Inqilab Logo

ঢাকা শুক্রবার, ২৫ জুন ২০২১, ১১ আষাঢ় ১৪২৮, ১৩ যিলক্বদ ১৪৪২ হিজরী
শিরোনাম

দক্ষিণাঞ্চলে ঢিলেঢালাভাবেই পালিত হচ্ছে ‘কঠোর লকডাউন’

বরিশাল ব্যুরো | প্রকাশের সময় : ৩০ এপ্রিল, ২০২১, ৩:৪৫ পিএম

বরিশাল মহানগরী সহ দক্ষিণাঞ্চলে সম্পূর্ণ ঢিলেঢালাভাবে পালিত হচ্ছে সরকার ঘোষিত ‘কঠোর লকডাউন’। শুধুমাত্র আন্তঃজেলা গনপরিবহন বাদে সমগ্র দক্ষিণাঞ্চলের সবগুলো জেলাÑউপজেলাগুলোতে সব ধনের যানবাহন দাপিয়ে বেড়াচ্ছে। দোকানপাট খোলা রাখার সুবিধার সুবাদে কোথাও আর লকডাউনের দৃশ্যমান অস্তিত্ব খুজে পাওয়া যাচ্ছেনা। তবে দক্ষিনাঞ্চল করোনা সংক্রমন ও মৃত্যু কিন্তু থেমে নেই । চলতি মাসের ২৯ দিনেই দক্ষিনাঞ্চলে সরকারীভাবে করোনা সংক্রমনের সংখ্যা ৩ হাজার ১২০ হলেও মারা গেছেন ৫০ জন। আর গত ১৩ মাসে এ অঞ্চলে আক্রান্তের সংখ্যা প্রায় ১৫ হাজার। মারা গেছেন ২৬২ জন। চলতি মাস যুড়েই দক্ষিনাঞ্চলে মৃত্যুর মিছিল ক্রমশ দীর্ঘ থেকে দীর্ঘতর হয়েছে। দক্ষিণাঞ্চলে এখনো সনাক্তের হার ১৫.৩০%। আর এ অঞ্চলে সনাক্তের তুলনায় মৃত্যু হার এখন ১.৮০%।

কিন্তু এরপরেও স্বাস্থ্য বিধি মানা সহ নিজেকে নিরাপদে রাখার নুন্যতম কোন আগ্রহ নেই বেশীরভাগ মানুষের। রাস্তার মোড়ে আড্ডাবাজি সহ কিশোর সন্ত্রাশীদের বিবেকহীন নোংরামী থেকে শুরু করে উঠতি বয়সীদের সর্বক্ষেত্রে বেপরোয়া কর্মকান্ড সবার মাঝে বিরূপ মনোভাব সৃষ্টি করলেও করোনার মত মরন ব্যাধীও তাদের এতটকু দমাতে পারনি। বরিশাল মহানগরীর নবগ্রাম রোড-চৌমহনী লেকের পাড়, আমতলা মোড়ের স্বাধিনতা পার্ক, কির্তনখোলা পাড়ের মুক্তিযোদ্ধা পার্ক, ৩০ গোডাউনের নদীর পাড় এবং বঙ্গবন্ধু উদ্যানের মত স্পর্ষকাতর স্থানেও কিশোর গ্যাং সহ উঠতি মাস্তানদের আড্ডাবাজীর সাথে ইভটিজিংও চলছে অবাধে। এমনকি এসব পার্ক সহ চৌমহনী লেকের পাড়ে আড্ডাবাজী জমে ওঠে সন্ধার পরেই। চলে অনেক রাত অবধী।

আর করোনা মহামারি প্রতিরোধে সরকার ঘোষিত লকডাউনকে কোন ধরনের পাত্তাই দিচ্ছেনা এসব কিশোর গ্যাং সহ উঠতি মাস্তানের দল। এমনকি সাধারন মানুষের মধ্যেও সংখ্যাগরিষ্ঠ শ্রেণী লকডাউনকে করোনার চেয়েও বড় অভিশাপ মনে করছেন। পেশাজীবীদের মনভাবও অনেকটা একই। চিকিৎসা বিজ্ঞান যতই ‘করোনা প্রতিরোধে লাকডাউনের বিকল্প নেই’ বলে সুপারিশ করুক না কেন, তাদের ভাষায় ‘এ রোগ গরীবের কোন ক্ষতি করবে না’ বলে মনগড়া বক্তব্য অব্যাহত রাখছে।
এমনকি খোদ বরিশাল মহানগরীতে করোনা সংক্রমনে মৃত প্রায় ৬০ জনের প্রায় অর্ধেকই ছিল নি¤œবিত্ত বা নি¤œ-মধ্যবিত্ত শ্রেণীর মানুষ। কিন্তু তা পরেও মনগড়া কথা নিয়ে লকডাউনকে বুড়ো আঙুল দেখিয়ে এক শ্রেণীর মানুষের বিবেকহীন কর্মমান্ডে সমগ্র দক্ষিনাঞ্চলের জনজীবন। এ অঞ্চলের জনস্বাস্থ্যও ক্রমাগত ঝুকির কবলে পরছে বলে মন্তব্য করেছেন নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক স্বাস্থ্য বিভাগের একাধীক দায়িত্বশীল কর্মকর্তা ।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: লকডাউন


আরও
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ