Inqilab Logo

শুক্রবার, ৩০ জুলাই ২০২১, ১৫ শ্রাবণ ১৪২৮, ১৯ যিলহজ ১৪৪২ হিজরী

ধর্মীয় ভাবগাম্ভীর্যের মধ্য দিয়ে জম্মু ও কাশ্মীরে শব-ই-কদর পালিত

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ১১ মে, ২০২১, ১০:৫৫ এএম

স্বাস্থ্যবিধি মেনে জম্মু ও কাশ্মীর জুড়ে মুসলমানরা পবিত্র শব-ই-কদর বা লাইলাতুল কদর পালন করেছে। রাতটি মহানবী হযরত মুহাম্মদ (সা.)- এর নিকট পবিত্র কুরআন নাজিলের কারণে খুবই মর্যাদাপূর্ণ। তাই ধর্মীয় ভাবগাম্ভীর্যের মধ্য দিয়ে সেখানকার মুসলিমরা ইবাদত বন্দেগী ও জিকির আসকারের মাধ্যমে রাতটি কাটায়।–ইন্ডিয়া ব্লুম

এই পবিত্র রাতকে ইসলামের সমস্ত রাতের চেয়ে সর্বাধিক মহিমান্বিত মনে করা হয়। তবে কোভিড-১৯ সংক্রমণ বৃদ্ধির পরিপ্রেক্ষিতে দরগা হযরতবাল ও জামেয়া মসজিদে নামাজ স্থগিত থাকে। মুসলমানরা স্থানীয় মসজিদে রাতভর নামাজ পড়ে এবং যথাযথ ধর্মীয় ভাবগাম্ভীর্যের মধ্য দিয়ে ইবাদত বন্দেগী করে রাতটি কাটায়। করোনা সংক্রমণ বৃদ্ধির মধ্যে সেখানকার ধর্মীয় নেতারা স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলার মাধ্যমে শবে কদর পালন করতে মুসলমানদের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন। এই রাতে মুসলমানরা বেশিরভাগ সময় কুরআন তেলাওয়াত করে এবং রাতভর বিশেষ নামাজ পড়ে ব্যয় করেন।

এই বছরের ১ মে, জম্মু ও কাশ্মীর ওয়াক্ফ বোর্ড করোনভাইরাস ছড়িয়ে দেওয়ার প্রতিরোধমূলক ব্যবস্থা হিসাবে কাশ্মীরে এটির সাথে সম্পর্কিত মসজিদ এবং মাজারগুলোতে আপাতত নিয়মিত নামাজ স্থগিত করার ঘোষণা করেছিল।অন্যথায়, এই উপলক্ষে, হজরতবল মাজার শ্রীনগর ও ডাউনটাউনের জামিয়া মসজিদে ঐতিহ্যবাহী বৃহত্তম জামাতটি দেখা যায়, যেখানে রাতের বেলা কয়েক হাজার মানুষ বিশেষ প্রার্থনায় যোগ দিতেন।

হজরতবাল মাজারে হযরত মুহাম্মদ (সা.)- এর পবিত্র নিদর্শন বা স্মৃতিচিহ্ন রাখে যা বিশেষ অনুষ্ঠানে তার উম্মতদের কাছে প্রদর্শিত হয়। কারণ, এটি মাজারের সবচেয়ে বেশি সংখ্যক ভক্তকে আকৃষ্ট করে। মাজারটি ওয়াক্ফ বোর্ড দ্বারা পরিচালিত হয়। ওয়াকফ বোর্ডের এক কর্মকর্তা নিশ্চিত করেছেন যে, মাজার এবং মসজিদে কোনও উদযাপন বা রাতভর নামাজ অনুষ্ঠিত হবে না।

গত বছর কোভিড-১৯ যখন বেশি ছিল তখন জম্মু ও কাশ্মীর জুড়ে কোথাও জামাতের সাথে রাতভর নামাজ পড়েনি। প্রশাসন ও মুসলিম আলেমগণ লোকদের ধর্মীয় সমাবেশ এড়াতে বলেছিলেন। ২০২০ সালে রামধন জুড়ে লোকজন নিজ নিজ বাড়িতে রাতভর নামাজ ও নিয়মিত নামাজ পড়েন।



 

Show all comments
  • শওকত আকবর ১১ মে, ২০২১, ১১:৪৪ এএম says : 0
    আল্লাহ মেহেরবান।তার দয়া অসিম।রহমত নাজিল হোক।
    Total Reply(0) Reply

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: কাশ্মীর


আরও
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ