Inqilab Logo

বৃহস্পতিবার, ০২ ডিসেম্বর ২০২১, ১৭ অগ্রহায়ণ ১৪২৮, ২৬ রবিউস সানী ১৪৪৩ হিজরী
শিরোনাম

আ.লীগ-বিএনপি মুখোমুখি

সুপ্রিম কোর্ট বারের সভাপতি পদ

স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ২ জুন, ২০২১, ১২:০০ এএম

সুপ্রিম কোর্ট বারের সভাপতির চেয়ারে বসাকে কেন্দ্র করে পাল্টাপাল্টি কর্মসূচি পালন করেছেন বিএনপি এবং আওয়ামী লীগ সমর্থক আইনজীবীরা। গতকাল মঙ্গলবার ঘণ্টাব্যপি চলে এই পাল্টাপাল্টি কর্মসূচি। অ্যাটর্নি জেনারেল এএম আমিন উদ্দিনকে ‘স্ব-ঘোষিত সভাপতি’ আখ্যা দিয়ে তার বিরুদ্ধে শ্লোগান দিয়েছেন। পক্ষান্তরে এ এম আমিন উদ্দিনকে ‘সুপ্রিম কোর্ট বারের সভাপতি’ হিসেবে স্বাগত জানিয়েছেন আওয়ামী লীগ সমর্থিত আইনজীবীরা।

প্রত্যক্ষ ভোটে নির্বাচিত সুপ্রিম কোর্ট বারের সভাপতি অ্যাডভোকেট আবদুল মতিন খসরুর ইন্তেকালে পদটি শূন্য হয়। এ নিয়ে দুই রাজনৈতিক পেশাজীবী সংগঠন মুখোমুখি অবস্থান নেন। আওয়ামী লীগ সমর্থক আইনজীবীরা গত ৪ মে বিশেষ সভায় পূর্বতন সভাপতি এ এম আমিনউদ্দিনকে ‘সভাপতি’ ঘোষণা করেন। এ ঘোষণাকে ‘অবৈধ’ আখ্যা দিয়ে সঙ্গে সঙ্গে প্রত্যাখ্যান করে বিএনপি সমর্থক আইনজীবীরা। তাদের বক্তব্য হচ্ছে, গঠনতন্ত্র অনুযায়ী এ পদে আবারও ভোট হবে। এছাড়া একজন সিনিয়র সহ-সভাপতি রয়েছেন। এ এম আমিনউদ্দিনকে সভাপতি করার বিষয়ে সভায় সর্বসম্মত কোনো সিদ্ধান্ত হয়নি। দুই পক্ষের এই অবস্থানের ধারাবাহিকতায় গতকাল পাল্টাপাল্টি মিছিলে উত্তপ্ত হয়ে ওঠে বার প্রাঙ্গণ।

আইনজীবীরা জানান, গতকাল সকাল ১১টার দিকে আইনজীবী সমিতির সভাপতির কক্ষে আসেন অ্যাটর্নি জেনারেল এ এম আমিন উদ্দিন। তাকে স্বাগত জানাতে আগে থেকেই ওই স্থানে অবস্থান করছিলেন আওয়ামী লীগ সমর্থক আইনজীবীরা। এক ঘণ্টার মতো সভাপতির কক্ষে অবস্থানের পর এ এম আমিন উদ্দিন অ্যাটর্নি জেনারেল কার্যালয়ে ফিরে যান।

তবে তখনও সভাপতির কক্ষে ও কক্ষের সামনে অবস্থান করতে থাকেন আওয়ামী লীগপন্থি আইনজীবীরা। একই জায়গায় জড়ো হতে থাকেন বিএনপিপন্থি আইনজীবীরাও। এক পর্যয়ে বিএনপিপন্থি আইনজীবীরা ‘স্বঘোষিত সভাপতি মানি না’ বলে শ্লোগান দিতে থাকেন। আওয়ামীপন্থি আইনজীবীরাও পাল্টা শ্লোগান দেয়া শুরু করেন। এক ঘণ্টা সময় ধরে পাল্টাপাল্টি অবস্থান ও শ্লোগানে উত্তাল হয়ে ওঠে সুপ্রিম কোর্ট অঙ্গন।

এক পর্যায়ে বিএনপিপন্থি আইনজীবীরা সভাপতির কক্ষের সামনের স্থান থেকে মিছিল নিয়ে বেরিয়ে যান। মিছিলটি বার ভবন প্রদক্ষিণ করে। পাল্টাপাল্টি শ্লোগান দেয়ার সময় প্রতিক্রিয়া জানতে চাইলে অ্যাটর্নি জেনারেল এ এম আমিন উদ্দিন বলেন, সভাপতির পদটি নিয়ে নোংরামি হচ্ছে। এ ধরনের রাজনীতি আমি চরমভাবে ঘৃণা করি। আমি সভাপতি থেকেই বারের সব উন্নয়নমূলক কাজ করেছি। তিনি বলেন, এক মাস পর সভাপতির কক্ষে গিয়েছিলাম। তবে সভাপতির চেয়ারে বসিনি।

প্রসঙ্গত: আব্দুল মতিন খসরুর মৃত্যুতে সভাপতি নির্বাচনে করণীয় ঠিক করতে গত ৪ মে বিশেষ সাধারণ সভার আহ্বান করা হয়। সভার শুরুতে সাধারণ সভার সভাপতিত্ব নিয়ে আওয়ামী এবং বিএনপিপন্থি আইনজীবীদের মধ্যে তুমুল হট্টগোল শুরু হয়।

উদ্ভুত পরিস্থিতিতে বারের সম্পাদক ব্যারিস্টার রূহুল কুদ্দুস কাজল ঘোষণা দেন যে, বারের সংবিধান অনুযায়ী আমি এ সভা পরিচালনা করবো। তখন এক পক্ষ বিরোধিতা শুরু করলে আওয়ামীপন্থি আইনজীবীদের সহ-সভাপতি মুহাম্মদ শফিক উল্যাহ ডায়াসে দাঁড়িয়ে ঘোষণা দেন যে, তিনিই সভাপতিত্ব করবেন। পরে তিনি অ্যাটর্নি জেনারেল এ এম আমিন উদ্দিনের নাম ঘোষণা করেন।

আওয়ামী লীগ সমর্থিত আইনজীবীরা দাবি করছেন, সমিতির বিশেষ সাধারণ সভায় এ এম আমিন উদ্দিন কন্ঠভোটে সভাপতি নির্বাচিত হয়েছেন। পরে বারের প্যাডে বিবৃতি দিয়ে শফিকউল্যাহ জানান, সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবী সমিতির গঠনতন্ত্রের ১৬ অনুচ্ছেদ অনুযায়ী এ এম আমিন উদ্দিন সভাপতি পদে ২০২১-২০২২ মেয়াদের অবশিষ্ট সময়ের জন্য দায়িত্ব পালন করবেন। কিন্তু বিবৃতি প্রত্যাখ্যান করে বিএনপি অংশ।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: আ.লীগ-বিএনপি

১৮ সেপ্টেম্বর, ২০২০
৯ সেপ্টেম্বর, ২০১৮

আরও
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ