Inqilab Logo

ঢাকা, শুক্রবার, ১৮ জুন ২০২১, ০৪ আষাঢ় ১৪২৮, ০৬ যিলক্বদ ১৪৪২ হিজরী

সরকার লকডাউন নয় , আসলে দিয়েছে ক্রাকডাউন -ঠাকুরগাঁওয়ে মির্জা ফখরুল

ঠাকুরগাঁও জেলা সংবাদদাতা | প্রকাশের সময় : ১৭ মে, ২০২১, ১:৪৯ পিএম | আপডেট : ১:৫৩ পিএম, ১৭ মে, ২০২১

ঠাকুরগাঁওয়ে বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেছেন, সরকার নামে মাত্র লকডাউন দিয়েছে। কিন্তু এর আড়ালে তারা ক্রাকডাউন দিয়েছে। বিএনপি মহাসচিব বলেন,করোনা ভাইরাস মোকাবেলায় সরকার সম্পুর্নরূপে ব্যর্থ হয়েছে। মানুষ খেতে পায়না, অথচ তাকে আপনারা ঘরের মধ্যে বসে থাকতে বলছেন। বসে থাকবে আগে তাদের খাবারের ব্যবস্থা করে দিন। আমরা সরকারকে তাদেরকে এককালীন ৩ মাসে ১৫ হাজার করে টাকা দেওয়ার প্রস্তাবনা দিয়েছিলাম। আপনারা জানেন বর্তমানে প্রায় ২ কোটি মানুষ দারিদ্র সীমার নিচে বাস করছে। আর বিভিন্ন সেক্টরে কাজ করে সবমিলিয়ে প্রায় ৬ কোটি মানুষ কর্মহীন। এই ৬ কোটি মানুষের জন্য কিন্তু প্রনোদনা দেয়নি সরকার। প্রণোদনা গেছে কাদের জন্য গার্মেন্টস, ইন্ডাষ্ট্রির মালিকদের জন্য। র‌্যামিটেন্স যোদ্ধাদের প্রনোদনা দেওয়ার প্রস্তাব করেছিলাম। তারা ৭৭শতাংশ কর্মহীন হয়ে পরেছে। এই কথাগুলো সরকারকে বলে কোন লাভ হয়না। সরকারের নীতি নির্ধারকেরা বলছেন সরকারের নির্দিষ্ট কোন পরিকল্পনা নেই। পরিকল্পনা বিহীন সাধারণ মানুষজন লকডাউন মানবে কিভাবে।  
  ,
সোমবার বেলা ১১টায় ঠাকুরগাঁও শহরের কালিবাড়িস্থ নিজ বাসভবনে স্থানীয় সাংবাদিকদের সাথে মতবিনিময়কালে তিনি এসব কথা বলেন।
তিনি আরও বলেন, ২৬ শে মার্চ ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর বাংলাদেশ সফরকে কেন্দ্র করে সরকার নিজেরাই বিভিন্ন ঘটনা ঘটিয়ে সেটি বিরোধীদের উপর চাপাচ্ছে। বিরোধীদের উপরে মামলা দিয়ে গণ গ্রেফতার করেছে। গ্রেফতারকৃতদের ঈদের মধ্যেও জামিন দেওয়া হয়নি।
মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেন, ঈদের জন্য সরকার মাত্র ৩ দিন ছুটি ঘোষনা করেছে। কিন্তু মানুষ তো থেমে নেই। দুর্ভোগের মধ্যে অতিরিক্ত টাকা খরচ করে তারা বাড়িতে রাওয়ানা হয়েছে ও ছুটি শেষে তারাহুরা করে ঢাকায় ফিরছে। যাদের নিজেদের গাড়ি আছে তাদের কোন সমস্যা নেই কিন্তু সবচেয়ে বেশি সমস্যায় পরেছে সাধারণ জনগণ। আমরা সরকারকে অনেক আগে থেকেই বলে আসছি করোনা মোকাবেলায় কার্যকরী পদক্ষেপ গ্রহন করতে। কিন্তু সরকার তাতে কর্নপাত করেনি। এখানে সরকারের চরম বার্থতা, উদাসিনতা শুধু বলবো না এটা হচ্ছে তাদের অজ্ঞানতা এবং সম্পুর্ন ব্যর্থতা। তাদের ব্যর্থতার কারণেই আজকে এ অবস্থার সৃষ্টি হয়েছে।
 মির্জা ফখরুল অভিযোগ করে বলেন, কোনো আইনগত বাঁধা না থাকা সত্বেও গুরুতর অসুস্থ বেগম খালেদা জিয়াকে বিদেশে চিকিৎসা নিতে যেতে দিচ্ছে না সরকার।
এ সময় উপস্থিত ছিলেন জেলা বিএনপির সভাপতি তৈমুর রহমান, সহ-সভাপতি মামুন উর রশীদ, উপজেলা বিএনপিসাধারণ সম্পাদক আব্দুল হামিদসহ নেতাকর্মীরা



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: মির্জা ফখরুল


আরও
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ