Inqilab Logo

বুধবার, ০৪ আগস্ট ২০২১, ২০ শ্রাবণ ১৪২৮, ২৪ যিলহজ ১৪৪২ হিজরী

শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে বাংলাদেশের বাজে পারফরমেন্সে সামাজিক মাধ্যমে সমালোচনা

সোশাল মিডিয়া ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ২৯ মে, ২০২১, ৯:২৯ পিএম

তিন ম্যাচ সিরিজের তৃতীয় ও শেষ ওয়ানডেতে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে বাংলাদেশের বাজে পারফরমেন্সের সমালোচনা করেছেন নেটিজেনরা। ৯৭ রানে হারের পর সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে বাংলাদেশ দলের সমালোচনায় মেতে ওঠেন ভক্তরা। ফেসবুকে পোস্ট দিয়ে এ নিয়ে ক্ষোভ জানিয়েছেন ক্রিকেট প্রেমীরা।

শুক্রবার সিরিজের তৃতীয় ও শেষ ওয়ানডেতে ২৮৭ রানের লক্ষ্যে মাঠে নেমে ৪২ ওভার ৩ বলে ১৮৯ রান করে গুটিয়ে যায় বাংলাদেশ। এ দিন ওয়ান ডাউনে মাঠে নেমে ব্যর্থতার পরিচয় দিয়েছেন অলরাউন্ডার সাকিব আল হাসান। সাত বলে মাত্র ৪ রানে ক্যাচ আউট হয়ে সাজঘরে ফিরেছেন তিনি। এরপর দশম ওভারের দ্বিতীয় বলটাতে তামিম আউট হয়েছেন ২৯ বলে ১৭ রান করে।

সতীর্থদের ব্যর্থতার দিনে আগের দুই ম্যাচে ভালো খেলা মুশফিকের ব্যাটে আশা জাগালেও ২৪তম ওভারে রমেশ মেন্ডিসের বলে ক্যাচ দিয়ে মাঠ ছাড়েন তিনি। এ দিন ৫৪ বলে ২৮ রানের ইনিংস খেলেন উইকেটকিপার ব্যাটসম্যান। এরপর আশা জাগিয়ে সাজঘরে ফেরেন মোসাদ্দেক হোসেন সৈকতও। ৭১ বলে ৫১ রান করে রমেশ মেন্ডিসের বলে ক্যাচ তুলে আউট হন তিনি। ঠিক সৈকতের পথেই পা বাড়ান আফিফ হোসেন। এরপর শূন্য রানেই মাঠ ছাড়েন মেহেদী হাসান মিরাজ। একই ওভারের পঞ্চম বলে বোল্ড আউট হন তাসকিন আহমেদ। এরপর ৪ বলে ৮ রান করে স্ট্যাম্পিং আউট হন শরিফুল। শেষে মুস্তাফিজকে নিয়ে মাহমুদুল্লাহও বেশিক্ষণ টিকতে পারেননি। ৪৩তম ওভারের ৩ নম্বর বলে ক্যাচ তুলে দিয়ে খেলা শেষ করেন মাহমুদুল্লাহ।

বাংলাদেশ দলের এমন বাজে পারফরমেন্স নিয়ে ফেসবুকে মোঃ এনায়েত হোসাইন লিখেছেন, ‘‘আজকে মুশফিক কিছু করতে পারে নাই। তার জন্য আজ আমরা ম্যাচ হেরেছি খুব বাজে ভাবে। এ ধরনের ওয়ান ম্যান শো খেলা ,বাংলাদেশ যে কবে পরিবর্তন করতে পারবে?? আল্লাহই ভাল জানেন । আর বাংলাদেশের প্লেয়ারদের এখনো কি শেখার আছে আমার জানা নেই। একজন প্লেয়ার এতগুলো ম্যাচ খেলার পরেও দলের প্রয়োজনে কিছু করতে পারে না। আর আরেকটি কথা বাংলাদেশ অনূর্ধ্ব ১৯ বিশ্বকাপ জয়লাভ করেছে মানে এটা নয় বাংলাদেশের পাইপ লাইনে অনেক প্লেয়ার আছে। আমার তো মনে হয় অনূর্ধ্ব ১৯ বিশ্বকাপ জয় লাভ করা বাংলাদেশের একটা মিরাক্কেল ছিল। অথচ বিশ্বের সবগুলো দেশের অবস্থা দেখেন। বর্তমানে তারা কত ভালো মানের প্লেয়ার প্রডিউস করে। আর বাংলাদেশের দিকে তাকান। পঞ্চম পান্ডের যুগ শেষ হয়ে গেলে বাংলাদেশ ক্রিকেটে টিকে থাকতে পারবে কিনা সেটা নিয়ে সন্দিহান। বাংলাদেশ ক্রিকেট দলের ভবিষ্যৎ দেখার অপেক্ষায় রইলাম, আপনারাও দেখতে থাকেন।’’

হতাশা প্রকাশ করে হুমায়ুন কবির রুবেল লিখেছেন, ‘‘শ্রীলঙ্কা বিপক্ষে সিরিজটা ভাগ্যক্রমে জয়লাভ করছে বাংলাদেশ ,, মূলত খেলার মানের কোনো উন্নতি হয়নি। মুশফিক ও রিয়াদ ব্যতীত কারও কাছ থেকে দায়িত্বশীল ভূমিকা পালন করতে দেখিনি।নতুন যাদের সুযোগ দেওয়া হয় তারাও পুরোপুরি ব্যর্থ।’’

বাবুল হোসাইন ইব্রাহিম লিখেছেন, ‘‘নাইম শেখ এর জন্য আফসোস! ইমরুলকে এরা ফিরিয়ে আনবেই মনে হচ্ছে! সাকিব এর এরুপ ফর্মহীনতা আগে কখনো দেখি নি। আফিফকে ভালো মনে হয়েছিল। মোসাদ্দেককেও ভালো লাগে কিন্তু..সবশেষে লিটন, সৌম্যর রাজসিক প্রত্যাবর্তন আশা করছি। ভালো থাকো বাংলাদেশ!’’

মোঃ কাজী রাসেল লিখেছেন, ‘‘মেহেদীর ৩ ম্যাচের ব্যাটিং থেকে রান আসল ০। তার ব্যাটিং স্টাইল দেখে মনে হয় সে একজন বোলার। সাকিবের ব্যাটিং পুরাই হতাশাজনক। তামিমের ব্যাটিংও এতোটা সুবিধা দেখছি না।ভবিষ্যৎ বাংলাদেশ ক্রিকেট নিয়ে আমি ব্যক্তিগত ভাবে হতাশ।’’

এম কাওছার আহমেদের মন্তব্য, ‘‘সেই নব্বই দশকের মুশফিক, তামিম, সাকিব আর মাহমুদউল্লাহ'ই দিনশেষে পুরো দলের ঘানি টানতে হচ্ছে। ২১ সালে এসেও নতুন কেউ দলের ভরসা হয়ে উঠতে পারেনি! আফসোস।’’

বাংলাদেশের হারে মোঃ ফাহিম মাহফুজ লিখেছেন, ‘‘৩ ম্যাচেই ব্যাটিং এ টপ অর্ডার যেভাবে মাঠে গিয়ে পা কাপাকাপি করেছে,৩ ম্যাচেই মুশফিক আর মাহমুদউল্লাহ না থাকলে এই ব্যাটিং অর্ডার নিয়ে তো ১৫০ ই করার সামর্থ্য রাখে না। আবার স্বপ্ন দেখে হোয়াইটওয়াশের। সিরিজ যে হারে নাই এই ব্যাটিং অর্ডারের কারণে তাতেই শুকরিয়া করে খুশি থাকেন।’’

জাফর ইমাম লিখেছেন, ‘‘সাধারণত যারা ২-০ তে সিরিজ জিতে তারা অনায়াসে ৩-০তে সিরিজ জিতে কারণ লাস্ট ম্যাচ থাকে চাপমুক্ত টেনশন মুক্ত আর বাংলাদেশকে দেখছি সবসময় ম্যাচকে কঠিন করে তোলে,, আর আজকের ম্যাচে জিতার কোন চেষ্টাই দেখলামনা.।’’



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: ক্রিকেট


আরও
আরও পড়ুন