Inqilab Logo

ঢাকা, মঙ্গলবার, ১৫ জুন ২০২১, ০১ আষাঢ় ১৪২৮, ০৩ যিলক্বদ ১৪৪২ হিজরী
শিরোনাম

ফিলিস্তিনের সাথে সংহতি প্রকাশ, যুক্তরাষ্ট্রকে দায়ি করছে চীন

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ১৬ মে, ২০২১, ১২:৪০ পিএম

ফিলিস্তিনি-ইসরাইল দ্বন্দ্ব নিয়ে চীনের অবস্থান সম্পর্কে শনিবার দেশটির স্টেট কাউন্সিলর ও পররাষ্ট্রমন্ত্রী ওয়াং ই নিজেদের অবস্থান ব্যাখা করেছেন। শনিবার পাকিস্তানের পররাষ্ট্রমন্ত্রী শাহ মাহমুদ কুরেশির সাথে টেলিফোনে আলাপকালে তিনি ফিলিস্তিনিদের সাথে সংহতি প্রকাশ ও যুক্তরাষ্ট্রের সমালোচনা করেন।
সাম্প্রতিক দিনগুলিতেফিলিস্তিনি-ইসরাইল সংঘাত ধারাবাহিকভাবে বেড়েছে, ফলে ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে, যা খুবই দু:খজনক বলে মন্তব্য করেন ওয়াং। প্রথমত তিনি বলেন, পরিস্থিতির অবনতির মূল কারণ হ'ল দীর্ঘকাল ধরে ফিলিস্তিন ইস্যুটির সুষ্ঠু সমাধান না হওয়া। বিশেষত, সাম্প্রতিক বছরগুলিতে, মধ্য প্রাচ্যের শান্তি প্রক্রিয়াটি তার মূল ট্র্যাক থেকে বিচ্যুত হয়েছে, জাতিসংঘের সুরক্ষা কাউন্সিলের প্রস্তাবগুলি আন্তরিকভাবে প্রয়োগ করা হয়নি এবং বিশেষত, স্বাধীন রাষ্ট্র গঠনের ফিলিস্তিনের অধিকারকে অব্যাহতভাবে লঙ্ঘিত করা হয়েছে, দুর্দশার মধ্যে পতিত হয়েছে ফিলিস্তিনি জনগণের ভাগ্য, যা ফিলিস্তিনি-ইসরাইল দ্বন্দ্ব এবং বারবার সংঘাতকে তীব্রতর করে তুলেছে।
দ্বিতীয়ত, ওয়াং বলেছিলেন, এখন যুদ্ধবিরতি এবং সহিংসতা বন্ধ ইসরাইলকে চাপ দিতে হবে এবং তাড়াতাড়ি অচলাবস্থা মিটিয়ে সমাধানের দায়িত্ব সুরক্ষা কাউন্সিলের। তিনি জানান, চীন মে মাসের জন্য সুরক্ষা কাউন্সিলের প্রেসিডেন্ট হিসাবে কাউন্সিলকে ফিলিস্তিন-ইসরাইল বিরোধের বিষয়ে দুটি জরুরি বৈঠকের জন্য চাপ দিয়েছে এবং কাউন্সিলকে পদক্ষেপ নিতে নির্দেশ দেয়ার জন্য একটি প্রেস বিবৃতি জারি করেছে। তবে দুঃখের বিষয়, কাউন্সিলটি এখনও পর্যন্ত একটি সমঝোতায় পৌঁছাতে ব্যর্থ হয়েছে কারণ, আমেরিকা আন্তর্জাতিক ন্যায়বিচারের বিপরীতে দাঁড়িয়ে রয়েছে।
তৃতীয়, ওয়াং বলেছেন, ফিলিস্তিনি ইস্যু সমাধানের একটি চূড়ান্ত উপায় দ্বি-রাষ্ট্রীয় ব্যবস্থা প্রয়োগের মধ্যে রয়েছে। চীন রোববার জাতিসংঘের সুরক্ষা কাউন্সিলে ফিলিস্তিন-ইসরাইল দ্বন্দ্ব নিয়ে একটি মুক্ত বিতর্কের আয়োজন করবে এবং আশা করছে যে সমস্ত পক্ষই এই ইস্যুতে ঐক্যবদ্ধ হবে।
গত কয়েকদিন ধরে ফিলিস্তিনে ইসরাইলি হামলায় ১৪৯ জন প্রাণ হারিয়েছে এবং প্রায় ৯৫০ জন আহত হয়েছে। ইসরাইলে পাল্টা রকেট হামলা চালাচ্ছে ফিলিস্তিনের স্বাধীনতাপন্থী সংগঠন হামাসও। এ সংঘাতে ইসরাইলের প্রতি পূর্ণ সমর্থন ব্যক্ত করেছে নিরাপত্তা পরিষদের সবচেয়ে প্রভাবশালী দেশ যুক্তরাষ্ট্র। দেশটির প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন বলেছেন, ইসরাইলের আত্মরক্ষার অধিকার আছে।
জাতিসংঘের নিরাপত্তা পরিষদের স্থায়ী সদস্য দেশ ৫টি। এগুলো হলো যুক্তরাষ্ট্র, চীন, ব্রিটেন, ফ্রান্স ও রাশিয়া। এ ৫টির একটি সদস্য ভেটো দিলেই যেকোনো প্রস্তাব নাকচ হয়ে যায়। যুক্তরাষ্ট্র ইসরাইলের প্রতি সমর্থন দেওয়ায় এককভাবে কোনো সিদ্ধান্তে আসতে পারছে না জাতিসংঘের নিরাপত্তা পরিষদ।



 

Show all comments
  • Jahir ১৬ মে, ২০২১, ২:২৬ পিএম says : 0
    আসলে শক্তিহীনতায় মুসলিমদেরকে দুর্বল করে রেখেছে। আর যদি ফিলিস্তিন ইসরাইলকে আক্রমন করত। তাহলে বোঝা যেত পশ্চিমা বিশ্বের আসল রূপ
    Total Reply(0) Reply
  • MD SAIFUZZAMAN TALUKDER ১৬ মে, ২০২১, ৩:৪৫ পিএম says : 0
    সারা বিশ্বে মুসলিমরা মারখাচ্ছে কারন একটাই আমাদের মধ্যো ঐক্যবদ্ধতা নেই। আমরা নিজেদের বিতর বিশৃংখল সৃষ্টি করে রেখেছে আর বিশৃঙ্খলার সুযোগ নিচ্ছে বিধর্মরা। এখন সময় এসেছে আমাদের ঐক্যবদ্ধ হওয়া
    Total Reply(0) Reply
  • Md Samrat ১৬ মে, ২০২১, ১:৩৬ পিএম says : 0
    একেই বলে geopolitics প্রয়োজনে ব্যবহার করবে কিন্তুু বিপদে সাহায্য করবে না.....
    Total Reply(0) Reply
  • Sheikh Shafiqul Islam ১৬ মে, ২০২১, ১:৩৭ পিএম says : 0
    রোহিঙ্গা ইস্যুতে চায়না চুপ আর ফিলিস্তিন ইস্যুতে আমেরিকা চুপ জাতিসংঘ টিনের চশমা পরে ঘুমিয়ে আছে, ইউরোপিয় ইউনিয়ন নিরবতা পালন করছে ভাবা যায়! তোমাদের সবারই শুভংকরের ফাঁকি।
    Total Reply(0) Reply
  • Md. Golam Rabbi ১৬ মে, ২০২১, ১:৩৮ পিএম says : 0
    ফিলিস্তিনের জন্য চীন দায়ী করলে যুক্তরাষ্ট্রকে, উইঘুরদের জন্য যুক্তরাষ্ট্র দায়ী করে চীনকে। মাঝখান থেকে মুসলিমরা মরে।
    Total Reply(0) Reply
  • Anwar Hossain ১৬ মে, ২০২১, ১:৪০ পিএম says : 0
    শুধু সংহতি জানালে হবে না ফিলিস্তিনী হাতে অস্ত্র তুলে দাও
    Total Reply(0) Reply
  • Arman Hossain ১৬ মে, ২০২১, ১:৪২ পিএম says : 0
    এটা রাজনৈতিক চাল । বাস্তবিক জালিমরা একে অপরের বন্ধু। খোদ তার নিজ দেশেই লাখো মানুষ জুলুম আার নিযাতনের শিকার
    Total Reply(0) Reply
  • মোঃ+দুলাল+মিয়া ১৬ মে, ২০২১, ২:০৯ পিএম says : 0
    মুসলমানেরা আসলেই বুঝতে পারতেছেনা যে ইহুদিরা সবাই ভিতরে ভিতরে সবাই ঐক্যবদ্ধ,উপরে উপরে একটু কথা বার্তা বলে আর মুসলমানদের সান্তনা দিয়ে থাকে ,আমরা মুসলমানেরা বুঝিনা,ইচ্ছা করলে আমরা মুসলমানেরা শক্তি শালী হইতে পারি,বর্তমান হামাস চার/পাঁচ বসরে একটু উন্নত হয়েছে,কিন্তু আরো শক্তি শালী হইতে পারে যদি শক্তি দর মুসলিম রাষ্ট্র গুলি তাদের পশিক্ষন দিতে পারতো কিন্তু আমাদের ঐ দিকে খেয়াল নাই শুধু জাতিসংঘ,আরে ভাই এরা সবাই ইহুদি এরা কি আমাদের পক্ষে যুদ্ধ করবে না কি সাহায্য করবে,কেন দিনও না,এখনও সময় আছে যদি মুসলমান ঠিকই উঁচু মাথায় থাকতে চায় এবং ইসলামের বিজয় আনতে চায়,যে সমস্ত মুসলমান রাষ্ট্র শক্তিশালী/যেমন=পাকিস্তান/আফগানিস্তান/ইরান/তুরস্ক =এদের উচিত হবে যে সমস্ত রাষ্ট্র কিছু জানে না অথবা দুর্বল তাদের পশিক্ষন দেওয়া,এবং দিতে হবে তার পরে মুসলিমরা শক্তিশালী হতে পারবে,এমনে আপসোস করলে কোনো লাভ নাই,
    Total Reply(0) Reply
  • জান্নাতুল ফেরদাউস নূরী ১৬ মে, ২০২১, ১:৩৬ পিএম says : 0
    যুক্তরাষ্ট্র মানেই ইসরাইল, ইসরাইল মানেই যুক্তরাষ্ট্র। সব রসুনের কোয়ার একই গোড়া। যুক্তরাষ্ট্র ইসরাইলের পক্ষে সাফাই গাইছে, নিন্দাবাদ যুক্তরাষ্ট্র। জাতিসংঘ যেন মুসলিম বিরোধী সংঘ।তা না হলে মানবতাবিরোধী ইসরাইলের বিরুদ্ধে পদক্ষেপ নয় কেন?
    Total Reply(0) Reply
  • জহির ১৬ মে, ২০২১, ২:২৫ পিএম says : 0
    আসলে শক্তিহীনতায় মুসলিমদেরকে দুর্বল করে রেখেছে। আর যদি ফিলিস্তিন ইসরাইলকে আক্রমন করত। তাহলে বোঝা যেত পশ্চিমা বিশ্বের আসল রূপ
    Total Reply(0) Reply
  • Dadhack ১৬ মে, ২০২১, ১:৩১ পিএম says : 0
    China is giving lip service, why not china give weapon to Hamas, they are all same [Muslim Killer]
    Total Reply(0) Reply
  • habib ১৬ মে, ২০২১, ৭:২১ পিএম says : 0
    i hate oic they fail to protect muslim around the world..oic muslim leaders are acting as a munafiqun
    Total Reply(0) Reply

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: গাজায় হামলা


আরও
আরও পড়ুন
গত​ ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ