Inqilab Logo

মঙ্গলবার, ২৬ অক্টোবর ২০২১, ১০ কার্তিক ১৪২৮, ১৮ রবিউল আউয়াল সফর ১৪৪৩ হিজরী
শিরোনাম

পশ্চিমবঙ্গে মুসলিম ভোটেই মমতার বিপুল বিজয়

অনলাইন ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ৪ মে, ২০২১, ১১:৫৯ এএম

এবারের বিধানসভা নির্বাচনে রাজ্যে মুসলিম ভোটার ঐক্যবদ্ধ হয়ে মমতার দল তৃণমূলকে ভোট দিয়েছে। আর মূলত তাদের ভোটের মমতা এই ঐতিহাসিক বিজয়।

ভারতের পশ্চিমবঙ্গ রাজ্যের নির্বাচনে মুসলিম ভোটই মমতা ব্যানার্জির তৃণমূল কংগ্রেসের বিপুল বিজয়ে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করেছে। পশ্চিমবঙ্গ রাজ্য বিধানসভার আসনগুলোর মধ্যে ৬৩টি আসনে মুসলিমরা প্রাধান্যপূর্ণ অবস্থানে রয়েছে। এর মধ্যে ৬১টি আসনে এবার নির্বাচন হয়েছে। প্রার্থদের মৃত্যুর কারণে দুটি আসনে নির্বাচন স্থগিত করা হয়। এই ৬১টি আসনের মধ্যে মমতার তৃণমূল পেয়েছে ৫৮টি আসন, বিজেপি দুটি, সংযুক্ত মোর্চা একটি। মুসলিম মিরর পত্রিকায় এ পরিসংখ্যান প্রকাশিত হয়েছে।

মুসলিম প্রাধান্যপূর্ণ আসনগুলোর বেশির ভাগই চারটি জেলায়- মুর্শিদাবাদ, মালদা, উত্তর ২৪ পরগনা ও দক্ষিণ ২৪ পরগানা। মুর্শিদাবাদে রয়েছে ১৬টি আসন। বাকি তিনটি জেলার প্রত্যেকটিতে আছে ৯টি করে আসন।

মজার ব্যাপার হলো, মুসলিম প্রাধান্যপূর্ণ ৬১টি আসনের মধ্যে যে ৫৮টি তৃণমূল জিতেছে, তার মধ্যে ৩০টিতে তারা জয় পেয়েছে ৪০ হাজার বা তার চেয়ে বেশি ভোটে। আবার মালদার সুজাপুরের এস কে জিয়াউদ্দিন, ফারাক্কার মনিরুল ইসলাম, ভাঙ্গাবনগোলার ইদ্রিস আলীর মতো প্রার্থীরা ৫০ হাজারের বেশি ভোটে জয়ী হয়েছেন।

বিজেপি মুসলিম প্রাধান্যপূর্ণ আসনগুলোর মধ্যে মাত্র দুটিতে জয়ী হয়েছে। এ দুটির একটি হলো উত্তর দিনাজপুর, অপরটি হলো মুর্শিদাবাদে। আর সংযুক্ত মোর্চার সিদ্দিকির ইন্ডিয়ান সেক্যুলার ফ্রন্ট জিতেছে একটি আসনে।

পশ্চিমবঙ্গের নির্বাচনে মুসলিম ভোট ব্যাংক সবসময়ই গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে। মুসলিমদের ভোটের ওপর ভর করেই বাম ফ্রন্ট ৩৪ বছর রাজত্ব করে পশ্চিমবঙ্গ। পরে সিঙ্গুর ও নন্দীগ্রাম বিক্ষোভের জের ধরে মুসলিমরা বাম ফ্রন্ট ত্যাগ করে তৃণমূলে ভোট দিতে থাকে।

অন্যদিকে কলকাতাভিত্তিক আনন্দবাজার পত্রিকায় এক প্রতিবেদনে বলা হয়, বিজেপির বিরুদ্ধে লড়াইয়ে তৃণমূলনেত্রী মমতা ব্যানার্জির পাশেই থেকেছেন রাজ্যের সংখ্যালঘু ভোটাররা। রাজনৈতিক বিশ্লেষকদের মতে, ওই ভোটাররাই হয়ে উঠেছেন তৃণমূলের পর পর তিনবার সরকার গড়ার অন্যতম কারিগর। তবে যে যে কেন্দ্রে সংখ্যালঘু ভোটারদের উপস্থিতি কিছুটা কম, সেখানে তৃণমূলের থেকে অনেকটা পিছিয়ে থাকলেও, চমকপ্রদভাবে দ্বিতীয় স্থানে উঠে এসেছে বিজেপি।

নির্বাচন কমিশনের পরিসংখ্যান অনুযায়ী, সংখ্যালঘু প্রভাবিত কেন্দ্রগুলো নিয়ে একের পর এক চাঞ্চল্যকর তথ্য উঠে এসেছে। এক নজরে তা দেখে নেওয়া যাক।

রাজ্যের ২৯৪টি আসনের মধ্যে ৭৪টিতে সংখ্যালঘু ভোটার ৪০ শতাংশ বা তার বেশি। ওই সব কেন্দ্রের বেশির ভাগেই বিপুল জয় পেয়েছে তৃণমূল। জোড়াফুল শিবির ওই ৭৪টি আসনের মধ্যে ৬৯টি দখল করেছে। বিজেপি পেয়েছে মাত্র ২টি আসন। ভাঙড় আসনটি পেয়েছে ইন্ডিয়ান সেকুলার ফ্রন্ট (আইএসএফ)। অবশ্য মুর্শিদাবাদের জঙ্গিপুর এবং সামশেরগঞ্জ আসনে ভোট এখনও বাকি রয়েছে।

প্রদেশ কংগ্রেস সভাপতি অধীর চৌধুরীর গড় মুর্শিদাবাদে ধস নেমেছে হাতশিবিরের। সংখ্যালঘু ভোটের সমীকরণে ওই জেলার একাধিক কেন্দ্র দখল নিজের ঝুলিতে পুরেছে তৃণমূল। মালদহ ও উত্তর দিনাজপুরেও দেখা গিয়েছে একই চিত্র।

রাজ্যের মোট ৫৭টি বিধানসভা কেন্দ্রে সংখ্যালঘু ভোট ২৫ থেকে ৪০ শতাংশের মধ্যে। ওই ৫৭টি আসনের মধ্যে ৪৬টি পেয়েছে জোড়াফুল শিবির। আবার ওই রকম ১১টি আসন দখল করেছে বিজেপি-ও। রাজ্যের সার্বিক ফলে তৃণমূল এবং বিজেপি— এই দুই শক্তিধরের লড়াইয়ের মাঝে তৃতীয় পক্ষের কোনও উপস্থিতি লক্ষ্য করা যায়নি। সেই ধারা বজায় রয়েছে মালদহ, কোচবিহারসহ কয়েকটি জেলার এমন আসনগুলিতে এই ৫৭টি কেন্দ্রগুলোতে।



 

Show all comments
  • জেসিকা নূর ৪ মে, ২০২১, ১:০৮ পিএম says : 0
    এপার বাংলা থেকে দিদিকে অভিনন্দন
    Total Reply(0) Reply
  • M H Sohel ৪ মে, ২০২১, ১:০৮ পিএম says : 0
    মুসলিম ভোটের জন্য মমতা জয়ী হয়েছে
    Total Reply(0) Reply
  • Mou Nandan ৪ মে, ২০২১, ১:০৯ পিএম says : 0
    বিজেপি মুসলিম সম্প্রদায়ের বিশ্বাস অর্জন করতে পারেনি, তাই ওদের ভোট তৃনমূল পেয়েছে...
    Total Reply(1) Reply
    • masud rana ৪ মে, ২০২১, ২:১৩ পিএম says : 0
      মমতা দিদি একজন ভালো মানুষ এজন্য মুসলিম হিন্দু সবাই মিলে ভোট দিয়েছে। এটা মমতার জয় নয় এটা গোটা পশ্চিম বাংলার জয়।বাংলাদেশ যেটা করতে পারিনি ইন্ডিয়া সেটা করিয়ে দেখিয়ে দিয়েছে যে সত্যের জয় কিভাবে ছিনিয়ে নিতে হয়।
  • Hossain Ahmed ৪ মে, ২০২১, ১:১০ পিএম says : 0
    মুসলিম মানেই আব্বাস সিদ্দিকি নয়, হিন্দু মানেই বিজেপি নয়, পশ্চিমবঙ্গের শান্তিকামী হিন্দু-মুসলিম জনতা শান্তির পক্ষে রায় দিছে।
    Total Reply(0) Reply
  • Rohan Khan ৪ মে, ২০২১, ১:১৩ পিএম says : 0
    তার মানে এই নয় দিদি সংখ্যালঘুদেরই ভোটে ক্ষমতায় এসেছেন । জাতি বর্ণ নির্বিশেষে সকল বাঙালিই দিদির পাশে ছিল বিপুলসংখ্যক আসনে ক্ষমতায় এসেছেন।
    Total Reply(0) Reply
  • Sk Arman ৪ মে, ২০২১, ১:১৫ পিএম says : 0
    মুসলিমদের পক্ষ থেকে অভিনন্দন দিদিকে।উনি হাজার বছর বেচে থাক
    Total Reply(0) Reply
  • Nurul Hoque ৪ মে, ২০২১, ১:১৬ পিএম says : 0
    ধন্যবাদ প্রিয় মুসলিম ভোটারদের। যথার্থ ভোট দিয়েছেন। মমতাময়ী মা মমতা দিদি জিন্দাবাদ।
    Total Reply(0) Reply
  • ডাঃ মহাঃ সাইদুর রহমান ৪ মে, ২০২১, ২:২৬ পিএম says : 0
    ভারতের মুসলিমদের নিজেদের অস্তিত্ত্ব টিকিয়ে রাখার স্বার্থে সর্বাদা ঐক্যবদ্ধ থাকা অতীব জরুরী !
    Total Reply(0) Reply

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: পশ্চিম বঙ্গ


আরও
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ