Inqilab Logo

ঢাকা, শুক্রবার, ১৮ জুন ২০২১, ০৪ আষাঢ় ১৪২৮, ০৬ যিলক্বদ ১৪৪২ হিজরী

একদিনে ৪ হাজার মৃত্যুর রেকর্ডও ছাড়িয়ে গেল ভারত

অনলাইন ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ৮ মে, ২০২১, ১০:১৩ এএম

একদিনে চার হাজার মৃত্যুর ভয়াবহ মাইলফলকও ছুঁয়ে ফেলল ভারত। গত শুক্রবার দেশটিতে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে অন্তত ৪ হাজার ১৮৭ জনের মৃত্যু হয়েছে। সেখানে এখন পর্যন্ত একদিনে এটাই সর্বোচ্চ মৃত্যুর রেকর্ড। ওয়ার্ল্ডোমিটারের হিসাব অনুসারে, করোনায় একদিনে চার হাজারের বেশি মৃত্যু দেখা তৃতীয় দেশ ভারত। এর আগে কেবল যুক্তরাষ্ট্র ও ব্রাজিলে একদিনে এত বেশি মানুষ প্রাণ হারিয়েছেন।

ওয়েবসাইটটির হিসাবে, গত ১২ জানুয়ারি যুক্তরাষ্ট্রে করোনায় আক্রান্ত হয়ে ৪ হাজার ৪৯০ জন মারা গেছেন। বিশ্বে এটিই এখন পর্যন্ত একদিনে সর্বোচ্চ মৃত্যুর রেকর্ড। ভারতে মাইলফলক শুধু প্রাণহানিতেই নয়, হয়েছে আক্রান্তের হিসাবেও। শুক্রবার টানা তিনদিন চার লাখের বেশি নতুন রোগী শনাক্ত হয়েছে সেখানে।

টাইমস অব ইন্ডিয়ার করোনা ডেটাবেজ অনুসারে, শুক্রবার ভারতে নতুন করে ৪ লাখ ১ হাজার ৫২২ জন করোনা পজিটিভ শনাক্ত হয়েছেন।

সংবাদমাধ্যমটি জানিয়েছে, করোনা মহামারি শুরুর দিকে এক বছরে ভারতে যত মানুষ আক্রান্ত না হয়েছে, তারচেয়েও বেশি আক্রান্ত হয়েছে দ্বিতীয় ঢেউয়ের ৮২ দিনে। গত ১৪ ফেব্রুয়ারি থেকে দেশটিতে ১ কোটি ৯ লাখ ৬৮ হাজার ৩৯ জন করোনা পজিটিভ শনাক্ত হয়েছেন, যেখানে গত বছরের ৩০ জানুয়ারি থেকে এ বছরের ১৩ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত আক্রান্ত হয়েছেন ১ কোটি ৯ লাখ ১৬ হাজার ৪৮১ জন।

যদিও মহামারির দ্বিতীয় ঢেউ শুরুর নির্দিষ্ট কোনো দিন চিহ্নিত করা যায় না, তবে ভারতে গত ১৪ ফেব্রুয়ারি থেকে সাপ্তাহিক আক্রান্তের হার ক্রমাগত বাড়তে থাকায় ওই দিন থেকেই দ্বিতীয় ঢেউয়ের সূচনা বলে ধরা হচ্ছে। দেশটিতে মহামারির দ্বিতীয় ঢেউয়ে ৮২ হাজারের বেশি মানুষ করোনায় মারা গেছেন, যা এ পর্যন্ত মোট মৃত্যুর অর্ধেকেরও বেশি। সরকারি হিসাবে সেখানে এখন পর্যন্ত করোনায় ২ লাখ ৩৮ হাজার ১৯৭ জন মারা গেছেন।

তবে ভারতজুড়ে করোনায় মৃত্যুর প্রকৃত সংখ্যা এরচেয়েও অনেক বেশি বলে মত বিশেষজ্ঞদের। কারণ, সেখানে কেবল হাসপাতালে মারা যাওয়া ব্যক্তিদেরই গণনা করা হচ্ছে। বাড়িতে মারা যাওয়া ব্যক্তিদের কোনো হিসাব রাখা হয়নি।



 

Show all comments
  • ম নাছিরউদ্দীন শাহ ৮ মে, ২০২১, ১২:২৬ পিএম says : 0
    ভয়ংকর পরিস্থিতি কিয়ামতের যন্ত্রণা লাশ আর লাশ আগুনের লেলিহান শিখা শ্মশানে ভারতজুড়ে আজাব গজব ভাইরাসের রেকর্ড আক্রান্ত রেকর্ড মৃত্যুর পরও আমাদের শিক্ষা হচ্ছে না। সবকিছুই খোলা স্বাভাবিক তামাশার লকডাউন চলছে। চলছে মানুষের মিলনমেলা হাটে বাজারে মার্কেটে সব জায়গাই। এই সবের জন্যে কাকে দায়ী করবেন। জীবিকার জন্যে মানুষের ব‍্যবসা প্রয়োজন দরিদ্রতম জনগোষ্ঠীর কাজ প্রয়োজন। যাদের দিনের ইনকামের উপরে সংসারজীবন তাদের নিকট ভাইরাস আক্রান্ত মৃত্যুর ভয় কিছুই না। ভয়ংকর করোনা ভাইরাসের পরিস্থিতির মধ্যে পড়তে যাচ্ছেন বাংলাদেশ?? আমাদের শৃংখলা ভেঙ্গে পড়েছে সরকারের আদেশ নিষেধাজ্ঞা মানছেনা মানুষ। ডাক্তার আইন শৃংখলা বাহিনীর হাজারো আক্রান্ত শহীদের পরও শৃংখলা নেই রাষ্ট্রের গুরুত্বপূর্ণ মানুষের মৃত্যুর পরও শৃংখলা নেই। হাজারো মানুষের মৃত্যুর পর শৃংখলা নেই। কিয়ামতের মত ভয়ংকর লাশের মিছিলের আগমন না হওয়া পযর্ন্ত শিক্ষা হবে মনে হচ্ছে না। উচিৎ ছিলো পাশ্ববর্তী ভারতীয়দের মৃত্যু স্বাস্থ্য ব‍্যবস্থা ভেঙ্গে পড়া লাশের পাহাড় থেকে শিক্ষা নিয়ে দেশের সবকিছুই জরুরী অবস্থার মত কঠিন কঠোরভাবে বন্ধ রাখা। কিছুই হলো না। ক্ষুদ্র ভাইরাসের মালিক বাংলাদেশের মানুষ কে যদি হেফাজতের মাঝে রাখেন থাকবেন। আমাদের আর কোন পথ খোলা নেই। আল্লাহ একমাত্র আমাদের রক্ষা করবেন। পরিস্থিতি জটিল ভাইরাস বাতাসে বাংলাদেশের তিন দিকে চিতার আগুনের লেলিহান শিখা অবিরাম জ্বলছে। আল্লাহ্ ভারতীয়দের ক্ষমা করুন দয়া করুন। আমাদের দেশের উপর রহম করুন।আমিন।
    Total Reply(0) Reply
  • Habibur Rahman ৮ মে, ২০২১, ১:০৫ পিএম says : 0
    হে আল্লাহ আপনি মহান, আপনি রহমানের রাহিম, আপনিই আমাদের অভিভাবক আপনি সারা পৃথিবীর মানবজাতিকে করোনা নামক মহামারী থেকে রক্ষা করুন আমিন।
    Total Reply(0) Reply
  • Md Al Amin ৮ মে, ২০২১, ১:০৩ পিএম says : 0
    লা ইলাহা ইল্লাল্লাহু মুহাম্মাদুর রাসুলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম, আল্লাহ তুমি আমাদের ঈমানী শক্তি বাড়িয়ে দাও, করোনা নামের এই গজব থেকে সবাইকে রক্ষা করো প্রভু।
    Total Reply(0) Reply
  • Mozammel Hasan ৮ মে, ২০২১, ১:০০ পিএম says : 0
    হে আল্লাহ আমাদেরকে হেফাজত করুন।আমিন
    Total Reply(0) Reply
  • মোঃ ফরিদ আনসারি ৮ মে, ২০২১, ১:০২ পিএম says : 0
    আল্লাহ ছাড়া আর কোন উপায় নাই
    Total Reply(0) Reply
  • Nahid Parvez ৮ মে, ২০২১, ১:০২ পিএম says : 0
    আল্লাহ ছাড় দেন কিন্তু ছেড়ে দেননা
    Total Reply(0) Reply

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: রেকর্ড


আরও
আরও পড়ুন