Inqilab Logo

শনিবার, ১৮ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০৩ আশ্বিন ১৪২৮, ১০ সফর ১৪৪৩ হিজরী
শিরোনাম

তদন্তের মুখে নাশতার টাকা ফেরত দেবেন ফিনল্যান্ডের প্রধানমন্ত্রী

অনলাইন ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ২ জুন, ২০২১, ১২:৩৩ পিএম

নাশতার জন্য খরচ করা ১৭ হাজার মার্কিন ডলার ফেরত দেয়ার ঘোষণা দিয়েছেন ফিনল্যান্ডের প্রধানমন্ত্রী সানা মারিন। অভিযোগ উঠেছিল নিজ পরিবারের সকালের নাশতার জন্য প্রতি মাসে ৩৬৫ ডলার বিল নিচ্ছিলেন তিনি। এ নিয়ে সমালোচনাও শুরু হয়েছিল।

পুলিশ ঘোষণা দিয়েছিল, প্রধানমন্ত্রী সানা মারিন জনগণের করের টাকা থেকে অবৈধভাবে নিজের নাশতার জন্য ভর্তুকি নিচ্ছেন কি না, তা তদন্ত করা হবে। এরপর স্থানীয় একটি ট্যাবলয়েড এ নিয়ে প্রতিবেদন প্রকাশ করে। তাতে দাবি করা হয়, প্রধানমন্ত্রী সানা মারিন সরকারি বাসভবন কেসারান্টায় থাকলেও নিজ পরিবারের সকালের নাশতার জন্য প্রতি মাসে ৩৬৫ ডলার বিল নিচ্ছেন। এ নিয়ে বিরোধীদের সমালোচনার মুখে পড়েছেন ৩৫ বছর বয়সী সানা। যদিও তার ভাষ্য, আগের প্রধানমন্ত্রীরাও এমন সুবিধা পেয়েছেন।

কিন্তু ওই ট্যাবলয়েডের প্রতিবেদনে আইন বিশেষজ্ঞরা ইঙ্গিত দিয়েছেন, প্রধানমন্ত্রীর সকালের নাশতার খরচ জনগণের করের টাকা থেকে দেয়ার বিষয়টি ফিনল্যান্ডের আইনের সাথে সাংঘর্ষিক হতে পারে।

দেড় বছর আগে দেশটির প্রধানমন্ত্রী নির্বাচিত হন মারিন। এরপর থেকে পরিবার নিয়ে সরকারি বাসভবনে রয়েছেন। ফলে মারিন যে পরিমাণ অর্থ ফেরত দেয়ার ঘোষণা দিয়েছেন তা একেবারে কম নয়। তিনি বলেছেন, ১৭ হাজার মার্কিন ডলার তিনি ফেরত দেবেন।

এ প্রসঙ্গে শনিবার এক টুইট বার্তায় তিনি লিখেছেন, ‘এই নাশতাসংক্রান্ত খরচের অর্থ আমি নিজে দেব।’ এ ছাড়া তিনি এ–ও বলেছেন, যে তদন্ত চলছে তা চলবে এবং এ–সংক্রান্ত কোনো নিয়মকানুন হালনাগাদ করার দরকার থাকলে তা–ও করা হবে।

নাশতার বিল বাবদ অর্থের তদন্তে বেশ বিরক্ত ফিনল্যান্ডের প্রধানমন্ত্রী। গত মঙ্গলবার তিনি বলেন, ভবিষ্যতে এই অর্থ নেয়ার কোনো আগ্রহ তার নেই। এ ছাড়া এই তদন্ত সম্পর্কে জিজ্ঞাসা করা হলে প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘আমার পরিবারের খাবারের বিষয়টি নিয়ে যে তদন্ত হচ্ছে তার প্রতি দৃষ্টি রাখার চেয়ে অনেক গুরুত্বপূর্ণ কাজ আমার আছে।’



 

Show all comments
  • Tareq Sabur ২ জুন, ২০২১, ৪:০৬ পিএম says : 0
    আমাদের দেশের মন্ত্রী, সকল আমলা ও সরকারী কর্মচারীরা যদি এদের কাছ থেকে শিক্ষা নিয়ে হারাম খাওয়া বাদ দিয়ে হালাল খাওয়ার অভ্যেস করতে পারেন আর জনগনকে লুটপাট না করে নিজেদের কাজ ঠিকঠাক মতো করেন তাহলে দুই বছরে দেশ সোনার বাংলা হয়ে যাবে ইনশাআ আল্লাহ।
    Total Reply(0) Reply
  • মোঃ+দুলাল+মিয়া ২ জুন, ২০২১, ৫:০৬ পিএম says : 0
    আমাদের দেশের প্রধান মন্ত্রীতো দুরের কথা সরকারী দারেয়ানেরা ও সাপের মতো (????)(????)খাইতে থাকে।কে কি বলবে অথবা বলতে পারবে।
    Total Reply(0) Reply
  • ম নাছিরউদ্দীন শাহ ২ জুন, ২০২১, ৫:৩১ পিএম says : 0
    পৃথিবীর গনতান্ত্রিক একটি মাত্র দেশ যেখানেই হাজার কোটি দূন্নীতি করে পার পাওয়া য়ায় হিসাব দিতে হয় না। হিসাব গ্রহন কারী হিসাব মিলিয়ে দেন। হিসাবের লাভের মাধ্যমে। আমাদের সুজলা সুফলা বাংলাদেশের কথা বলছি।চা নাস্তার দেশের মানুষের কাছে পরকাল জাহান্নাম দোজখের ভয় বেশী থাকার কথা আমাদের মুসলিম দের বেশী থাকার কথা????চা নাস্তার হিসাব কি এখানে বাংলাদেশ ব‍্যাংক খেয়েপেললেও হিসাব দিতে হয় না। দেশের নির্বাহী প্রধান সৎ হলেও আশে পাশের মানুষ গুলো সৎ হওয়া বড়ই প্রযোজন। প্রকৃতপক্ষে পকৃত জীবন পরকালের জীবন। যেখানে মৃত্যু নেই অবিচার নেই অহংকার নেই। ক্ষমতা শক্তি আভিজাত্যের বাড়াবাড়ি নেই। বিশালাকার সুখ শান্তি পবিত্র স্থান মহান আল্লাহর জান্নাত এটি মোমিনদের জন‍্য নিদ্ধারীত।পক্ষান্তরে ভয়ংকর ভয়াবহ জাহান্নাম দুনিয়ার জমিনজুড়ে অশান্তি দূন্নীতি হারাম পথে উপার্জিত অর্থের মালিক গনের কঠিন অবস্থা জাহান্নামের ভয়ংকর শাস্তি নিদ্ধারীত হয়ে আছে।কোন কিছু আমাদের শিক্ষা হচ্ছে না ভয়ংকর গজবের মধ্যে পৃথিবী মৃত্যুর মিছিল চলছে। আল্লাহর ভয়ে মানুষের পরিবর্তন শৃংখলা সততা পরিলক্ষিত হচ্ছে না। টিকা নিয়ে টিকা দিলে সবকিছুই শান্ত হয়ে যাবে?? পৃথিবীতে নতুন নতুন ভাইরাস নাম শুনতে পাচ্ছি। ঘন ঘন ভূমিকম্প হচ্ছে। মানুষের কাছে মৃত্যুর ভয় নেই বললেই চলে। এগুলো কিসের আলামত???একটি দেশের প্রধানমন্ত্রীর সকলের নাস্তার সামান্য৩৬৫ ডলার খরছের হিসাব দিতে হচ্ছে আইন শৃংখলা বাহিনী কে। অদ্ভুত আমাদের বাংলাদেশ অবস্থা সম্পুন‍্য বিপরীত মেরুতে কেন????/ আল্লাহ্ আমাদের প্রকাশ‍্য শক্র শয়তান হতে আমাদের রক্ষা করুন। দেশ জাতি সমাজের মানুষ কে বাচান। আমিন।
    Total Reply(0) Reply
  • Mustafizur Rahman Ansari ১৫ জুন, ২০২১, ১২:৫৯ এএম says : 0
    Absolutely Right
    Total Reply(0) Reply

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: ফিনল্যান্ড


আরও
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ