Inqilab Logo

ঢাকা, মঙ্গলবার, ১৫ জুন ২০২১, ০১ আষাঢ় ১৪২৮, ০৩ যিলক্বদ ১৪৪২ হিজরী
শিরোনাম

জোকোভিচকে হারিয়ে জোকোভিচের পাশে নাদাল

স্পোর্টস ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ১৮ মে, ২০২১, ১২:০০ এএম

দুসপ্তাহ পরেই ফ্রেঞ্চ ওপেন। বছরের দ্বিতীয় গ্র্যান্ড স্ল্যাম শুরুর আগে রাফায়েল নাদাল জানিয়ে দিলেন তার কাছ থেকে লাল দুর্গের দখল নেওয়া সহজ হবে না। গতপরশু রাতে ক্লে কোর্টের অন্যতম বড় টুর্নামেন্ট রোম মাস্টার্সের ফাইনালে পুরুষ টেনিসের এক নম্বর খেলোয়াড় নোভাক জোকোভিচকে হারিয়েছেন স্প্যানিশ মহাতারকা।
সবচেয়ে বেশি গ্র্যান্ড স্ল্যাম জয়ের রেকর্ডে আরেক কিংবদন্তি রজার ফেদেরারের পাশে বসা নাদাল রোম মাস্টার্স হিসেবে বেশি পরিচিত ইতালিয়ান ওপেনটা জিতলেন ১০ম বারের মতো। তাতে এটিপির ১০০০ মাস্টার্স জয়ে জোকোভিচের রেকর্ডে ভাগ বসালেন নাদাল। মর্যাদায় গ্র্যান্ড স্ল্যামের ঠিক পরেই থাকা মাস্টার্স টুর্নামেন্ট দুজন জিতেছেন ৩৬টি করে।
নাদাল-জোকোভিচের ৫৭তম লড়াইয়ে নাদাল জিতেছেন ৭-৫, ১-৬, ৬-৩ গেমে। জোকোভিচের বিপক্ষে ২৮তম জয়টি নাদাল পেয়েছেন ২ ঘণ্টা ৪৯ মিনিট লড়াই শেষে। এই ম্যাচের আগে নাদাল-জোকোভিচ সর্বশেষ মুখোমুখি হয়েছিলেন গত বছরের ফ্রেঞ্চ ওপেনের ফাইনালে। সেই ম্যাচে সরাসরি সেটে জিতেছিলেন নাদাল। প্রবল প্রতদ্ব›দ্বীর বিপক্ষে টানা দুই ম্যাচ জেতার পরও অবশ্য ২৯-২৮ ম্যাচে পিছিয়ে আছেন ৩৪ বছর বয়সী নাদাল। দুই ‘বুড়ো’র লড়াইয়ে জেতার পর ট্রফি হাতে ওঠানো নাদাল বললেন এত দূর আসতে পারবেন ভাবেননি কখনো, ‘অবিশ্বাস্য, এই ট্রফিটা ১০ম বারের মতো হাতে তুললাম। এতটা কল্পনাতেও ছিল না। মনে আছে ২০০৫ সালে যখন প্রথম রোমে ট্রফি জিতলাম (গিয়ের্মো) কোরেয়াকে হারাতে পাঁচ ঘণ্টা লেগেছিল।’
রোম মাস্টার্সের সর্বশেষ ১৭ আসরের ১৫টিতেই চ্যাম্পিয়নের নাম হয় নাদাল, নয় জোকোভিচ। শিরোপা জেতায় ১০-৫ ব্যবধানে এগিয়ে থাকা নাদাল রোমের ফাইনালেও এগিয়ে জোকোভিচের বিপক্ষে। দুজনের ছয়টি ফাইনালের চারটিতেই জয়ীর নাম নাদাল। গতবার আর্জেন্টাইন দিয়েগো সোয়ার্টজমানের কাছে কোয়ার্টার ফাইনালে হেরেই বিদায় নিয়েছিলেন নাদাল। এবার প্রায়শ্চিত্ত করলেন সেটিরই। জানালেন রোমে সাফল্য পেতে কতটা মরিয়া ছিলেন তিনি, ‘আমি এখানে শিরোপা জিততে মুখিয়ে ছিলাম। আমার ক্যারিয়ারের অন্যতম গুরুত্বপূর্ণ শিরোপা তো এটিই। আমি মন্টে কার্লো, বার্সেলোনা ও রোলাঁ গারোর (ফ্রেঞ্চ ওপেন) পর এখানেও সংখ্যাটা দুই অঙ্কে নিতে চেয়েছি।’
জোকেভিচের ঝুলিতে ১৮টি গ্র্যান্ড স্ল্যাম। র‌্যাঙ্কিংয়েও শীর্ষে। তবুও ৩৩ বছর বয়সী তারকা যেন হেরে গেলেন ক্লান্তির কাছেই। আগের দিন প্রায় পাঁচ ঘণ্টা ছিলেন কোর্টে। বৃষ্টির কারণে পিছিয়ে যাওয়া কোয়ার্টার ফাইনালের পর সেমিফাইনালটাও সেদিন খেলতে হয়েছে ‘জোকার’ খ্যাত এই তারকাকে। তবুও যেন তৃপ্তি ঝরল ‘রাজার’ কাছে হেরে, ‘রাফাকে অভিনন্দন। তার সঙ্গে খেলা সত্যিই অসাধারণ। সে রাজা (ক্লে কোর্টের) এটা প্রমাণিত সত্য।’



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: নাদাল

১৪ ফেব্রুয়ারি, ২০২১
২১ নভেম্বর, ২০২০
৭ নভেম্বর, ২০২০
১৩ অক্টোবর, ২০২০

আরও
আরও পড়ুন
গত​ ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ