Inqilab Logo

রোববার, ২৯ মে ২০২২, ১৫ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯, ২৭ শাওয়াল ১৪৪৩ হিজরী
শিরোনাম

ছয় হাজার পয়েন্ট পার হয়েছে ডিএসইর সূচক

অর্থনৈতিক রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ৩০ মে, ২০২১, ১১:৫৯ পিএম

দিনভর কয়েক দফা ওঠানামার পর শেষ পর্যন্ত সপ্তাহের প্রথম দিন সূচক ঊর্ধ্বমুখী থাকায় দেশের প্রধান পুঁজিবাজার ডিএসইর সূচক ছয় হাজার পয়েন্ট পার হয়েছে। গতকাল ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জের (ডিএসই) প্রধান সূচক ডিএসইএক্স আগের দিন থেকে ২২ দশমিক ৮৮ পয়েন্ট বা দশমিক ৩৮ শতাংশ বেড়ে ৬ হাজার ৮ দশমিক ৬৯ পয়েন্টে অবস্থান করছে।

এই সূচক প্রায় সাড়ে ৩৯ মাসের মধ্যে বেশি। এর আগে এর চেয়ে বেশি সূচক ছিল ১৫ ফেব্রুয়ারি ২০১৮। সেদিন সূচক ছিল ৬ হাজার ৫০ পয়েন্ট। সূচক বেড়েছে দেশের অপর শেয়ারবাজার চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জেও (সিএসই)। এদিন ঢাকার পুঁজিবাজারে লেনদেন হওয়া শেয়ারের মধ্যে ৩৯ দশমিক ৫৬ শতাংশ কোম্পানির শেয়ার ও মিউচুয়াল ফান্ডের দাম বেড়েছে। তবে লেনদেন আগের দিনের তুলনায় কিছুটা কমেছে। গতকাল ডিএসইতে লেনদেন হয়েছে ৩৬৪টি কোম্পানির শেয়ার ও মিউচুয়াল ফান্ডের ইউনিট। এর মধ্যে দর বেড়েছে ১৪৪টির, কমেছে ১৭৪টির এবং অপরিবর্তিত রয়েছে ৪৬টির দর। রোববার ব্যাংক খাতের বেশিরভাগ শেয়ারের দাম কমেছে। এই কারণেই সূচকে ওঠানামা দেখা গেছে বেশি। তালিকাভুক্ত ৩১টি ব্যাংকের মধ্যে ১১টির শেয়ারের দাম বেড়েছে। দুটির দাম অপরিবর্তিত ছিল এবং বাকি ১৮টির দাম কমেছে। ব্যাংক বহির্ভ‚ত আর্থিক প্রতিষ্ঠান খাতেও বেশিরভাগের দাম কমেছে। এ খাতের তালিকাভুক্ত ২৩টি কোম্পানির মধ্যে মাত্র ৪টির শেয়ারের দাম বেড়েছে। এর বিপরীতে কমেছে ১৩টির দাম।

এদিন বীমা খাতেও দরপতন হয়েছে। এ খাতের ৫০টির মধ্যে ১৫টি কোম্পানির শেয়ারের দাম বেড়েছে। বেশিরভাগ শেয়ারের দামই বেশি হারে কমেছে। আর্থিক খাতের শেয়ারের দর হারানোর দিনে বস্ত্র খাতে বেশিরভাগ শেয়ারের দাম বেড়েছে। এই খাতে ৫৬টি কোম্পানির মধ্যে ৩২টির শেয়ারের দাম বেড়েছে। ৬ হাজার পয়েন্ট ছুঁইছুঁই অবস্থান থেকে দিন শুরু করার পর মনস্তাত্বিক কারণে দিনের বেশিরভাগ সময় সূচকে বেশ ওঠানামা দেখা গেছে। এর সঙ্গে আর্থিক খাতের বেশিরভাগ শেয়ার থেকে মুনাফা নেওয়ার প্রবণতায় সূচক নিম্নমুখী হয়ে যায় দুই দফায়। পরে অন্য খাতের শেয়ারদর বাড়লে হারানো সূচক অনেকটাই ফিরে পায় ডিএসইএক্স। সূচকের এমন ওঠানামার মধ্যে ঢাকার পুঁজিবাজারে লেনদেন আগের দিনের তুলনায় কিছুটা কমেছে। এদিন ঢাকায় ২ হাজার ১৪৯ কোটি ২১ লাখ টাকার শেয়ার লেনদেন হয়, যা আগের কর্মদিবসে ছিল ২ হাজার ৩৬৮ কোটি ৮৯ লাখ টাকা। ডিএসইর অন্য দুই সূচকের মধ্যে ডিএসইএস বা শরীয়াহ সূচক দশমিক ৮৭ পয়েন্ট বেড়ে অবস্থান করছে ১ হাজার ২৮৫ দশমিক ৮৮ পয়েন্টে। ডিএস৩০ সূচক ১৮ দশমিক ৫৫ পয়েন্ট বেড়ে অবস্থান করছে ২ হাজার ২০৮ দশমিক ২৮ পয়েন্টে।

অপর বাজার চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জের (সিএসই) প্রধান সূচক সিএএসপিআই ৩১ দশমিক ৯৪ পয়েন্ট বেড়ে অবস্থান করছে ১৭ হাজার ৩৭৯ দশমিক ৩৫ পয়েন্টে। এই বাজারে লেনদেন বেড়েছে। রোববার ১০৯ কোটি ২ লাখ টাকার শেয়ার লেনদেন হয়েছে, যা আগের দিন ছিল ১০৪ কোটি ৩৭ লাখ টাকা। সিএসইতে লেনদেন হয়েছে ৩০৩টি কোম্পানির শেয়ার ও মিউচুয়াল ফান্ড। এর মধ্যে দর বেড়েছে ১২১টির, কমেছে ১৪৩টির এবং অপরিবর্তিত রয়েছে ৩৯টির দর।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ