Inqilab Logo

ঢাকা, সোমবার, ২৩ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ৮ আশ্বিন ১৪২৬, ২৩ মুহাররম ১৪৪১ হিজরী

অনূর্ধ্ব-১৮ এশিয়া কাপ হকি লক্ষ্য গ্রুপ পর্বের হার্ডল পেরুনো

প্রকাশের সময় : ১৮ সেপ্টেম্বর, ২০১৬, ১২:০০ এএম

স্পোর্টস রিপোর্টার : সব প্রস্তুতি সম্পন্ন। আর মাত্র ছয় দিন পরই ঢাকার মওলানা ভাসানী জাতীয় হকি স্টেডিয়ামের নীল টার্ফে বসছে পুরুষ অনূর্ধ্ব-১৮ এশিয়া কাপ হকি টুর্নামেন্টের চতুর্থ আসর। ২৪ সেপ্টেম্বর শুরু হওয়া সাত জাতির এই টুর্নামেন্টে স্বাগতিক বাংলাদেশের লক্ষ্য গ্রæপ পর্ব উতরানো। আসরে অংশ নেয়া দলগুলো দু’টি পুলে ভাগ হয়ে খেলবে। ‘এ’ পুলে আছে- ভারত, ওমান ও স্বাগতিক বাংলাদেশ। ‘বি’ পুলের দলগুলো হলো- পাকিস্তান, চীন, চাইনিজ তাইপে ও হংকং। তবে এবারের জুনিয়র এশিয়া কাপে অংশগ্রহণ করছে না হকির দুই শক্তিশালী দেশ কোরিয়া ও মালয়েশিয়া। খেলার ফিকশ্চার অনুযায়ী ২৪ সেপ্টেম্বর বেলা ৩ টায় লাল-সবুজরা নিজেদের প্রথম ম্যাচে শক্তিশালী ভারতকে মোকাবিলা করবে। ২৭ সেপ্টেম্বর একই সময়ে ওমানের বিপক্ষে টার্ফে নামবে বাংলাদেশ।
টুর্নামেন্ট সুষ্ঠভাবে শেষ করতে বাংলাদেশ হকি ফেডারেশন নানা পদক্ষেপ গ্রহণ করেছে। তারা ছয় বিদেশী দলকে পর্যাপ্ত নিরাপত্তা দেয়ার জন্য বদ্ধপরিকর। বিদেশী দলগুলোর নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে ইতোমধ্যে আন্তমন্ত্রণালয় সভাও করেছেন হকি ফেডারেশন কর্তারা।
আসরকে সামনে রেখে গত ১২ জুলাই থেকে বাংলাদেশ ক্রীড়া শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের (বিকেএসপি) টার্ফে অনুশীলন শুরু করে বাংলাদেশ অনুর্ধ্ব-১৮ হকি দল। এখানেই দু’মাসের অনুশীলন ক্যাম্পে ছিলেন খেলোয়াড়রা। নিবিড় অনুশীলন শেষে আগামীকাল সাভারের বিকেএসপি থেকে ঢাকায় ফিরে আসবে দলটি। মঙ্গলবার মওলানা ভাসানী জাতীয় হকি স্টেডিয়ামের টার্ফে শেষ মুহুর্তের অনুশীলনে নামবে লাল-সবুজের দল। বিকেএসপিতে দলের প্রস্তুতি ভালোই হয়েছে বলে জানান এখানকার কোচ ও বাংলাদেশ অনুর্ধ্ব-১৮ দলের ম্যানেজার কাউসার আলী। দল নিয়ে তিনি আশাবাদি। কাউসার আলী বলেন, ‘টুর্নামেন্টে আমাদের প্রথম লক্ষ্য গ্রæপ পর্ব উতরে যাওয়া। আশাকরি স্বাগতিক সুবিধা নিয়ে ফাইনাল পর্যন্ত যেতে পারবো আমরা।’ তিনি আরও বলেন, ‘এ’ পুলে আমাদেরকে খেলতে হবে ভারত ও ওমানের বিপক্ষে। ভারত তো সব সময়ই শক্ত দল। তবে এবার ওমানও শক্তিশালী দলের আখ্যা পেয়েছে। তাই আমাদেরকে নিজেদের সেরাটাই ঢেলে দিতে হবে। ওমান শক্তিশালী হয়ে ওঠার কারণ হলো তাদের এই দলটিতে জাতীয় দলে খেলা ৫/৬ জন খেলোয়াড় রয়েছেন। সেটাই কাল হতে পারে আমাদের জন্য। গ্রæপ পর্ব পেরুলেও আমাদের সামনে আসতে পারে আরেক শক্তিশালী দেশ পাকিস্তান। তাই খুব বড় আশা নিয়ে আমরা মাঠে নামতে চাই না। তবে ছেলেরা তাদের সর্বোচ্চ দিয়ে চেষ্টা করবে লক্ষ্য পূরণে।’ টুর্নামেন্ট শুরু করার আগে ভারত গিয়ে বাংলাদেশ অনুর্ধ্ব-১৮ দলের অনুশীলন ম্যাচ খেলার কথা থাকলে তা আর হয়ে ওঠেনি। এ প্রসঙ্গে কাউসার বলেন, ‘ভারতে গিয়ে ৩/৪টি ম্যাচ খেলার কথা ছিল। কিন্তু সেখান থেকে দেরিতে সাড়া পাওয়ায় আমরাদের আর যাওয়া হয়নি। তবে ওই ম্যাচগুলো খেলা আমাদের জন্য খুবই জরুরী ছিল।’ ছয় দিনব্যাপী এ টুর্নামেন্টটি শেষ হবে আগামী ৩০ সেপ্টেম্বর।
এদিকে টুর্নামেন্টকে সামনে রেখে মওলানা ভাসানী স্টেডিয়ামের ফ্লাড লাইট ও কিছু সংস্কারের জন্য ১০ কোটির অধিক অর্থ সরকারের কাছ থেকে বরাদ্দ পেলেও এখনো তা হাতে পায়নি হকি ফেডারেশন। এ বিষয়ে হকি ফেডারেশনের সহ-সভাপতি খাজা রহমতউল্লাহ বলেন, ‘জাতীয় ক্রীড়া পরিষদ এখনো অর্থ হাতে পেয়েছে কিনা আমরা জানি না। অর্থ পেলেও প্রায় ছয়মাস সময় লাগবে। আর যদি জটিলতা তৈরী হয়, তাহলে এক বছরও সাময় লেগে যেতে পারে।’



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

আরও পড়ুন