Inqilab Logo

ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ২৪ জুন ২০২১, ১০ আষাঢ় ১৪২৮, ১২ যিলক্বদ ১৪৪২ হিজরী

বাংলাদেশিদের প্রবেশে নিষেধাজ্ঞা আরব আমিরাত ও থাইল্যান্ডে

করোনা সংক্রমণে উর্ধ্বগতি

কূটনৈতিক সংবাদদাতা | প্রকাশের সময় : ১২ মে, ২০২১, ১২:০২ এএম

করোনাভাইরাস সংক্রমণের ঊর্ধ্বগতির কারণে বাংলাদেশসহ দক্ষিণ এশিয়ার চার দেশের নাগরিকরা আগামীকাল বুধবার থেকে আরব আমিরাতে ঢুকতে পারবে না। অন্যদিকে, দক্ষিণ এশিয়ার করোনাভাইরাস পরিস্থিতির অবনতি হওয়ায় বাংলাদেশি নাগরিকদের ওপর নিষেধাজ্ঞা দিয়েছে থাইল্যান্ডও। বাংলাদেশ ছাড়া নেপাল ও পাকিস্তানের জন্য একই নিষেধাজ্ঞা দিয়েছে দেশটি। এর আগে, বাংলাদেশি নাগরিকদের প্রবেশে নিষেধাজ্ঞা দিয়েছে বেশ কয়েকটি দেশ। এর মধ্যে রয়েছে দক্ষিণ কোরিয়া, যুক্তরাজ্য, ইতালি, সিঙ্গাপুর ও মালয়েশিয়া।
গতকাল সোমবার মধ্যপ্রাচ্যের দেশ আরব আমিরাত জাতীয় জরুরি সঙ্কট ও দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা কর্তৃপক্ষের ওয়েবসাইটে এ নিষেধাজ্ঞা দেওয়া হয়েছে। তবে কতদিনের জন্য এই নিষেধাজ্ঞা তা জানানো হয়নি। এক মাস আগে থেকেই করোনাভাইরাসে বিপর্যস্ত ভারত থেকে মধ্যপ্রাচ্যের দেশটিতে ভ্রমণ বন্ধ করা হয়। এবার বাংলাদেশসহ পাকিস্তান, নেপাল ও শ্রীলংকার যাত্রীদের ক্ষেত্রে এই নিষেধাজ্ঞা দেওয়া হল।
মহামারির দ্বিতীয় ঢেউ শুরুর পর এর আগে মালয়েশিয়া, সিঙ্গাপুর, ওমান, যুক্তরাজ্য বাংলাদেশ থেকে ভ্রমণে নিষেধাজ্ঞা দিয়েছিল।
এদিকে, করোনাভাইরাস পরিস্থিতির অবনতি হওয়ায় বাংলাদেশি নাগরিকদের ওপর নিষেধাজ্ঞা দিয়েছে থাইল্যান্ড। বাংলাদেশ ছাড়া নেপাল ও পাকিস্তানের জন্য একই নিষেধাজ্ঞা দিয়েছে দেশটি। গতকাল সোমবার ঢাকার থাই দূতাবাস এক বিজ্ঞপ্তিতে জানায়, আজ থেকে জারি হওয়া এই নিয়ম পরবর্তী নির্দেশ না দেওয়া পর্যন্ত বলবৎ থাকবে।
দূতাবাস জানায়, থাইল্যান্ড সরকারের গঠিত সিসিএসএ করোনা পরিস্থিতির কারণে দক্ষিণ এশিয়ার এই তিনটি দেশের জন্য ভ্রমণ নিষেধাজ্ঞা জারি করেছে। তবে এসব দেশ থেকে থাই নাগরিকরা চাইলে দেশে ফিরতে পারবেন। বিজ্ঞপ্তিতে উল্লেখ করা হয়, বৈধ ভিসাধারীরা ১৫ মে থাইল্যান্ড যেতে পারবে। তার পরদিন ১৬ মে থেকে সিওইএস ইস্যু সংক্রিয়ভাবে বন্ধ হয়ে যাবে। তবে কূটনৈতিক এবং জাতিসংঘের লাইসেজ-পাসার (ইউএনএলপি) ভিসাধারীরা থাইল্যান্ডে ভ্রমণ করতে পারবে।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: করোনাভাইরাস


আরও
আরও পড়ুন