Inqilab Logo

মঙ্গলবার, ০৩ আগস্ট ২০২১, ১৯ শ্রাবণ ১৪২৮, ২৩ যিলহজ ১৪৪২ হিজরী
শিরোনাম

ব্রাজিলে করোনায় মৃত্যু ছাড়াল ৪ লাখ, টিকাদানেও শ্লথগতি

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ১ মে, ২০২১, ১২:০৩ এএম

সংক্রমণের ঊর্ধ্বগতিতে লাগাম টানতে হিমশিম খাওয়া ব্রাজিলে করোনাভাইরাসে মৃত্যু ৪ লাখ ছাড়িয়ে গেছে। যুক্তরাষ্ট্রের পর এটাই চলতি মহামারীতে কোনো দেশের সর্বোচ্চ মৃত্যু। লাতিনের এই দেশটির টিকাদান কর্মসূচির গতিও প্রয়োজনের তুলনায় অনেক কম বলে এক প্রতিবেদনে জানিয়েছে বিবিসি। ব্রাজিলের কর্তৃপক্ষের দেওয়া হিসাব অনুযায়ী, কোভিড-১৯ দেশটিতে সর্বশেষ ২৪ ঘণ্টায় ৩ হাজার ১ জনের প্রাণ কেড়ে নিয়েছে।

এ নিয়ে লাতিনের দেশটিতে করোনাভাইরাসে মৃতের সংখ্যা সরকারি হিসাবেই ৪ লাখ ১ হাজার ১৮৬ জনে দাঁড়াল। এপ্রিলের দ্বিতীয় সপ্তাহে দেশটিতে দৈনিক মৃত্যু ‘সর্বোচ্চ শিখরে’ উঠেছিল। সেসময় একাধিক দিন করোনাভাইরাসে ৪ হাজারের বেশি মৃত্যু দেখা গেছে। সে তুলনায় এখন এ সংখ্যা খানিকটা কমে এসেছে।

দক্ষিণ আমেরিকার সবচেয়ে বড় এ দেশটিতে ১৪ দিনের গড় শনাক্ত ও মৃত্যুর সংখ্যা এখনও অনেক বেশি। যদিও তা আগের ১৪ দিনের গড়ের চেয়ে সামান্য কম বলে কর্তৃপক্ষের দেওয়া হিসাবে দেখা যাচ্ছে। ব্রাজিলের কংগ্রেস মহামারী মোকাবেলায় দেশটির সরকারের ভ‚মিকা খতিয়ে দেখতে তদন্তও শুরু করেছে বলে জানিয়েছে বিবিসি।

লকডাইন দেওয়া ও মাস্ক পরার ঘোর বিরোধী এবং কোভিড চিকিৎসায় কার্যকর বলে প্রমাণিত হয়নি এমন অপ্রচলিত ওষুধের পক্ষে থাকা প্রেসিডেন্ট জাইর বোলসোনারোকে ব্রাজিলের পরিস্থিতি নিয়ে দেশে-বিদেশে তুমুল সমালোচনার মুখোমুখি হতে হচ্ছে। সমর্থকদের মধ্যে তার জনপ্রিয়তায়ও বড় ধরনের ধস নেমেছে।

বিশেষজ্ঞরা বলছেন, ভাইরাসের তুলনামূলক বেশি সংক্রামক ধরনের বিস্তার এবং মহামারী মোকাবেলায় সমন্বিত কেন্দ্রীয় পদক্ষেপের ঘাটতির কারণে লাতিনের দেশটিতে শনাক্ত রোগী ও মৃত্যুর হারে লাগাম টানা যাচ্ছে না। পরিস্থিতি মোকাবেলায় দেশটির বিভিন্ন রাজ্য ও শহর নানান বিধিনিষেধ আরোপ করলে অনেক এলাকায় পরিস্থিতির উন্নতি দেখা যায়। পরে সেসব রাজ্য ও শহরও বিধিনিষেধ শিথিল করে নেয়।
দেশটির এক তৃতীয়াংশের বেশি রাজ্যে হাসপাতালের নিবিড় পরিচর্যা ইউনিটের ৯০ শতাংশ বা তার বেশি শয্যা এখনও গুরুতর কোভিড-১৯ রোগীর দখলে বলে জানিয়েছে স্বাস্থ্য ইনস্টিটিউট ফায়োক্রুজ।

“আক্রান্ত-মৃত্যু খানিকটা কমতে দেখা গেলেও সংক্রমণের বিস্তারকে এখনও নিয়ন্ত্রণে আনা যায়নি,” এক প্রতিবেদনে এমনটাই বলেছে তারা। ব্রাজিলে কোভিড-১৯ কেবল মার্চ-এপ্রিলের ৩৭ দিনেই শেষ এক লাখ মানুষের প্রাণ কেড়ে নিয়েছে। মহামারীর শুরু থেকে দেশটিতে এখন পর্যন্ত এত কম সময়ে এত মৃত্যু দেখা যায়নি। দক্ষিণ আমেরিকার এ দেশটিতে মোট শনাক্ত রোগীর সংখ্যাও এক কোটি ৪৫ লাখ পেরিয়ে গেছে।
বিবিসি জানিয়েছে, ডোজের ঘাটতির কারণে ব্রাজিলের বেশ কয়েকটি শহর এখন টিকাদান কর্মসূচি সাময়িকভাবে স্থগিত রেখেছে। ২১ কোটি ২০ লাখ জনসংখ্যার দেশটির মাত্র ১৩ শতাংশ টিকার অন্তত একটি ডোজ পেয়েছে বলে জানিয়েছে ওয়েবসাইট আওয়ার ওয়ার্ল্ড ইন ডাটা।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: ব্রাজিল


আরও
আরও পড়ুন