Inqilab Logo

শনিবার, ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১০ আশ্বিন ১৪২৮, ১৭ সফর ১৪৪৩ হিজরী

দক্ষিণাঞ্চলে ডায়রিয়া পরিস্থিতি জনমনে স্বস্তি দিচ্ছে না, ৪৮ ঘন্টায় আক্রান্ত আরো প্রায় ৮শ

বরিশাল ব্যুরো | প্রকাশের সময় : ২০ মে, ২০২১, ২:৪৮ পিএম

তাপমাত্রার পারদ বৃদ্ধির সাথে দক্ষিণাঞ্চলে পেটের পীড়া সহ ক্রমবর্ধমান ডায়রিয়া পরিস্থিতি এখনো জনমনে স্বস্তি দিচ্ছে না। গত সাড়ে ৪ মাস ধরে বৃষ্টিপাতের পরিমান স্বাভাবিকের ৯৯ভাগ পর্যন্ত কম থাকায় উজনের প্রবাহ হ্রাসের ফলে বঙ্গোপসাগরের জোয়রে উঠে আসা লবনাক্ত পানিতে সয়লাব দক্ষিণাঞ্চলের নদ-নদী ও খাল বিল। ফলে ওজু গোসল সহ গৃহস্থলি কজে এসব পানি ব্যবহারে নানা ধরনের পেটের পীড়া বাড়ছে। পাশাপাশি দুঃসহ গরমেও ডায়রিয়া সহ নান ধরনের পেটের পীড়া বাড়ছে। ইতোমধ্যে বরিশালে তাপমাত্রার পাারদ সর্বকালের রেকর্ড ছাপিয়ে ৩৮.৮ ডিগ্রী সেলসিয়াসে পৌছে গেছে।
আর সরকারী হিসেবেই ইতোমধ্যে দক্ষিনাঞ্চলের বিভিন্ন জেলা উপজেলা হাসপাতালে প্রায় ৫৫ হাজারের বেশী ডায়রিয়া আক্রান্ত নারী-পুরুষ ও শিশু চিকিৎসার জন্য এসেছেন। ইতোমধ্যে মৃত্যু হয়েছে ২১ জনের। বৃহস্পতিবার দুপুরের পূর্ববর্তি ৪৮ ঘন্টায়ই দক্ষিণাঞ্চলের ৬ জেলায় আরো প্রায় ৮শ নারী-পুরুষ শিশু ডায়রিয়ায় আক্রান্ত হয়েছেন। এরমধ্যে বুধবার দুপুরের পূর্ববর্তি ২৪ ঘন্টায় আক্রান্তের সংখ্যা ছিল ৪২১ জন। আর বৃহস্পতিবারে সংখ্যাটা ছিল ৩৭৩।
এখনো দক্ষিণাঞ্চলে ৬ জেলার মধ্যে আক্রান্তের সংখ্যার শীর্ষে রয়েছে দ্বীপ জেলা ভোলা। ইতোমধ্যে জেলায় আক্রান্তের সংখ্যা প্রায় ১৪ হাজার ৭শ। মারা গেছেন দুজন। গত ৪৮ ঘন্টায় জেলাটিতে নতুন অক্রান্তের সংখ্যা ২৩৪ । পটুয়াখালীতেও ইতোমধ্যে ডায়রিয়ায় ৮ জনের মৃত্যু ছাড়াও আক্রান্তের সংখ্যা প্রায় সাড়ে ১১ হাজার। গত ৪৮ ঘন্টায় জেলাটিতে চিকিৎসা নিয়েছেন আরো ১১৫ জন ডায়রিয়া রোগী। বরগুনাতেও গত ৪৮ ঘন্টায় নতুন ১১৪ জন সহ মোট ডায়রিয়া আক্রান্তের সংখ্যা প্রায় ৮ হাজার ৬শ। জেলাটিতে ইতোমধ্যে ৫ জন ডায়রিয়া আক্রান্তের মৃত্যুর কথা জানিয়েছে স্বাস্থ্য বিভাগ। পটুয়াখালী ও বরগুনার খালের পানিতে ডায়রিয়ার জীবানু সহ মলের অস্তিত্ব পেয়েছেন আইইডিসিআর-এর পর্যবেক্ষক দল।
বরিশাল বিভাগীয় সদরেও এপর্যন্ত ৫ জনের মৃত্যুর সাথে ডায়রিয়া আক্রান্তের সংখ্যা প্রায় সাড়ে ৭ হাজর। গত ৪৮ ঘন্টায় আক্রান্ত হয়েছেন ১০৯ জন। পিরোজপুরেও এসময়ে নতুন ১৪৪ জন সহ মোট আক্রান্তের সংখ্যা প্রায় ৭ হাজার ৩শ। আর দক্ষিনাঞ্চলের সবচেয়ে ছোট জেলা ঝালকাঠীতে গত ৪৮ ঘন্টায় ৭৮ জন সহ এপর্যন্ত আক্রান্তের সংখ্যা ৬ হাজারের ওপরে।
প্রতিদিনই দক্ষিনাঞ্চলের প্রতিটি জেলা উপজেলাতে ডাযরিয়া আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে চলেছে। এ অঞ্চলের সবগুলো সরকারী হাসপাতাল এখনো ডায়রিয়া রোগীতে ঠাশা। এমনকি বারিশাল জেনারেল হাসপাতালের ৪ শয্যার ডায়রিয়া ওয়ার্ডে এখনো প্রতিদিন গড়ে ২৫ জন করে রোগী চিকিৎসাধীন থাকছেন।
তবে বরিশাল বিভাাগীয় স্বাস্থ্য দপ্তরের মতে ডায়রিয়ার প্রকোপ আগের চেয়ে অনেকটাই হ্রাস পেয়েছে। চিকিকৎসা ব্যাবস্থা নিশ্চিত করনে সব ধরনের ব্যবস্থা গ্রহন করা হয়েছে। প্রতিটি জেলা ও উপজেলা হাসপাতালে পর্যাপ্ত আইভি স্যলাইন সহ সব ধরনের চিকিৎসা সহায়ক সামগ্রীর পর্যপ্ত মজুত রয়েছে বলেও জানিয়েছেন বিভাগীয় পরিচালক ডাঃ বাসুদেব কুমার সাহা।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

আরও পড়ুন