Inqilab Logo

ঢাকা, মঙ্গলবার, ২২ জুন ২০২১, ০৮ আষাঢ় ১৪২৮, ১০ যিলক্বদ ১৪৪২ হিজরী

প্রশ্ন : এ’তেকাফের সময় কোন কোন কাজের জন্য মসজিদের বাহিরে যাওয়া চলবে?

| প্রকাশের সময় : ২০ মে, ২০২১, ১২:০১ এএম

উত্তর : ক) প্রস্রাব, পায়খানা, ওজু, ফরজ গোসলের জন্য মসজিদের বাহিরে যাওয়া যাবে। খ) এ’তেকাফকারী মসজিদে থাকলে প্রাণনাশের ভয় হলে তৎক্ষণাৎ সেখান থেকে বের হয়ে নিকটস্থ কোনো মসজিদে গিয়ে এ’তেকাফে বসবে। গ) আহারাদি জোগান দেওয়ার মানুষ না-থাকলে মুতাকিফ নিজে ঘরে গিয়ে প্রয়োজনীয় আহারাদি নিয়ে আসতে পারবেন। তবে রাস্তায় বা বাসস্থানে দেরি করতে পারবেন না। অযথা দেরি করলে এ’তেকাফ বাতিল হয়ে যাবে।

আজকের যুগে আহারাদি আগে থেকে জোগাড় করে রাখার বিভিন্ন পন্থা-পদ্ধতি রয়েছে। উন্নত ধরনের হটকেস্-এ খাদ্যবস্তু, আহারাদি ১০/১২ ঘন্টা গরম রাখা যায়। সুতরাং মুতাকিফ ইচ্ছা করলে হটকেস্ এর মাধ্যমে দিনের বেলাই রাতের আহারাদি সংগ্রহ করে নিতে পারেন। দিনের বেলায় অন্যের সাহায্য পাওয়াও সহজ।

কোন কোন কারণে এ’তেকাফ বাতিল হয় :
ক) শরিয়তসম্মত কারণ ছাড়া এক মুহূর্তকাল মসজিদের বাইরে থাকলে এতেকাফ বাতিল হয়ে যাবে। খ) রোজা ভেঙ্গে গেলে সঙ্গে সঙ্গে এতকাফও নষ্ট হয়ে যায়। গ) দীর্ঘসময় বেহুশ হয়ে থাকলে এতেকাফ নষ্ট হয়ে যায়। ঘ) এ’তেকাফের অবস্থায় স্ত্রী সহবাস করলে এ’তেকাফ নষ্ট হয়ে যাবে। ঙ) স্ত্রীলোক এ’তেকাফে বসার পর নেফাছ বা মাসিক রোগ দেখা দিলে এ’তেকাফ বাতিল হয়ে যাবে।

এ’তেকাফের মকরূহসমূহ :
ক) চুপ করে থাকা এবাদত মনে করে নির্বাক হয়ে থাকা মকরূহ। খ) অযথা বেশি কথা বলাও মকরূহ। গ) জিনিসপত্র মসজিদে হাজির করে ক্রয়-বিক্রয় করা মকরূহ। ঘ) মসজিদের ভিতরে বিড়ি, সিগারেট পান করা মকরূহ। ধূমপানের প্রতি বেশি আসক্ত হলে প্রস্রাব, পায়খানায় যাওয়ার পথে ধূমপান সেরে নেবেন, (ফতাওয়ার রশিদীয়া), তবে মুখে দুর্গন্ধ দূরীকরণের ব্যবস্থা করতে হবে। তবে এই সুযোগে ধূমপানের যত বদ অভ্যাস বর্জন করা উচিৎ। এই দৃঢ় সদিচ্ছা এই বদ অভ্যাস পরিহারে যথেষ্ট।- আসুন, আমরা সময় করে এ’তেকাফ করি এবং অশেষ সওয়াব ও মহানর আল্লাহর নৈকট্য লাভ করি।
উত্তর দিচ্ছেন : আফতাব চৌধুরী



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

আরও পড়ুন