Inqilab Logo

ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ২৪ জুন ২০২১, ১০ আষাঢ় ১৪২৮, ১২ যিলক্বদ ১৪৪২ হিজরী

ভারতের গঙ্গায় ভেসে এলো ৪০/৪৫টা গলাপচা লাশ!

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ১০ মে, ২০২১, ৯:৪২ পিএম

গঙ্গায় ভেসে আসছে একের পর এক গলাপচা লাশ। এক বা দুই নয়, একেবারে ৪০-৪৫টা লাশ। সংখ্যা ছাড়াতে পারে ১৫০। এরই জেরে বিহারের বক্সায় গঙ্গার পার্শ্ববর্তী এলাকায় ছড়িয়ে পড়ল আতঙ্ক।বীভৎস দৃশ্যে এদিন ঘুম ভাঙে চৌসার স্থানীয় বাসিন্দাদের। সকালে উঠেই বাসিন্দারা দেখে গঙ্গার পাড়ে মহাদেব ঘাটে সার সার দিয়ে জলে ভাসছে পচে গলে ফুলে ওঠা লাশ। মুহূর্তে খবর যায় পুলিশে। -এই সময়, এনডিটিভি

করোনাভাইরাস মহামারি পরিস্থিতিতে উত্তরপ্রদেশ লাগোয়া বিহারের সীমানায় এভাবে একসঙ্গে এতো অজ্ঞাতপরিচয় লাশ ভেসে আসাতেই চাঞ্চল্য। কোথা থেকে এলো একসঙ্গে এতো মৃতদেহ? খতিয়ে দেখছে স্থানীয় প্রশাসন। স্রোতের দিক বিচার করে স্থানীয় প্রশাসনের প্রাথমিক অনুমান, উত্তরপ্রদেশ থেকেই ভেসে এসেছে দেহগুলো এবং মৃতদের মৃত্যু সম্ভবত করোনা সংক্রমণের কারণেই হয়েছে। অন্তিম সৎকারে অসমর্থ হওয়ায় মৃতের পরিবার দেহগুলো নদীতে ভাসিয়ে দিয়েছেন। করোনা পরিস্থিতিতে এভাবে দেহ ভেসে আসায় নদীর পানিতে সংক্রমণ আরও ছড়ানোর আশঙ্কা তৈরি হয়েছে।

দেশটির চৌসা জেলার কর্মকর্তা অশোক কুমার বলেন, এদিন সকালে ৪০-৫০টি লাশ ভেসে এসেছে গঙ্গায়। মৃতদেহের অবস্থা দেখে মনে করা হচ্ছে পাঁচ থেকে সাত দিন আগেই এদের মৃত্যু হয়েছে। প্রাথমিক অনুমান, মৃত্যুর পর কেউ দেহগুলো গঙ্গায় ছুঁড়ে ফেলে দিয়েছে। তবে এখানেই শেষ নয়, আরও লাশ ভেসে আসার সম্ভাবনা রয়েছে। কম করে ১০০-এর কাছাকাছি লাশ নদীতে ফেলা হয়েছে বলে অনুমান। এভাবে করোনায় মৃতের দেহ নদীতে ফেলায় সংক্রমণ আরও কত দ্রুত ছড়াবে তাই ভেবেই আতঙ্কে কাঁটা বাসিন্দারা। সংক্রমণ ছড়ানো রুখতে অজ্ঞাতপরিচয় লাশগুলো মাটিতে পুঁতে দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে প্রশাসন।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: ভারত


আরও
আরও পড়ুন