Inqilab Logo

ঢাকা, বুধবার, ২৩ জুন ২০২১, ০৯ আষাঢ় ১৪২৮, ১১ যিলক্বদ ১৪৪২ হিজরী

টুর্নামেন্ট পেছাতে এএফসিকে মালদ্বীপের অনুরোধ!

স্পোর্টস রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ৭ মে, ২০২১, ৭:১২ পিএম

এএফসি কাপের ‘ডি’ গ্রুপের খেলা পিছিয়ে দেয়ার জন্য এশিয়ান ফুটবল কনফেডারেশনকে (এএফসি) অনুরোধ করেছে ফুটবল অ্যাসোসিয়েশন অব মালদ্বীপ (এফএএম)। কারণ ভারতের মতো মালদ্বীপেও দিন দিন বাড়ছে করোনাভাইরাসের সংক্রমণ। তাই ওই দেশের সরকার দিনে সব কার্যক্রম চালু রাখলেও সম্প্রতি রাতের বেলা কারফিউ জারি করেছে। অন্যদিকে গত পরশু মালদ্বীপের সাবেক রাষ্ট্রপতি মোহাম্মদ নাশিদ এক বিস্ফোরণে আহত হয়েছেন। ঘটনাটি নিয়ে বর্তমানে অস্থিরতা বিরাজ করছে গোটা মালদ্বীপ জুড়ে। সবকিছু মিলিয়ে এএফসি কাপের মতো বড় টুর্নামেন্ট আয়োজনের পরিস্থিতি এখন নেই মালদ্বীপে। তাই টুর্নামেন্টের খেলা পিছিয়ে এএফসিকে অনুরোধ জানিয়েছে এফএএম। ১৪ থেকে ২০ মে পর্যন্ত মালেতে অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা এএফসি কাপের চূড়ান্ত পর্ব। যেখানে খেলছে বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগের (বিপিএল) চ্যাম্পিয়ন বসুন্ধরা কিংস। করোনার কারণে এমএফএফ টুর্নামেন্ট পিছিয়ে দিতে বললেও তাদের এই আবেদনে সাড়া দেয়নি এএফসি। ফলে নির্ধারিত সময়েই মাঠে গড়াবে এএফসি কাপের খেলাগুলো। তাই হাফ ছেড়ে বেঁচেছে বসুন্ধরা কিংস।

করোনা মহামারির কারণে এএফসি কাপে গতবার মাত্র একটি ম্যাচ খেলেছিল বসুন্ধরা কিংস। পরে বাতিলই হয়ে যায় ওই আসরটি। এই মৌসুমে আর সেই ভাগ্যবরণ করতে হচ্ছে না তাদের। এশিয়ান ক্লাব ফুটবলের দ্বিতীয় সেরা আসরের ‘ডি’ গ্রুপের ম্যাচ সময়মতোই মাঠে গড়াচ্ছে। এশিয়ান ফুটবল কনফেডারেশনের বরাত দিয়ে এ তথ্য জানিয়েছে ফুটবল বিষয়ক ওয়েবসাইট ‘গোল ডটকম’।

ভারতের লকডাউন টুর্নামেন্টে সুবিধাজনক অবস্থান তৈরি করেছে বসুন্ধরার জন্য। কারণ প্রধান দুই বিদেশির অনুপস্থিতি ও অনুশীলন ঘাটতি নিয়েই মালদ্বীপ যাচ্ছে প্রতিদ্বন্দ্বী মোহনবাগান । ভারতে আসতে না পারা দলটির ফিজিয়ান স্ট্রাইকার রয় কৃষ্ণ ও অস্ট্রেলিয়ান স্ট্রাইকার ডেভিড উইলিয়ামসকে ছাড়াই মালদ্বীপে যাবে তারা। এমনটাই জানিয়েছে গোল ডটকম। তাদের সেরা একাদশের গোলরক্ষক অরিন্দম ভট্টাচার্যের মা করোনাভাইরাসে আক্রান্ত। তাই অরিন্দম এএফসি কাপে দলের সঙ্গী হবেন কি না তা নিয়েও রয়েছে অনিশ্চয়তা। গত মার্চের মাঝামাঝিতে শেষবার মাঠে নেমেছিল মোহনবাগান। এরপর থেকে মাঠের বাইরে তারা। গত ২৬ মার্চ থেকে অনুশীলন শুরুর কথা থাকলেও করোনা মহামারির কারণে তা স্থগিত হয়ে যায়। দলের অন্য দুই বিদেশি স্প্যানিশ ডিফেন্ডার তিরি ও আইরিশ মিডফিল্ডার কার্ল ম্যাকহিউকে পাওয়া নিয়েও রয়েছে অনিশ্চয়তা। তবে কোচ অ্যান্থনিও হাবাস স্পেন থেকে মালদ্বীপে দলের সঙ্গে যোগ দেবেন। এসব বিবেচনায় এএফসিকে ‘ডি’ গ্রæপের ম্যাচগুলো স্থগিতের আবেদন জানিয়েছিল মোহনবাগানও। কিন্তু তাতে লাভ হয়নি। ফলে ভাঙাচোরা দল এবং অনুশীলনের ঘাটতি নিয়েই ১০ মে মালদ্বীপে পা রাখার কথা মোহনবাগানের।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: ফুটবল


আরও
আরও পড়ুন