Inqilab Logo

ঢাকা, শনিবার, ১৯ অক্টোবর ২০১৯, ০৩ কার্তিক ১৪২৬, ১৯ সফর ১৪৪১ হিজরী

এক সপ্তাহে অর্ধশতাধিক জেলে অপহৃত সুন্দরবনে অপ্রতিরোধ্য বনদস্যু

প্রকাশের সময় : ৩০ এপ্রিল, ২০১৬, ১২:০০ এএম

এ.টি.এম. রফিক/ আবু হেনা মুক্তি : সুন্দরবনে মুক্তিপণের দাবিতে ফ্রি স্টাইলে জেলেদের অপহরণ করে চলেছে বনদস্যু জাহাঙ্গীর ও সাগর বাহিনীর সদস্যরা। বর্তমানে সুন্দরবনে ওই দুই বাহিনীর হাতে মাত্র এক সপ্তাহর মধ্যে তিন দফায় অপহৃত হয়েছেন ৫৫ জেলে। দুইদিনের ব্যবধানে সর্বশেষ বৃহস্পতিবার রাতে জাহাঙ্গীর বাহিনীর সদস্যরা সুন্দরবনের দুধমুখি ও ভাইজোড়া খাল থেকে আরও ১২ জেলেকে মুক্তিপণের দাবিতে অপহরণ করেছে।
অপ্রতিরোধ্য হয়ে উঠেছে বনদস্যু জাহাঙ্গীর ও সাগর বাহিনীর সদস্যরা। শত চেষ্টা করেও এ দুই বনদস্যু বাহিনীর নাগাল পাচ্ছে না আইন-শৃঙ্খলা রক্ষা বাহিনীর সদস্যরা। উল্লেখ্য, গত ৮ সেপ্টেম্বর বনদস্যু শান্ত ও আলম বাহিনীর ১৪ সদস্যের দু’টি দল স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর হাতে ২০টি দেশী-বিদেশী আগ্নেয়াস্ত্র ও সহস্রাধিক গুলি জমা দিয়ে আত্মসমার্পণ করে। এরআগে, গত ১৪ জুলাই বনদস্যু ইলিয়াছ ও মজনু বাহিনীর ১১ জন ২৫টি অস্ত্র ও সহস্রাধিক গুলি জমা দিয়ে আত্মসমর্পণ করেছিল। ৩১ মে অর্ধশতাধিক আগ্নেয়াস্ত্র ও ৫ সহস্রাধিক গোলাবারুদ জমা দিয়ে চলতি বছরে সর্বপ্রথম আত্মসমর্পণ করেছিল মাস্টার বাহিনী প্রধানসহ ১০ জন বনদস্যু।
সংশ্লিষ্ট সূত্রমতে, বর্তমানে সুন্দরবন দাপিয়ে বেড়াচ্ছে জাহাঙ্গীর ও সাগর বাহিনী। বনদস্যু জাহাঙ্গীর বাহিনীর সদস্যরা গত ১৪ সেপ্টেম্বর বাগেরহাটের পূর্ব সুন্দরবনের চাঁদপাই রেঞ্জের হাড়বাড়িয়া সংলগ্ন ধানসিদ্ধির চর এলাকা থেকে ২০ জেলেকে অপহরণ করে। গত ৯ সেপ্টেম্বর ঠিক একই জায়গা থেকে বনদস্যু সাগর বাহিনীর হাতে অপহরণের শিকার হয় আরও ২৩ জেলে। সর্বশেষ বৃহস্পতিবার রাত ১০টার দিকে জাহাঙ্গীর বাহিনীর সদস্যরা সুন্দরবনের দুধমুখি ও ভাইজোড়া খাল থেকে আরও ১২ জেলেকে মুক্তিপণের দাবিতে অপহরণ করে। তবে অপহৃত এসকল জেলেদের বেশ ক’জন মুক্তিপণ দিনে ফিরে এসেছে বলে জেলেরা দাবি করছে।
কোস্টগার্ডের সূত্র জানায়, বৃহস্পতিবার রাতে বনদস্যু জাহাঙ্গীর বাহিনীর সদস্যরা সুন্দরবনের পশ্চিম বিভাগের দুধমুখি ও ভাইজোড়া খালে মাছ আহরণকালে জেলেদের উপর হামলা চালায়। এ সময় বনদস্যুরা জেলেদের মারপিট করে নৌকায় থাকা মাছ, জ্বালানি তেলসহ বিভিন্ন মালামাল লুট করে ১২ জেলেকে মুক্তিপণের দাবিতে অপহরণ করে। বনদস্যুদের হাতে অপহৃত জেলেদের বাড়ি সুন্দরবন সংলগ্ন খুলনার কয়রা উপজেলার বিভিন্ন গ্রামে।
নতুন করে জেলে অপহরণের বিষয়ে জানতে চাইলে মংলা কোস্টগার্ড পশ্চিম জোনের অপারেশন অফিসার লেঃ এম ফরিদউজ্জামান বলেন, বিভিন্ন মাধ্যমে দুধমুখি ও ভাইজোড়া খাল এলাকা থেকে জেলে অপহরণের খবর পেয়ে শুক্রবার ভোর থেকেই কোস্টগার্ড সদস্যরা জেলেদের উদ্ধারে সুন্দরবনের হারবাড়িয়া, নলিয়ান ও কোকিলমণির এলাকায় অভিযান চালাচ্ছে।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

আরও পড়ুন