Inqilab Logo

সোমবার, ২৫ অক্টোবর ২০২১, ০৯ কার্তিক ১৪২৮, ১৭ রবিউল আউয়াল সফর ১৪৪৩ হিজরী
শিরোনাম

শিক্ষার্থীদের দমিয়ে রাখতেই প্রতিষ্ঠান বন্ধ রাখা হয়েছে

ছাত্র-শিক্ষক সমাবেশে আসিফ নজরুল

স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ৩১ মে, ২০২১, ১২:০৪ এএম

শিক্ষার্থীদের দমিয়ে রাখতেই শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধ রাখা হয়েছে বলে মন্তব্য করেছেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের (ঢাবি) আইন বিভাগের অধ্যাপক ড. আসিফ নজরুল। তিনি বলেছেন, গার্মেন্টস খোলা আছে। ব্যবসাপ্রতিষ্ঠান খোলা। চালু রয়েছে গণপরিবহনও। যথারীতি মার্র্কেট, শপিংমল খোলা আছে। অর্থাৎ বন্ধ নেই কোনো কিছুই। সবই খোলা আছে। উৎসব হচ্ছে। বিভিন্ন আয়োজনও হচ্ছে। কিন্তু বন্ধ শুধু আমাদের বিশ্ববিদ্যালয়, স্কুল-কলেজ। যদিও বলা হয়, শিক্ষা হচ্ছে জাতির মেরুদণ্ড। কিন্তু এই সরকারের কাছে শাসন হচ্ছে জাতির মেরুদণ্ড। তিনি বলেন, শির্ক্ষার্থীদের দমিয়ে রাখতেই শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ রাখা হয়েছে। গতকাল রোববার দুপুরে ‘হল ও শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খুলে দাও আন্দোলন’ আয়োজিত ঢাবির সন্ত্রাসবিরোধী রাজু ভাস্কর্যের সামনে অনুষ্ঠিত এক ছাত্র-শিক্ষক সমাবেশে তিনি সরকারের বিরুদ্ধে এ অভিযোগ করেন।

ছাত্রছাত্রীদের সমাবেশে সংহতি জানিয়ে ড. আসিফ নজরুল আরো বলেন, শাসনের জন্য সরকার সবই করতে পারে। কিন্তু শিক্ষার জন্য করবে না। কারণ শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ থাকলে শিক্ষার্থীদের দমিয়ে রাখা যাবে। তারা কোনো প্রতিবাদ করতে পারবে না। এটা ছাড়া আর কোনো কারণ দেখি না। আমার মনে হয়, সম্ভব হলে সরকার আগামী নির্বাচন পর্যন্ত শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধ রাখবে। আমি এর তীব্র নিন্দা জানাই। অবিলম্বে সব শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খুলে দেয়ার আহ্বান জানাচ্ছি। সমাবেশে শিক্ষক-শিক্ষার্থীরা স্বাস্থ্যবিধি মেনে সব শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান ও আবাসিক হল খুলে দেয়ার দাবি জানান।

সমাবেশে সংহিত জানিয়ে ঢাবির ফারসি ভাষা ও সংস্কৃতি বিভাগের শিক্ষক অধ্যাপক ড. আরিফ বিল্লাহ বলেন, পৃথিবীতে আর একটি দেশও পাবেন না যেখানে ছাত্ররা ক্লাস করতে চায়। আমাদের দেশের ছাত্ররা এর জন্য সংগ্রাম করছে।

সমাবেশে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী বলেন, স্বাস্থ্যবিধি মেনে যদি মার্কেট, শপিংমল, দোকানপাট, গণপরিবহন চলতে পারে তাহলে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানও অবশ্যই চলতে পারবে। কারণ তাদের চেয়ে শিক্ষার্থীরা আরো বেশি সচেতন। তারা বলেন, সবকিছু খোলা রেখে শুধু শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ রাখার কোনো মানেই হয় না। এটা সম্পূর্ণ অযৌক্তিক। আমরা অতি দ্রুত ক্যাম্পাসে ফিরতে চাই। কর্তৃপক্ষের কাছে আমাদের অনুরোধ, সেশনজট না বাড়িয়ে অবিলম্বে ক্লাসে ফেরার ব্যবস্থা করুন। কোটি ছাত্রছাত্রীর জীবন রক্ষা করুন। ##



 

Show all comments
  • মো মনির ভূইয়া ৩১ মে, ২০২১, ৯:০৩ এএম says : 0
    সবকিছুস্বাভাবিক রেখে শুধু শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধ রেখে সরকার কীভাবে করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ রোধ করে? অনতিবিলম্বে শিক্ষা প্রতিষ্ঠান খোলার জোর দাবি জানাচ্ছি। আমরা স্বাস্থ্য বিধি মেনে ক্লাস করতে পারব ইনশাআল্লাহ। বাড়িতে থাকলে আমরা নিরাপদ থাকব এটা বৈজ্ঞানিকভাবেও শুদ্ধ নয়। কারন করোনা ভাইরাস বাতাসে ছড়ায়। আর বাতাস শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে যেমন আছে তেমনি বাড়িতেও আছে।
    Total Reply(0) Reply
  • মো মনির ভূইয়া ৩১ মে, ২০২১, ৯:০২ এএম says : 0
    সবকিছুস্বাভাবিক রেখে শুধু শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধ রেখে সরকার কীভাবে করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ রোধ করে? অনতিবিলম্বে শিক্ষা প্রতিষ্ঠান খোলার জোর দাবি জানাচ্ছি। আমরা স্বাস্থ্য বিধি মেনে ক্লাস করতে পারব ইনশাআল্লাহ। বাড়িতে থাকলে আমরা নিরাপদ থাকব এটা বৈজ্ঞানিকভাবেও শুদ্ধ নয়। কারন করোনা ভাইরাস বাতাসে ছড়ায়। আর বাতাস শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে যেমন আছে তেমনি বাড়িতেও আছে।
    Total Reply(0) Reply
  • মোঃ+দুলাল+মিয়া ৩১ মে, ২০২১, ৪:৩০ এএম says : 0
    13তারিখে স্কুল কলেজ ইউনিভার্সিটি না খুলিলে ছাত্র ছাত্রী অভিভাবকদের রাস্তায় নামতে হবে,
    Total Reply(0) Reply
  • মোঃ+দুলাল+মিয়া ৩১ মে, ২০২১, ৫:১২ পিএম says : 0
    আমাদের দেশের থেকে আরো 50গুন বেশি যে সমস্ত দেশে সেখানে স্কুল কলেজ ইউনিভার্সিটি বন্ধ নেই।
    Total Reply(0) Reply

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ
গত​ ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ