Inqilab Logo

বুধবার, ০৪ আগস্ট ২০২১, ২০ শ্রাবণ ১৪২৮, ২৪ যিলহজ ১৪৪২ হিজরী

ইতালিতে কেবলকার দুর্ঘটনায় নিহত ১৪

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ২৫ মে, ২০২১, ১২:০২ এএম

ইতালির উত্তরের লেক মাজ্জোরের কাছে পাহাড়ি এলাকায় একটি কেবল কার ছিঁড়ে পড়ে অন্তত ১৪ নিহত এবং আরো তিন জন গুরুতর আহত হয়েছেন। আহতদের মধ্যে দুইটি শিশু আছে। তাদের হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। স্ত্রেসা-মোত্তারোন কেবল কার সার্ভিস লেক মাজ্জোর উপর দিয়ে স্ত্রেসা শহর থেকে মোত্তারোন পাহাড়ে পর্যটক এবং স্থানীয় বাসিন্দাদের পরিবহন করে। সমুদ্রপৃষ্ঠ থেকে প্রায় ১৪শ মিটার উপর দিয়ে ওই কেবল কার যাতায়াত করে। রোববার দুপুরের ঠিক পরপর স্থানীয় রেসকিউ সার্ভিসে ফোন করে এ দুর্ঘটনার খবর জানানো হয়। স্ত্রেসার মেয়র মারসেল্লা সেভেরিনো বলেন, ‘‘প্রচন্ড কষ্টে আমাদের হৃদয় বিধ্বস্ত।” দুর্ঘটনার সময় কেবল কারটি স্ত্রেসা শহর থেকে মোত্তারোন পাহাড়ের চ‚ড়ায় যাচ্ছিল। কারটি প্রায় ২০ মিটার উপর থেকে ছিঁড়ে পড়ে এবং পাহাড়ি ঢালে কয়েকবার গড়ান দিয়ে গাছের সঙ্গে আটকে যায় বলেও জানান মেয়র। ইতালির আলপিনো রেসকিউ সার্ভিসের একজন মুখপাত্র বার্তা সংস্থা রয়টার্সকে বলেন, ‘‘ছিঁড়ে পড়ার সময় সেটি সর্বশেষ পিলারের ঠিক আগের পিলারটির কাছে ছিল। হতাহতরা কোন দেশের নাগরিক তা এখনো নিশ্চিত হওয়া যায়নি।” আলপিনো রেসকিউ সার্ভিসের আরেক মুখপাত্র একটি টেলিভিশন চ্যানেলকে বলেন, ‘‘দুর্ঘটনার পর গুরুতর আহত দুই শিশু এবং একজন প্রাপ্ত বয়স্ককে হেলিকপ্টারে করে তুরিনের হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়েছে।” কেবল কারে কতজন যাত্রী ছিলেন তা নিশ্চিত হওয়া যায়নি বলে জানান ফায়ার ব্রিগেডের মুখপাত্র লুকা কারি। তিনি বলেন, ‘‘আমাদের দল এখনো মৃতদেহ উদ্ধারের কাজ করছে। কারে ঠিক কতজন যাত্রী ছিল তা নিশ্চিত হওয়া যায়নি।” কেবল কারটি ছিঁড়ে পড়ে গড়িয়ে যাওয়ার সময় কেউ কেউ সেটি থেকে বাইরে ছিটকে পড়েন বলে জানা গেছে। মাত্র কদিন আগেই কোভিড-১৯ মহামারীর কারণে আরোপ করা বিধিনিষেধ তুলে নেওয়ার পর স্ত্রেসা-মোত্তারোন কেবল কার সার্ভিস যাত্রী পরিবহন শুরু করে। মোত্তারোন পাহাড়ের চ‚ড়া পর্যটকদের কাছে খুবই জনপ্রিয়। বিবিসি, সিএনএন।

 



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: ইতালি


আরও
আরও পড়ুন