Inqilab Logo

ঢাকা, রোববার, ১৩ জুন ২০২১, ৩০ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৮, ০১ যিলক্বদ ১৪৪২ হিজরী
শিরোনাম

ফিলিস্তিনিদের ত্রাণের ট্রাক আটকে দিল ইসরায়েল

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ১৯ মে, ২০২১, ৮:৫৮ এএম

টানা নবম দিনের মতো গাজা উপত্যকায় বর্বরোচিত হামলা অব্যাহত রেখেছে ইসরায়েল। দখলদারদের গোলা ও মিসাইল গুড়িয়ে দিয়েছে নিরপরাধ ফিলিস্তিনিদের বাড়িঘর। আশ্রয়হীন হয়ে গাজায় জাতিসংঘ পরিচালিত স্কুলগুলোতে ঠাঁই নিয়েছেন হাজার হাজার ফিলিস্তিনি। ৫৮টি স্কুলে ৪৭ হাজার মানুষ আশ্রয় নিয়েছেন বলে জানিয়েছে জাতিসংঘের সহায়তা সংস্থা।

সেখানে জরুরি সেবা, খাদ্য, পানির সংকট দেখা দিয়েছে। তাদের জন্য ত্রাণসহায়তা জরুরি হয়ে পড়েছে। আর এমন পরিস্থিতিতেও ফিলিস্তিনের জন্য পাঠানো ত্রাণসহায়তা আটকে দিয়েছে ইসরায়েল।

মর্টার হামলায় নিজেদের এক সেনার সামান্য আহত হওয়ার অযুহাতে গাজায় প্রবেশের সীমান্ত বন্ধ করে দিয়েছে ইসরায়েলি বাহিনী। তাই বিভিন্ন দেশ ও সংস্থার পাঠানো ত্রাণবাহী ট্রাকের বহর আর ঢুকতে পারছে না।

আল জাজিরার এক প্রতিবেদনে বিষয়টি জানিয়ে বলা হয়েছে, ইসরায়েলি কো-অর্ডিনেটর অব গভর্নমেন্ট অ্যাক্টিভিটিজ ইন দ্য টেরিটোরিজ (কোগাট) মঙ্গলবার (১৮ মে) গাজায় ত্রাণ পৌঁছানোর জন্য সাময়িকভাবে কারেম আবু সালেম সীমান্ত খোলার ঘোষণা দেয়। এরপর সেখান দিয়ে ত্রাণবাহী ট্রাক ঢুকতেও শুরু করে। কিন্তু কিছুক্ষণ পরেই মর্টার হামলায় এক ইসরায়েলি সেনা সামান্য আহত হওয়ার কথা জানিয়ে সীমান্ত বন্ধের ঘোষণা দেয় কোগাট।

এক বিবৃতিতে কোগাট বলেছে, ‘কারেম সালেম ক্রসিংয়ের দিকে মর্টার বোমা হামলার পর বাকি ট্রাকগুলোর প্রবেশ বন্ধের সিদ্ধান্ত হয়েছে।’
এর আগে নরওয়েজিয়ান রিফুজি কাউন্সিলের মধ্যপ্রাচ্য বিষয়ক মিডিয়া উপদেষ্টা কার্ল স্কেমব্রি আল জাজিরাকে বলেছিলেন, ‘কারেম আবু সালেম ও বেইত হ্যানুন সীমান্ত বন্ধ রাখা হলে গাজাবাসীর দমবন্ধ হওয়ার অবস্থা হবে। সেখানকার লোকজনের শুধু নিত্যব্যবহার্য জিনিসই দরকার না, তাদের এখন জরুরি মানবিক সহায়তা প্রয়োজন। সীমান্তগুলো খোলা রাখা খুবই দরকার।’

এছাড়া অসহায় লোকগুলোর কাছে মানবিক সহায়তা পৌঁছানোর জন্য অস্ত্রবিরতি দরকার বলেও উল্লেখ করেন কার্ল স্কেমব্রি।
জাতিসংঘের সহায়তা সংস্থা মঙ্গলবার জানিয়েছে, গাজা উপত্যকায় ইসরায়েলি হামলায় প্রায় ৪৫০টি ভবন ধ্বংস বা ব্যাপকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। এতে ৫২ হাজারের বেশি ফিলিস্তিনি বাস্তুচ্যুত হয়েছেন।

বাস্তুচ্যুতদের মধ্যে প্রায় ৪৭ হাজার মানুষ গাজায় জাতিসংঘ পরিচালিত ৫৮টি স্কুলে আশ্রয় নিয়েছেন বলে জাতিসংঘের মানবিক ত্রাণসহায়তা বিষয়ক সমন্বয়ক জেনস লায়েরকে জানিয়েছেন।

এদিকে, এক সপ্তাহ ধরে গাজায় ইসরায়েলি হামলায় অন্তত ২৩৩ জন নিহত হয়েছেন। তাদের মধ্যে ৬১ শিশুও রয়েছে। সূত্র : আল জাজিরা, রয়টার্স।



 

Show all comments
  • শওকত আকবর ১৯ মে, ২০২১, ৯:২১ এএম says : 0
    এই অমানবিক কাজ!এ দেখেও কি রুখে দাড়াবেনা মুসলিম দেশগুলো?ইসরাইল এ ভাবে হামলা চালিয়ে মানুষ মারবে?ত্রান দিতেও বাধাঁদিবে?বিশ্ব শুধু চেয়ে চেয়ে মৃর্ত দেখবে?কেউ কি বাচাঁতে এগিয়ে যাবেনা।
    Total Reply(0) Reply

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: ফিলিস্তিন


আরও
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ
গত​ ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ