Inqilab Logo

ঢাকা, সোমবার, ১৪ জুন ২০২১, ৩১ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৮, ০২ যিলক্বদ ১৪৪২ হিজরী

বর্বরতার পক্ষে নেতানিয়াহু

মসজিদে ঢুকে মুসল্লিদের ওপর ইহুদিদের হামলা

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ১১ মে, ২০২১, ১২:০২ এএম

পবিত্র রমজানের ২৮ রোজায় অধিকৃত জেরুসালেমের পবিত্র স্থাপনা আল-আকসা মসজিদে হামলা চালিয়েছে দখলবাজ খুনী ইসরাইলের ইহুদি সেনারা। তারা আল-আকসা মসজিদের ভেতরে ফিলিস্তিনি মুসল্লিদের ওপর রাবার বুলেট, টিয়ার গ্যাস এবং সাউন্ড গ্রেনেড নিক্ষেপ করে নির্দয়ভাবে হামলা চালায়। সোমবার শতাধিত ইসরাইলি সেনা আল-আকসা মসজিদের ভেতরে হামলা চালায়। এ সময় ইসরাইলি হেলিকপ্টারগুলো আল-আকসা মসজিদের ওপর দিয়ে উড়ে যেতে দেখা যায়। এদিকে ফিলিস্তিনিদের রেড ক্রিসেন্ট সোসাইটির সদস্যরা জানান, চিকিৎসাকর্মীদের সহিংসতার জায়গায় পৌঁছতে বাধা দিয়েছে ইসরাইলি বাহিনী। ফিলিস্তিনের রেড ক্রিসেন্ট সোসাইটি জানিয়েছে, এই হামলায় শতাধিক ফিলিস্তিনি আহত হয়েছেন। এ ঘটনায় কমপক্ষে ৫০ জন হাসপাতালে ভর্তি রয়েছেন। এ ছাড়া আল-আকসা মসজিদ প্রাঙ্গণে ইসরাইলি অভিযানে ছয়জন সাংবাদিকও আহত হয়েছেন বলে জানিয়েছেন তারা। এ ছাড়া রোববারও লাইলাতুল কদরের রাতে আল-আকসা মসজিদের কাছে কয়েক হাজার মুসল্লি যখন নামাজ আদায় করছিলেন, তখন ফিলিস্তিনি বিক্ষোভকারীদের ওপর ঝাঁপিয়ে পড়ে ইসরাইলি পুলিশ। সেই সময় সংঘর্ষে শিশুসহ ৮০ জন আহত হয় বলে জানিয়েছে রেড ক্রিসেন্ট সোসাইটি। খবরে বলা হয়, জেরুসালেমে একের পর এক রাত পর্যন্ত ইসরাইলি বাহিনীর সন্ত্রাসী হামলা অব্যাহত রয়েছে। ইসরাইলের প্রধানমন্ত্রী বেনিয়ামিন নেতানিয়াহু জেরুসালেমে দুই রাতের সংঘর্ষের পরে ফিলিস্তিনি বিক্ষোভকারীদের বিরুদ্ধে পুলিশি বর্বর পদক্ষেপের পক্ষে অবস্থান নিয়েছেন। তিনি বলেন, ইসরাইলিরা উত্তেজিত সহিংসতা নিয়ে ক্রমবর্ধমান উদ্বেগের মধ্যে। এই শহরে কাউকে অশান্তি করতে দেবে না। যদিও শনিবার যুক্তরাষ্ট্র, ইইউ, রাশিয়া এবং জাতিসংঘের সবাই পুলিশের সহিংসতা নিয়ে উদ্বেগ প্রকাশ করেছে। ফিলিস্তিনি পরিবারগুলোকে হুমকির মুখে জোর করে উচ্ছেদ করার কারণে এক মাস ধরে এই সংঘর্ষ শুরু হয়। পূর্ব জেরুসালেমের শেখ জারাহ জেলায় ইহুদি বসতি স্থাপনকারী সংস্থার পৃষ্ঠপোষকতার বিরুদ্ধে ৭০ জনেরও বেশি লোকের পরিবারের আবেদনের প্রেক্ষিতে গঠিত ইসরাইলি সুপ্রিম কোর্টে প্রত্যাশিত শুনানির প্রাক্কালে এটি এই ঘটনা ঘটে। তবে রোববার ইসরাইলের অ্যাটর্নি-জেনারেলের অনুরোধের পরে শুনানি বাতিল করা হয়েছে। আগামী ৩০ দিনের মধ্যে একটি নতুন তারিখ নির্ধারণ করা হবে। এদিকে, ক্রমবর্ধমান উদ্বেগ রয়েছে যে বার্ষিক জেরুসালেম দিবস পতাকা মার্চ - যা পূর্ববর্তী জেরুসালেমের ওল্ড সিটির মুসলিম কোয়ার্টারে হাজার হাজার জিয়নবাদী যুবকদের পদযাত্রা দেখায় - আরও সহিংসতার কারণ হতে পারে। প্রাক্তন উচ্চপদস্থ প্রতিরক্ষা কর্মকর্তা আমোস গিলাদ সেনা রেডিওকে সতর্ক করে এই পদযাত্রাকে বাতিল বা স্থগিত করার আহবান জানিয়েছিলেন: গুঁড়ো ক্যাগ জ্বলছে এবং যে কোনও সময় বিস্ফোরিত হতে পারে। জেরুসালেমের আল-আকসা মসজিদ কমপ্লেক্সকে ঘিরে ঘন ঘন দুন্দফা সংঘর্ষ হয়। এটি ইসলামের অন্যতম পবিত্র স্থান, তবে এটি ইহুদি ধর্মেরও পবিত্র স্থান হিসাবে পরিচিত। শনিবার সহিংসতা শুরু হয়েছিল মুসলিম রমজান মাসের সবচেয়ে পবিত্র রাত লাইলাতুল কদরে। যেখানে মসজিদ প্রাঙ্গণে কয়েক হাজার মুছল্লি উপস্থিত ছিলেন। এদিকে আমেরিকা, ইইউ, রাশিয়া এবং জাতিসংঘ- মধ্যপ্রাচ্যের সবাইকে পূর্ব জেরুসালেমে যা ঘটে, তা নিয়ে উদ্বেগ প্রকাশ করে বলেছে, সহিংসতা কেবল সহিংসতাই সৃষ্টি করে। এই সংঘর্ষগুলো বন্ধ করুন। পোপ ফ্রান্সিস সেন্ট পিটার স্কয়ারের জনতাকে জেরুসালেমের বহুসংস্কৃতীয় পরিচয়ের জন্য সকল পক্ষকে সম্মান করার আহবান জানান। পূর্ব জেরুসালেমের মুসলিম পবিত্র স্থানগুলো রক্ষাকারী জর্দান, আশেপাশের জর্ডান মসজিদ এবং এর আশেপাশে ইসরাইলি পুলিশ বাহিনীর পদক্ষেপকে বর্বর বলে নিন্দা করেছে। তুরস্ক, মিসর, তিউনিসিয়া, পাকিস্তান এবং কাতারের পাশাপাশি বাহরাইন এবং সংযুক্ত আরব আমিরাত, যে দেশটি গত বছর ইসরাইলের সাথে সম্পর্ক স্বাভাবিক করেছিল, তারাও ইসরাইলের তীব্র সমালোচনা করেছে। বিবিসি।



 

Show all comments
  • Iftekhar Hossain ১১ মে, ২০২১, ৫:১৫ এএম says : 0
    Some country must stand against this barbarism
    Total Reply(1) Reply
    • ১১ মে, ২০২১, ১:০৯ পিএম says : 0
  • Iftekhar Hossain ১১ মে, ২০২১, ৫:১৫ এএম says : 0
    Some country must stand against this barbarism
    Total Reply(0) Reply
  • Sukkurali ১১ মে, ২০২১, ৫:১৫ এএম says : 0
    আল্লাহ তুমি এই জালিমদের হাত থেকে মুসলিম ভাইদের রক্ষা করো।
    Total Reply(1) Reply
    • nobe ১১ মে, ২০২১, ১:০৭ পিএম says : 0
  • Sheikh Mohiuddin ১১ মে, ২০২১, ৫:২১ এএম says : 0
    The so called civilised nation and UNO just watching and encouraging Israel to carry out it's crime against humanity because they are Muslims. Muslim has no human rights. If Muslim fight back for its existence they are called terrorist by so called Civilised world.
    Total Reply(0) Reply
  • Mohammad Saif ১১ মে, ২০২১, ৫:১৮ এএম says : 0
    O Allah Please Help Us. One day we will take revenge. O Allah unite all our Muslim Ummah so that we can take revenge for each of our Muslim brothers and sisters and our land. "Summa Ameen"
    Total Reply(0) Reply
  • MD Kawsar Jabed ১১ মে, ২০২১, ৫:২০ এএম says : 0
    আজকে যদি এই ঘটনার সামান্য কিছুও অন্য ধর্মের মানুষদের সাথে হতো তাহলে সাড়া বিশ্ব নাড়া খেয়ে উঠতো। প্রায় সকল মুসলিম নেতারাও দুঃখের সাগরে ভাষতো।
    Total Reply(1) Reply
    • nobe ১১ মে, ২০২১, ১:০৬ পিএম says : 0
  • a+aman ১১ মে, ২০২১, ৭:৩৪ এএম says : 0
    Israel will kill all Palestinian slowly , they are cold blooded killers
    Total Reply(1) Reply
    • nobe ১১ মে, ২০২১, ১:০৬ পিএম says : 0
  • MOHAMMAD PARVEZ KHAN ১১ মে, ২০২১, ৩:০২ পিএম says : 0
    The United Nations is a dysfunctional organization. It is primarily the interests of the United States, Israel, France, and Germany, as well as Russia, China, and the United Kingdom. It is an anti-Muslim Ummah organization. It cannot or will not take any action on behalf of the persecuted Muslims.
    Total Reply(0) Reply

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: ইহুদিদের হামলা
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ
গত​ ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ