Inqilab Logo

ঢাকা, সোমবার, ১৭ মে ২০২১, ০৩ জৈষ্ঠ্য ১৪২৮, ০৪ শাওয়াল ১৪৪২ হিজরী
শিরোনাম

সূচক-লেনদেন বেড়েছে

অর্থনৈতিক রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ৫ মে, ২০২১, ১২:০১ এএম

যে কয়টি প্রতিষ্ঠানের শেয়ার ও ইউনিটের দাম বেড়েছে, তার থেকে বেশি সংখ্যক প্রতিষ্ঠানের দরপতন হলেও সপ্তাহের তৃতীয় কার্যদিবসে গতকাল ঊর্ধ্বমুখী প্রবণতায় পার করছে দেশের শেয়ারবাজার। প্রধান শেয়ারবাজার ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জ (ডিএসই) এবং অপর শেয়ারবাজার চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জে (সিএসই) সবকটি মূল্য সূচক বেড়েছে। একই সঙ্গে ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জে বেড়েছে লেনদেনের পরিমাণ।
এদিন মূল্য সূচক ও লেনদেন বাড়ানো দুই ক্ষেত্রেই গুরুত্বপূর্ণ ভ‚মিকা রেখেছে বীমা খাত। অন্য খাতের বেশিরভাগ প্রতিষ্ঠান দরপতনের তালিকায় নাম লেখালেও সম্পূর্ণ বিপরীত চিত্র ছিল বীমা খাতের কোম্পানিগুলোর। দাম বাড়ার ক্ষেত্রে বড় ধরনের দাপট দেখিয়েছে বীমা কোম্পানিগুলো।
এতে দিনের লেনদেন শেষে তালিকাভুক্ত ৫০টি বীমা কোম্পানির মধ্যে ৪৩টিই দাম বাড়ার তালিকায় নাম লিখিয়েছে। বিপরীতে দাম কমেছে ৪টির। এমনকি ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জে সর্বোচ্চ দাম দাম বাড়া ১০টি প্রতিষ্ঠানের ৭টিই দখল করেছে বীমা কোম্পানি।

দাম বাড়ার তালিকায় দাপট দেখানোর পাশাপাশি লেনদেনের শীর্ষ তালিকাতেও আধিপত্য দেখিয়েছে বীমা খাত। ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জে সর্বোচ্চ লেনদেনের তালিকায় থাকা ২০টি প্রতিষ্ঠানের মধ্যে ১১টিই দখল করেছে বীমা কোম্পানি।

লেনদেন ও দাম বাড়ার তালিকায় বীমা কোম্পানিগুলোর দাপট দেখা যায় লেনদেনের শুরু থেকেই। অবশ্য লেনদেনের শুরুতে বীমা কোম্পানির পাশাপাশি অন্যান্য খাতের বেশিরভাগ প্রতিষ্ঠানের শেয়ার ও ইউনিটের দাম বাড়ে।

এতে ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জে লেনদেন শুরু হতেই প্রধান মূল্য সূচক ডিএসইএক্স ২০ পয়েন্টের ওপরে বেড়ে যায়। কিন্তু লেনদেনের প্রথম আধাঘণ্টা পার হতেই বেশকিছু প্রতিষ্ঠানের দরপতন হয়। এতে এক পর্যায়ে সূচক ঋণাত্মক হয়ে পড়ে। তবে দাম বাড়ার ধারা ধরে রাখে বীমা খাত। যার ইতিবাচক প্রভাব পড়ে অন্য খাতের ওপরেও। এতে পতন কাটিয়ে কিছু প্রতিষ্ঠান দাম বাড়ার তালিকায় স্থান করে নেয়।
এরপরও দিনের লেনদেন শেষে ডিএসইতে দাম বাড়ার তালিকায় নাম লিখিয়েছে ১৪১টি প্রতিষ্ঠানের শেয়ার ও ইউনিট। বিপরীতে দাম কমেছে ১৪৭টির এবং ৬৭টির দাম অপরিবর্তিত রয়েছে। অবশ্য বীমার ওপর ভর করে দিনের লেনদেন শেষে ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জের প্রধান মূল্য সূচক ডিএসইএক্স আগের দিনের তুলনায় ২৪ পয়েন্ট বেড়ে ৫ হাজার ৫৩৫ পয়েন্টে উঠে এসেছে।

প্রধান সূচকের পাশাপাশি বেড়েছে অপর দুই সূচক। এর মধ্যে ডিএসই-৩০ আগের দিনের তুলনায় সূচকটি ২ পয়েন্ট বেড়ে ২ হাজার ১১৮ পয়েন্টে অবস্থান করছে। আর ডিএসইর শরিয়াহ্ সূচক ১ পয়েন্ট বেড়ে ১ হাজার ২৪৯ পয়েন্টে দাঁড়িয়েছে। মূল্য সূচকের উত্থানের পাশাপাশি ডিএসইতে বেড়েছে লেনদেনের পরিমাণ। দিনভর বাজারটিতে লেনদেন হয়েছে ১ হাজার ৩৫৬ কোটি ১০ লাখ টাকা। আগের দিন লেনদেন হয় ১ হাজার ১৫৯ কোটি ৮৩ লাখ টাকা। সে হিসাবে লেনেদেন বেড়েছ ১৯৬ কোটি ২৭ লাখ টাকা। টাকার অঙ্কে ডিএসইতে সব থেকে বেশি লেনদেন হয়েছে বেক্সিমকোর শেয়ার। কোম্পানিটির ১৫৮ কোটি ৭৯ লাখ টাকার শেয়ার লেনদেন হয়েছে। দ্বিতীয় স্থানে থাকা লাফার্জহোলসিম বাংলাদেশের ৫২ কোটি ২৬ লাখ টাকার লেনদেন হয়েছে। ৪৯ কোটি ২৪ লাখ টাকার শেয়ার লেনদেনের মাধ্যমে তৃতীয় স্থানে রয়েছে লংকাবাংলা ফাইন্যান্স। এছাড়া ডিএসইতে লেনদেনের দিক থেকে শীর্ষ ১০ প্রতিষ্ঠানের তালিকায় রয়েছে- বেক্সিমকো ফার্মা, এশিয়া প্যাসিফিক জেনারেল ইন্স্যুরেন্স, ন্যাশনাল ফিড, রবি, ম্যাকসন স্পিনিং, সিটি জেনারেল ইন্স্যুরেন্স এবং বাংলাদেশ ফাইন্যান্স।

অপর শেয়ারবাজার চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জের সার্বিক মূল্য সূচক সিএএসপিআই বেড়েছে ৩৭ পয়েন্ট। বাজারটিতে লেনদেন হয়েছে ৩৭ কোটি ১৭ লাখ টাকা। লেনদেনে অংশ নেয়া ২৬১টি প্রতিষ্ঠানের মধ্যে ১১২টির দাম বেড়েছে। বিপরীতে দাম কমেছে ১০৭টির এবং ৪২টির দাম অপরিবর্তিত রয়েছে।

 

 



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: লেনদেন

৩০ এপ্রিল, ২০২১
৬ এপ্রিল, ২০২১
৯ সেপ্টেম্বর, ২০২০

আরও
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ