Inqilab Logo

মঙ্গলবার, ০৭ ডিসেম্বর ২০২১, ২২ অগ্রহায়ণ ১৪২৮, ০২ জামাদিউল আউয়াল ১৪৪৩ হিজরী

রাজনগরে সংঘর্ষ, ককটেল বিস্ফোরণ ঘটিয়ে বাড়িঘর ভাংচুর, আহত ১৫

শরীয়তপুর জেলা সংবাদদাতা | প্রকাশের সময় : ১ জুন, ২০২১, ৬:০০ পিএম

নড়িয়া উপজেলার রাজনগরে আধিপত্য বিস্তার নিয়ে সাবেক চেয়ারম্যান সুলতান মাদবর ও ভাবী চেয়ারম্যান প্রার্থী টিপু সুলতার মাদবরের সমর্থকদের মধ্যে সংঘর্ষ হয়েছে। মঙ্গলবার সকাল থেকে দুপুর পর্যন্ত দেশীয় অস্ত্র, আগ্নেয়াস্ত্র ও ককটেল বিস্ফোরণ ঘটিয়ে এই সংঘর্ষ চলতে থাকে। এই সময় সাবেক চেয়ারম্যান সুলতান মাদবরের সমর্থকরা টিপু সুলতান মাদবরের সমর্থকদের বাড়িঘর ভাংচুর করাসহ ১০ জনকে গুরুতর আহত করে বলে জানা গেছে।
হাসাপাতালের বেড থেকে আহত সজিব, করিম, বাদশা, নুরুল হকসহ স্থানীয়রা জানায়, বিগত দিন থেকে সাবেক চেয়ারম্যান সুলতান মাদবর ও ভাবী চেয়ারম্যান প্রার্থী টিপু সুলতান মাদবরের সমর্থকদের মধ্যে বিরোধ চলে আসছিল। পানি সম্পদ উপমন্ত্রী একেএম এনামুল হক শামীম এমপি’র নির্দেশে নড়িয়া উপজেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক হাসানুজ্জামান খোকন গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গের উপস্থিতিতে দুইদিন পূর্বে বিরোধের বিষয়টি মীমাংসা করে দেয়। পরবর্তীতে ১ জুন মঙ্গলবার সকাল থেকে পুণরায় সুলতান মাদবরের সমর্থকরা টিপু সুলতান মাদবরের সমর্থকদের বড়ি-ঘরে হামলা চালায়। টিপু সুলতান মাদবরের সমর্থকরা বাধা দিলে সংঘর্ষ শুরু হয়।
টিপু সুলতান মাদবর বলেন, উপজেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক উপস্থিত থেকে বিরোধের বিষয়টি মীমাংসা করে দেয়। আমি তা মেনে নেই। আমার লোকজন ঢাকাসহ বিভিন্ন স্থানে জীবিকার উদ্দেশ্যে চলে যায়। এই সুযোগে আজ ভোর থেকে সুলতান মাদবর ও তার সমর্থকরা আমার সমর্থকদের বাড়িসহ আমার বাড়িতে হামলা চালায়, বোমা বিস্ফোরণ ঘটিয়ে আতঙ্ক সৃষ্টি করে। পিটিয়ে, গুলি করে ও বোমা বিস্ফোরণ ঘটিয়ে অন্তত ১০ জনকে গুরুতর আহত করেছে।
সুলতান মাদবর মোবাইল ফোনে বার বার চেষ্টা করেও তাকে পাওয়া যায়নি। তবে তার সমর্থকরা জানিয়েছে এই ঘটনায় তাদেরও ৫ জন গুরুতর আহত হয়েছে।
অতিরিক্ত পুলিশ সুপার এসএম মিজানুর রহমান বলেন, রাজনগর এলাকায় দফায় দফায় বিভিন্ন স্থানে সংঘর্ষ হয়। এই সময় অসংখ্য ককটেল বিস্ফোরণ ঘটায়। জাজিরা ও সদর হাসপাতালে জখমী রোগীদের ভর্তি করা হয়েছে। গুরুতর জখমী রোগীদের ঢাকায় পাঠানো হয়। এলাকায় পুলিশ মোতায়ন করা হয়েছে। উভয় পক্ষকে অভিযোগ করতে বলা হয়েছে। সংঘর্ষে লিপ্তদের গ্রেফতারে চেষ্টা করা হচ্ছে।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: সংঘর্ষে আহত


আরও
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ