Inqilab Logo

ঢাকা শুক্রবার, ২৫ জুন ২০২১, ১১ আষাঢ় ১৪২৮, ১৩ যিলক্বদ ১৪৪২ হিজরী

করোনায়ও বেড়েছে রাজস্ব আদায়

৭.৩১ শতাংশ প্রবৃদ্ধি

অর্থনৈতিক রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ৮ মে, ২০২১, ১২:০০ এএম

দেশে করোনা মহামারির মধ্যেও আগের অর্থবছরের তুলনায় রাজস্ব আদায় বেড়েছে। চলতি অর্থবছরের নয় মাসে সাড়ে ১২ হাজার কোটি টাকা বেশি রাজস্ব আদায় করেছে জাতীয় রাজস্ব বোর্ড (এনবিআর)। নয় মাসে রাজস্ব আদায় হয়েছে এক লাখ ৮০ হাজার কোটি টাকা। গত বছর একই সময়ে আদায় হয়েছিল এক লাখ ৬৬ হাজার কোটি টাকা। রাজস্ব আহরণে প্রবৃদ্ধি হয়েছে সাত দশমিক ৩১ শতাংশ। এনবিআরের চলতি অর্থবছরের নয় মাসের রাজস্ব সংগ্রহের সর্বশেষ তথ্যে এ চিত্র উঠে এসেছে।

এনবিআর জানায়, রাজস্ব সংগ্রহ বাড়াতে সরকার বিভিন্ন উদ্যোগ নিয়েছে। এরমধ্যে ভ্যাটের রিটার্ন অনলাইনে দাখিল করা, স্থানীয় পর্যায়ে ভ্যাট সংগ্রহ বাড়ানো ও আয়কর বাড়ানো অন্যতম। এছাড়া করোনা পরিস্থিতি মোকাবিলা করে গত মার্চ পর্যন্ত ব্যবসা-বাণিজ্যসহ অর্থনৈতিক কর্মকান্ড ইতিবাচক অবস্থায় ছিল। স্থানীয় বাজারে চাহিদাও বেড়েছিল, যে কারণে মোট রাজস্ব সংগ্রহ বেড়েছে।

এনবিআরের তথ্য অনুযায়ী, জুলাই থেকে মার্চ পর্যন্ত আমদানি-রপ্তানি পর্যায়ে নয় মাসে ৫৩ হাজার ৯৮৯ কোটি টাকা, স্থানীয় পর্যায়ে মূসক ও সম্পূরক শুল্ক থেকে ৬৮ হাজার ৪৭০ কোটি টাকা এবং আয়কর ও ভ্রমণ কর থেকে ৫২ হাজার ৮৪৯ কোটি টাকা রাজস্ব আদায় হয়েছে। ২০১৯-২০ অর্থবছরের প্রথম নয় মাসে এনবিআর এক লাখ ৬৬ হাজার ১১৭ কোটি টাকা রাজস্ব সংগ্রহ করেছিল। সে হিসেবে চলতি অর্থবছরে এ পর্যন্ত রাজস্ব আহরণে সাত দশমিক ৩১ শতাংশ প্রবৃদ্ধি হয়েছে।

সংশ্লিষ্টরা জানান, আমদানি পর্যায়ে রাজস্ব সংগ্রহ বেড়ে যাওয়ায় মোট রাজস্ব সংগ্রহে ইতিবাচক প্রবৃদ্ধি বেড়েছে। চলতি অর্থবছরের প্রথম নয় মাসে এক লাখ ৭৮ হাজার ২৬৩ কোটি টাকা রাজস্ব সংগ্রহ করে এনবিআর। যা পুরো অর্থবছরের লক্ষ্যমাত্রার ৫৪ শতাংশ এবং আগের অর্থবছরের একই সময়ের চেয়ে সাত দশমিক ৩১ শতাংশ বেশি। দেখা গেছে, রাজস্ব আয়ের তিনটি খাতেই আগের বছরের তুলনায় বেশি আদায় হয়েছে। তবে চলতি অর্থবছরের লক্ষ্যমাত্রা থেকে অনেক পিছিয়ে রয়েছে প্রতিষ্ঠানটি। চলতি অর্থবছরে এনবিআরকে তিন লাখ ৩০ হাজার কোটি টাকা রাজস্ব সংগ্রহের লক্ষ্যমাত্রা অর্জনের শর্ত দিয়েছে সরকার। এতে গড়ে প্রতি মাসে সাড়ে ২৭ হাজার কোটি টাকা করে রাজস্ব সংগ্রহের কথা। তবে বিশেষজ্ঞরা বলছেন, রাজস্ব সংগ্রহ টাকার অংকে বেশি হলেও প্রকৃত অর্থে বেশি হচ্ছে না। কারণ মূল্যস্ফীতি ও জাতীয় অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধি যোগ করলে রাজস্ব সংগ্রহে ১৫ শতাংশ প্রবৃদ্ধি হওয়া উচিত। সে তুলনায় অর্ধেক প্রবৃদ্ধি হয়েছে।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: রাজস্ব আদায়


আরও
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ