Inqilab Logo

ঢাকা, মঙ্গলবার, ২২ জুন ২০২১, ০৮ আষাঢ় ১৪২৮, ১০ যিলক্বদ ১৪৪২ হিজরী

দৈনন্দিন জীবনে ইসলাম

| প্রকাশের সময় : ৪ জুন, ২০২১, ১২:১৪ এএম

প্রশ্ন : শখের বসে পালিত পশু পাখির পেছনে ব্যয়কৃত অর্থ কী অপচয়? দামী পশুপাখি ইত্যাদির কি যাকাত দিতে হবে?
উত্তর : এ বিষয়টি আপনার চারপাশের আর্থ-সামাজিক অবস্থার বিচারে বৈধ, অপচয় বা গোনাহ সবই হতে পারে। আপনি যদি নিজের ফরজ দায়িত্ব, যাকাত, সাদাকাহ, গরীবের হক সব ঠিকঠাক পালনের পর সহনীয় অর্থ ব্যয়ে পশু-পাখি পালন করেন, তাহলে এটি সরাসরি অবৈধ নয়। তবে ইসলামে প্রয়োজন ছাড়া কোনো পশু বা পাখিকে আটকে রাখা পছন্দনীয় নয়। কোনো পশু-পাখির বাচ্চাকে তার মা থেকে আলাদা করতে আল্লাহর রাসুল সা. নিষেধ করেছেন। একবার এক ব্যক্তি পাখির বাচ্চা ধরে নিয়ে এলে তিনি তাকে সেটি দ্রুত তার বাসায় রেখে এসে পাখির মায়ের অস্থিরতা দূর করার হুকুম দেন। বর্তমানে দেখা যায়, নানা দেশের সরকারও পশু-পাখি রক্ষার আইন করেছে। এসবকে বিরক্ত করা, আটকে রাখা বেআইনি। সবদিক বিবেচনা করে শখ পূরণ করা উচিত। অনেক মানুষ ব্যক্তিগত চিড়িয়াখানা বা পশু-পাখি সংগ্রহের নামে লক্ষ কোটি টাকা ব্যয় করে। যা নিঃসন্দেহে অপচয়। এসব ক্ষেত্রে পরিস্থিতি ভেদে উপযুক্ত মাসআলা আলেমদের কাছে জেনে নেওয়া অপরিহার্য। শুধু পালনের উদ্দেশ্যে রাখা পশু-পাখির যাকাত নেই। তবে বিক্রি বা লাভের উদ্দেশ্যে রাখা পশু-পাখির বর্তমান বাজার মূল্য ধরে যাকাত দিতে হবে।
প্রশ্ন : আমরা অনেকেই মোবাইলে বিভিন্ন ইসলামী পোস্ট শেয়ার করি। এবং মনে করি এটি শেয়ার করলে অনেক নেকী পাওয়া যাবে। এ ধারণা কতটুকু সত্যি?
উত্তর : মোবাইলে ইসলামী পোস্ট দেওয়া বা শেয়ার করা যদি মানুষকে ইসলাম সম্পর্কে জানানোর উদ্দেশ্যে হয়, তাহলে এতে নেকী পাওয়া যাবে। তবে শর্ত হলো, এতে কোনো নাজায়েজ বিষয়ের মিশ্রণ থাকতে পারবে না। নিছক দীন প্রচারের উদ্দেশ্যে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমের ব্যবহার উলামায়ে কেরাম জায়েজ বলেছেন। আইটি ইসলামের খেদমতে ব্যবহার করা অবশ্যই নেকীর কাজ।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: ইসলাম


আরও
আরও পড়ুন