Inqilab Logo

ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ২৪ জুন ২০২১, ১০ আষাঢ় ১৪২৮, ১২ যিলক্বদ ১৪৪২ হিজরী

চুরিতে বাধা দেয়ায় নিরাপত্তাকর্মীকে খুন

রাজধানীতে পৃথক ঘটনায় ৪ জনের মৃত্যু

বিশেষ সংবাদদাতা | প্রকাশের সময় : ১৭ মে, ২০২১, ১২:০১ এএম

রাজধানীর শেরেবাংলা নগর থানাধীন ৬০ ফিট সড়ক থেকে সুজন মিয়া (৪০) নামে এক নিরাপত্তাকর্মীকে চুরিতে বাধা দেয়ায় গলায় গামছা পেঁচিয়ে হত্যার অভিযোগ পাওয়া গেছে। গতকাল রোববার ভোরে এ ঘটনা ঘটলেও পুলিশ এ ঘটনায় কাউকে গ্রেফতার করতে পারেনি। অন্যদিকে রাজধানীতে পৃথক ঘটনায় চার জনের মৃত্যু হয়েছে। শেরেবাংলা নগর থানার এসআই শেখ জহিরুল ইসলাম বলেন, সুজন ভাষানটেক কচুক্ষেত এলাকার নিরাপত্তাকর্মী ছিলেন। প্রাথমিকভাবে জানা গেছে, ওই এলাকায় একটি দোকানে চোরেরা চুরি করতে গেলে সুজন বাধা দেন। একপর্যায়ে চোরেরা সুজনের মাথায় আঘাত করে তাদের গাড়িতে তুলে গলায় গামছা পেঁচিয়ে ৬০ ফুট রাস্তায় ফেলে রেখে যায়।

তিনি আরো বলেন, আমরা বিস্তারিত জানার চেষ্টা করছি। ময়নাতদন্তের প্রতিবেদনে বিস্তারিত জানা যাবে। লাশ উদ্ধার করে আইনি প্রক্রিয়ায় শহীদ সোহরাওয়ার্দী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়েছে। কিশোরগঞ্জের করিমগঞ্জ উপজেলার বারহাট্টা গ্রামের হাসমত আলীর ছেলে সুজন। বর্তমানে কচুক্ষেত এলাকায় থাকতেন। তার দুই ছেলে দুই মেয়ে রয়েছে।

লালবাগে মদপানে যুবকের মৃত্যুঃ রাজধানীর লালবাগ এলাকায় মদপানে মো. আলী (৩০) নামে এক যুবকের মৃত্যু হয়েছে। নিহত যুবক পেশায় একজন ব্যবসায়ী ছিলেন। গতকাল রোববার বেলা ১১টার দিকে পরিবারের লোকজন অচেতন অবস্থায় ওই যুবককে ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালে নিলে চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন।
মৃত যুবকের ভাই ইয়াকুব জানান, তাদের বাসা লালবাগের আমলিগোলা হরমোহন লাল স্ট্রিট রোডে। বাসাতেই তাদের ইমিটেশন তৈরির কারখানা আছে। শনিবার দিনগত রাতে লালবাগ এলাকায় বন্ধুদের সঙ্গে মদ পান করে বাসায় এসে অসুস্থ হয়ে পড়েন তার ভাই আলী। রাতেই তাকে ঢামেক হাসপাতালে নিয়ে আসেন। প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়ে বাসায় নিয়ে যায়। রোববার বাসায় বেশি অসুস্থ হয়ে পড়েন তার ভাই। পরে তাকে হাসপাতালে নিয়ে গেলে তার মৃত্যু হয়। ময়নাতদন্তের জন্য লাশ মর্গে রাখা হয়েছে।

রিজার্ভ ট্যাংকে মিললো ৭ বছরের শিশুর লাশঃ কাফরুলের ইব্রাহিমপুরে একটি পরিত্যক্ত বাড়ির পানির রিজার্ভ ট্যাংকে পড়ে জাবেদ (৭) নামে এক শিশুর মৃত্যু হয়েছে। শিশুটি স্থানীয় একটি মাদরাসায় লেখাপড়া করতো। ভোলা বোরহানউদ্দিন উপজেলার দিনমজুর স্বপন মিয়া ছেলে জাবেদ। পরিবারের সঙ্গে ইব্রাহিমপুর পুলপার এলাকার একটি বাসায় ভাড়া থাকতো। তার মা সুরমা বেগম পোশাক কারখানার শ্রমিক। দুই ভাই-বোনের মধ্যে বড় ছিলো জাবেদ।

কাফরুল থানার এসআই মো. মশিউর রহমান জানান, গত বুধবার শিশুটির লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য শহীদ সোহরাওয়ার্দী হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়। পরে ময়না তদন্ত শেষে পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে। তিনি জানান, বুধবার সন্ধ্যা ৭টার দিকে শিশুটিকে কোথাও খুঁজে পাচ্ছিলো না তার মা-বাবা। অনেক খোঁজাখুঁজির পর রাত ৯টার দিকে বাসার পাশেই একটি পরিত্যক্ত নির্মাণাধীন ভবনের নিচে পানির রিজার্ভ ট্যাংকের পাশে শিশুটির জুতা পড়ে থাকতে দেখে। পরে ট্যাংকের ভেতরে পানিতে তাকে ভাসতে দেখেন স্বজনরা। তখন তাকে উদ্ধার করে সোহরাওয়ার্দী হাসপাতালে নিয়ে গেলে রাত সাড়ে ১১টায় চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন। তার শরীরে কোনো আঘাতের চিহ্নও পাওয়া যায়নি। ধারণা করা হচ্ছে খেলতে গিয়ে শিশুটি সেফটিক ট্যাংকে পড়ে মৃত্যু হয়েছে। তবে, বিস্তারিত আরও তদন্ত করে দেখা হচ্ছে। ময়নাতদন্তের পর মৃত্যুর কারণ নিশ্চিত হওয়া যাবে।

পাঁচতলার বারান্দা থেকে পড়ে শিশুর মৃত্যুঃ গেন্ডারিয়ায় ছয়তলা বাসার পাঁচতলা থেকে পড়ে শেখ শাখাওয়াত হোসেন (৫) নামে এক শিশুর মৃত্যু হয়েছে। গত শনিবার বিকেল ৪টার দিকে এ ঘটনা ঘটে। শিশুটির বাবা শেখ মো. সুমন জানান, তাদের বাড়ি মুন্সগঞ্জ সদরে। গেন্ডারিয়া দ্বীননাথ সেন রোডের একটি ছয়তলা বাসার তৃতীয় তলায় ভাড়া থাকেন। গেন্ডারিয়াতে তার বিদ্যুৎ সরঞ্জামের ব্যবসা রয়েছে।

তিনি আরও জানান, এক ভাই এক বোনের মধ্যে শাখাওয়াত ছোট। শনিবার বিকেলে সিড়িতে খেলা করছিল শাখাওয়াত। খেলতে খেলতে পাঁচ তলার বাসায় যায়। সেখানে বারান্দায় থেকে নিচে পড়ে যায়। মুমূর্ষু অবস্থায় ওকে উদ্ধার করে ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে গেলে চিকিৎসক বিকেল ৫টার দিকে মৃত ঘোষণা করেন।

শাহবাগে নিজের গলায় ছুরিকাঘাত, ঢামেকে মৃত্যুঃ শাহবাগ শহীদ মিনার এলাকায় ফুটপাতে অজ্ঞাতপরিচয় এক যুবক (৩০) নিজের গলায় ছুরিকাঘাত করে আত্মহত্যার ঘটনা ঘটেছে। গত শনিবার দিনগত রাতে ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তার মৃত্যু হয়।

ঢামেক পুলিশ ফাঁড়ির (ইন্সপেক্টর) বাচ্চু মিয়া প্রত্যক্ষদর্শীদের বরাত দিয়ে বলেন, ডাব কাটার একটি দা দিয়ে নিজের গলায় ছুরিকাঘাত করে আত্মহত্যা করেছেন ওই যুবক। তিনি মানসিকভাবে বিকার গ্রস্ত বা হতাশা থেকে আত্মহত্যা করেছেন বলে ধারণা করা হচ্ছে। সিআইডির ল্যাবে তার আঙুলের ছাপ মেলানো হলেও কোন তথ্য না থাকায় পরিচয় নিশ্চিত হওয়া যায়নি। শাহবাগ থানার ওসি মামুন-অর-রশিদ জানান, নিহতের পরনে একটি পাজামা ছিল। তবে গায়ে কিছু ছিল না। প্রত্যক্ষদর্শীদের সঙ্গে কথা বলে তার পরিচয় জানার চেষ্টা চলছে। লাশ ময়নাতদন্তের জন্য ঢামেকের মর্গে রাখা হয়েছে। সন্ধ্যা ৭টার দিকে হাসপাতালের বহির্বিভাগ রাস্তা সংলগ্ন বটগাছের নিচে রাস্তায় ওই যুবক নিজের গলায় নিজে ছুরিকাঘাত করেন বলে প্রাথমিকভাবে জানা গেছে।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: নিরাপত্তাকর্মী খুন
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ