ লক্ষ মানুষ। ইতোমধ্যেই বিশ্বে করোনাভাইরাস আক্রান্তে দ্বিতীয় এবং মৃত্যুতে তৃতীয় অবস্থানে উঠে এসেছে দেশটি। করোনার সংক্রমণ ঠেকাতে দেশটির অনেক রাজ্যের বড় বড় শহরে রাতে কার্ফু জারি করা হয়েছে। এর প্রভাবে পার্শ্ববর্তী দেশ হিসেবে বাংলাদেশের সাধারণ মানুষ উদ্বেগ ও উৎকণ্ঠায় ভুগছেন।

দেশে করোনা পুরোপুরি নিয়ন্ত্রণে না থাকলেও ভারতের চেয়ে এখনকার অবস্থান অনেক ভালো। ধীরে ধীরে পরিস্থিতি আরও ভালো দিকে যাচ্ছে। এ অবস্থায় যদি ভারত বাংলাদেশের সীমান্ত বন্ধ না হয়, তাহলে দেশের পরিস্থিতও ভারতের মত হতে পারে বলে আশঙ্কা করছেন বিশেষজ্ঞরা। তাই ভারতের সাথে সীমান্ত বন্ধে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে জোরালো দাবি জানাচ্ছে নেটিজেনরা।

সাংবাদিক ও গবেষক মেহেদী হাসান পলাশ তার ফেইসবুক ওয়ালে লিখেন, ‘করোনার ভারতীয় জাতের সংক্রমণের হাত থেকে দেশকে রক্ষা করতে অতি দ্রুত সীমান্ত সিল করা জরুরি।’

আশঙ্কা প্রকাশ করে হুমায়রা আফরোজ লিখেন, ‘সীমান্তরক্ষীদের সতর্ক থাকতে হবে এবং ভারত সীমান্ত যত দ্রুত সম্ভব বন্ধ করে দেয়া উচিত। তা না হলে দেশের পরিস্থিতি ব্যাখ্যাহীন বিভীষিকাময় পরিণত হবে।’

‘এই মুহূর্তে সকল সীমান্ত বন্ধ না করলে, আমাদের অবস্থা অনেক খারাপ হয়ে যাবে’ বলে মনে করছেন আহমেদ শেহজাদ।

এমডি নাসির লিখেন, ‘দেশের সুরক্ষা নিশ্চিত করতে অবশ্যই সাময়িকভাবে ভারতের সাথে সবকিছু বন্ধ রাখতে হবে।’

এম শাহিনুর রহমান লিখেন, ‘বাংলাদেশ এ রকম হলে ভারত কতো আগে সীমান্ত বন্ধ করে দিত।’



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: ভারত-বাংলাদেশ


আরও
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ