Inqilab Logo

ঢাকা, শুক্রবার, ১৮ জুন ২০২১, ০৪ আষাঢ় ১৪২৮, ০৬ যিলক্বদ ১৪৪২ হিজরী

ঈদের পরও পুঁজিবাজারে চাঙ্গাভাব অব্যাহত

অর্থনৈতিক রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ১৭ মে, ২০২১, ১২:০১ এএম

ঈদের আগে দেখা দেয়া চাঙ্গাভাব ঈদের পরেও দেখা যাচ্ছে দেশের শেয়ারবাজারে। ঈদের পরের প্রথম কার্যদিবসে গতকাল প্রধান শেয়ারবাজার ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জ (ডিএসই) এবং অপর শেয়ারবাজার চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জে (সিএসই) সবকটি মূল্য সূচক বড় উত্থান হয়েছে। এর আগে পবিত্র ঈদুল ফিতরের আগে টানা ছয় কার্যদিবস ঊর্ধ্বমুখী থাকে শেয়ারবাজার। ফলে ঈদের আগে ও পরে মিলে টানা সাত কার্যদিবস ঊর্ধ্বমুখী থাকল শেয়ারবাজার।
মূল্য সূচক টানা বাড়ার পাশাপাশি লেনদেনের গতিও বেশ বেড়েছে। রোববার ডিএসইতে লেনদেন ১৪০০ কোটি টাকা ছাড়িয়ে গেছে। এর মাধ্যমে টানা ১০ কার্যদিবস ডিএসইতে হাজার কোটি টাকার ওপরে লেনদেন হয়েছে।
বাজার পর্যালোচনায় দেখা যায়, রোববার লেনদেনের শুরুতেই শেয়ারবাজারে বড় উত্থানের আভাস পাওয়া যায়। বেশিরভাগ প্রতিষ্ঠানের শেয়ার ও ইউনিটের দাম বাড়ায় প্রথম মিনিটের লেনদেনেই ডিএসইর প্রধান সূচক ডিএসইএক্স ২০ পয়েন্ট বেড়ে যায়।
সময় গড়ানোর সঙ্গে সঙ্গে বাড়তে থাকে সূচকের ঊর্ধ্বমুখী প্রবণতা। এতে দিনের লেনদেন শেষে ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জের প্রধান মূল্য সূচক ডিএসইএক্স আগের দিনের তুলনায় ৬২ পয়েন্ট বেড়ে ৫ হাজার ৮১৩ পয়েন্টে উঠে এসেছে।
অপর দুই সূচকের মধ্যে ডিএসইর শরিয়াহ্ সূচক ৭ পয়েন্ট বেড়ে ১ হাজার ২৮২ পয়েন্টে দাঁড়িয়েছে। আর বাছাই করা ভালো কোম্পানি নিয়ে গঠিত ডিএসই-৩০ সূচক আগের দিনের তুলনায় ৫ পয়েন্ট বেড়ে ২ হাজার ১৯২ পয়েন্টে অবস্থান করছে।
সবকটি মূল্য সূচকের উত্থানের পাশাপাশি বাজারটিতে দাম বাড়ার তালিকায় নাম লিখিয়েছে বেশিরভাগ প্রতিষ্ঠান। ডিএসইতে দিনভর লেনদেনে অংশ নেয়া ২৩১টি প্রতিষ্ঠানের শেয়ার ও ইউনিটের দাম বেড়েছে। বিপরীতে দাম কমেছে ৮৮টির এবং ৪৯টির দাম অপরিবর্তিত রয়েছে।
দিনভর বাজারটিতে লেনদেন হয়েছে ১ হাজার ৪১৮ কোটি ৩৬ লাখ টাকা। আগের দিন লেনদেন হয় ১ হাজার ৪৫৩ কোটি ৫৬ লাখ টাকা। সে হিসেবে লেনেদেন কমেছে ৩৫ কোটি ২০ লাখ টাকা।
টাকার অঙ্কে ডিএসইতে সব থেকে বেশি লেনদেন হয়েছে বেক্সিমকোর শেয়ার। কোম্পানিটির ৮৩ কোটি ৯ লাখ টাকার শেয়ার লেনদেন হয়েছে। দ্বিতীয় স্থানে থাকা সাইফ পাওয়ারের ৪২ কোটি ১৯ লাখ টাকার লেনদেন হয়েছে। ৩১ কোটি ৭৯ লাখ টাকার শেয়ার লেনদেনের মাধ্যমে তৃতীয় স্থানে রয়েছে রবি।
এ ছাড়া ডিএসইতে লেনদেনের দিক থেকে শীর্ষ ১০ প্রতিষ্ঠানের তালিকায় রয়েছে- সামিট পাওয়ার, ন্যাশনাল ফিড, ম্যাকসন স্পিনিং, জিনেক্স ইনফোসিস, লংকাবাংলা ফাইন্যান্স, এসএস স্টিল এবং আইএফআইসি ব্যাংক।
অপর শেয়ারবাজার চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জের সার্বিক মূল্য সূচক সিএএসপিআই বেড়েছে ১৯০ পয়েন্ট। বাজারটিতে লেনদেন হয়েছে ৭১ কোটি ১৫ লাখ টাকা। লেনদেনে অংশ নেয়া ২৯২টি প্রতিষ্ঠানের মধ্যে ১৯২টির দাম বেড়েছে। বিপরীতে দাম কমেছে ৬৮টির এবং ৩২টির দাম অপরিবর্তিত রয়েছে।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: পুঁজিবাজার


আরও
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ