Inqilab Logo

সোমবার, ০২ আগস্ট ২০২১, ১৮ শ্রাবণ ১৪২৮, ২২ যিলহজ ১৪৪২ হিজরী

প্রথমার্ধ বেনেট, বাকি অর্ধেক সময় প্রধানমন্ত্রী হবেন লাপিড

নতুন সরকার গঠনের ঘোষণায় কাঁপন ধরেছে নেতানিয়াহুর মসনদে

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ৪ জুন, ২০২১, ১২:১২ এএম

অবশেষে ক্ষমতা হারানোর পথে ইসরাইলের প্রধানমন্ত্রী বেনিয়ামিন নেতানিয়াহু। দীর্ঘ ১২ বছর দেশ শাসন করার পর তার ক্ষমতার মসনদে কাঁপন ধরেছে। বিরোধী দলগুলো তার বিরুদ্ধে জোটবদ্ধ হয়েছে। এই জোট পার্লামেন্টে আস্থাভোটে যদি টিকে যায়, তাহলে বেনিয়ামিন নেতানিয়াহুর সামনে আর কোনো বিকল্প থাকবে না। তাকে বাধ্য হয়ে ক্ষমতা তুলে দিতে হবে ইয়ামিনা পার্টির নেতা নাফতালি বেনেটের কাছে। আর যদি আস্থা ভোটে বিরোধী জোট সংখ্যাগরিষ্ঠতা হারায় তাহলে ইসরাইল আবার রাজনৈতিক সঙ্কটে পড়বে। দুই বছরের মধ্যে সেখানে ৫ম বারের মতো পার্লামেন্ট নির্বাচন হবে। এখন সবটাই নির্ভর করছে পার্লামেন্টের ওপর। এ খবর দিয়েছে অনলাইন বিবিসি। বুধবার স্থানীয় সময় রাত ১১টা ৫৯ মিনিট পর্যন্ত ইয়ামিনা পার্টির বেনেট সময় পেয়েছিলেন নতুন সরকার গঠনের জন্য। এ সময়ের মধ্যে শেষ দু’তিনদিন তিনি এবং ইয়েশ আতিদ পার্টির নেতা ইয়াইর লাপিড অন্য দলগুলোর সঙ্গে ম্যারাথন বৈঠক করেন। ফলে আটটি ছোটবড়, ডান-বাম-মধ্যপন্থিদের নিয়ে তারা জোট গঠনের ঘোষণা দিয়েছেন। চুক্তি হয়েছে নাফতালি বেনেট ও ইয়াইর লাপিডের মধ্যে। সেই চুক্তি অনুযায়ী তারা সরকার গঠন করে প্রধানমন্ত্রী হিসেবে ক্ষমতার মেয়াদের অর্ধেক সময় এ পদে থাকবেন প্রথমে নাফতালি বেনেট। বাকি অর্ধেকটা সময় প্রধানমন্ত্রী হবেন ইয়াইর লাপিড। এই শর্তে বুধবার সময় শেষ হয়ে যাওয়ার আগেই তারা ঘোষণা দিয়েছেন নতুন সরকার গঠনের। বলেছেন, এ জন্য তারা চুক্তিবদ্ধ হয়েছেন। তবে নতুন সরকার গঠনের আগে তাদের জোটকে পার্লামেন্টে ভোটের মুখোমুখি হতে হবে। এক বিবৃতিতে লাপিড বলেছেন, তিনি তাদের চুক্তির বিষয়ে প্রেসিডেন্ট রুভেন রিভলিনকে অবহিত করেছেন। তিনি বলেছেন, আমি তাকে বলেছি, আমাদের সরকার সব ইসরাইলি নাগরিক, যারা ভোট দিয়েছেন বা ভোট দেননি- তাদের সবার সেবায় কাজ করবে। আমাদের সরকার বিরোধীদের প্রতি সম্মান দেখাবে। ইসরাইলি সমাজ ব্যবস্থার সব অংশের সঙ্গে আমরা ঐক্যবদ্ধ থাকতে ও সংযুক্ত থাকতে ক্ষমতার সবটুকু ব্যবহার করবো। ওদিকে ইসরাইলি মিডিয়ায় প্রকাশিত ছবিতে দেখা যাচ্ছে লাপিড, বেনেট এবং আরব ইসলামিস্ট রাম পার্টির নেতা মানসুর আব্বাস একটি চুক্তিতে স্বাক্ষর করছেন। বহু মানুষ মনে করছেন এমন চুক্তিতে আসা অসম্ভব একটি ব্যাপার। কারণ, এই জোটে এমন সব দলকে নেয়া হয়েছে যাদের মধ্যে আদর্শিক বিস্তর মতবিরোধ আছে। এ বিষয়ে মানসুর আব্বাস সাংবাদিকদের বলেছেন, এ সিদ্ধান্ত নেয়া খুব কঠিন ছিল। বেশ কিছু বিরোধপূর্ণ ইস্যু ছিল। কিন্তু তার চেয়ে গুরুত্বপূর্ণ বিষয় ছিল চুক্তিতে উপনীত হওয়া। তিনি বলেন, এই চুক্তিতে আরব সমাজের সুবিধা পাওয়ার অনেক বিষয় আছে। প্রেসিডেন্টের কাছে দেয়া নোটে ইয়াইর লাপিড বলেছেন, নাফতালি বেনেটের পাশাপাশি তিনিও দায়িত্ব পালন করে যাবেন। বেনেট প্রথম দফায় প্রধানমন্ত্রী থাকবেন। এরপর বেনেট ২০২৩ সালের ২৭ শে আগস্ট প্রধানমন্ত্রীর ক্ষমতা হস্তান্তর করবেন লাপিডের কাছে। প্রেসিডেন্ট রিভলিন এর প্রেক্ষিতে আস্থা ভোটের জন্য যত দ্রুত সম্ভব পার্লামেন্টের অধিবেশন আহবান করেছেন। যদি এই জোট ইসরাইলের পার্লামেন্ট নেসেটের ১২০ আসনে আস্থাভোটে সংখ্যাগরিষ্ঠতা অর্জনে ব্যর্থ হয় তাহলে সব আয়োজন ব্যর্থ হবে। ফলে দুই বছরের মধ্যে ৫ম বারের মতো আবার সেখানে নির্বাচনের দিকে যেতে হবে। সংখ্যাগরিষ্ঠতা দেখাতে তাদেরকে পেতে হবে কমপক্ষে ৬১ ভোট। বিবিসি।



 

Show all comments
  • Md Faruque Ahmed ৪ জুন, ২০২১, ২:১৮ এএম says : 0
    সাম্প্রতিক ফিলিস্তিনের হামাসের সাথে যুদ্ধে সামরিক ও নৈতিকভাবে নেতানিয়াহু হেরে গেছেন বলে-উনার এই করুন পরিণতি। কিন্তু পরাজিত সেনাপতিরও একটা বীরত্ব,এক ধরনের দীপ্তি থাকে।অথচ উনার সেটাও নেই। কারণ উনি অসহায় নিরাপরাধ নারী ও শিশু হত্যাকারী এক সেনাপতি।
    Total Reply(0) Reply
  • MD Ruhul Islam Munna ৪ জুন, ২০২১, ২:১৯ এএম says : 0
    ইসরাইল বলতে কোন রাস্ট্র নেই। ওরা শরণার্থী, আশ্রিত এবং শেকড়হীন। ওদের কল্পিত রাস্ট্রের পুরোটাই অধিকৃত ফিলিস্তিনের ভূখণ্ড। কূটকৌশল আর জবরদখল করেই ওরা টিকে আছে। ফিলিস্তিনের আল কুদস ফিলিস্তিনের সম্পদ আল আকসা মসজিদ সমস্ত মোসলমানদের প্রথম কিবলা এটার জন্য লড়াই করা ঈমানি দায়িত্ব। মুসলিম রাষ্ট্র নায়কদের ঐক্যবদ্ধ হয়ে ইসরায়েলের এই বেইমান জালিমদের নিপাতিত করা আবশ্যক।
    Total Reply(0) Reply
  • সাইফুল ইসলাম ৪ জুন, ২০২১, ৯:১১ এএম says : 0
    ইহুদিরা চরিত্রগতভাবে সবাই এক। যে ক্ষমতায় আসুক না কেন মুসলিম নিধন ই তাদের মূল এডেন্ডা। আল্লাহর এই অভিশপ্ত এই জাতি থেকে নিরাপদ থাকতে ঐক্যবদ্ধ হতে হবে।
    Total Reply(0) Reply
  • তানিম আশরাফ ৪ জুন, ২০২১, ৯:১২ এএম says : 0
    নেতানিয়াহুর থেকেও খারাপ নতুন প্রধানমন্ত্রী। ফিলিস্তিনকে আল্লাহ রক্ষা করুক।
    Total Reply(0) Reply
  • salman ৪ জুন, ২০২১, ৫:১৭ এএম says : 0
    Yahudi ra sob ak, ara SOYTAN er BONGSHO. Ader kas theke Valo kisu e asbe na PALESTINE der Jonno. ROSUN er gora sob AK e Jaygai.
    Total Reply(0) Reply

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: নেতানিয়াহুর মসনদ
আরও পড়ুন

কাশ্মীর লীগকে স্বীকৃতি না দিতে আইসিসিকে ভারতের চিঠি!

img_img-1627916744

আগামী ৬ আগস্ট থেকে কাশ্মীরে শুরু হতে যাওয়া ক্রিকেট লীগ নিয়ে উত্তাল ক্রিকেট বিশ্ব। তবে এই লীগ নিয়ে এবারো কড়া অবস্থান নিলো সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়ের নেতৃত্বাধীন বিসিসিআই। কাশ্মীর ক্রিকেট লীগকে স্বীকৃতি না দিতে এবার আইসিসিকে চিঠি দিলো ভারতীয় ক্রিকেট কন্ট্রোল বোর্ড। চিঠিতে বলা হয়, কোনোভাবেই যেন কাশ্মীর প্রিমিয়ার লীগকে (কেপিএল) স্বীকৃতি দেয়া না হয়। -সংবাদ প্রতিদিন কাশ্মীর নিয়ে পাকিস্তান-ভারত বিবাদ দীর্ঘদিনের। বিষয়টি নিয়ে বরাবরই সোচ্চার হয়েছে নয়াদিল্লি। অঞ্চলটিতে নির্বাচন আয়োজনের পর এবার সেখানে ক্রিকেট লীগেরও আয়োজন করতে চলেছে পাকিস্তান। আর সেকারণেই বিষয়টিকে ভালোভাবে নেয়নি বিসিসিআই। পাকিস্তান সুপার লীগ আয়োজন করা নিয়ে কোনো আপত্তি না থাকলেও জাতীয় সুরক্ষার খাতিরে কাশ্মীর প্রিমিয়ার লীগকে কোনোভাবেই স্বীকৃতি দেবে না বিসিসিআই। ইতোমধ্যে বিশ্বের সমস্ত ক্রিকেট বোর্ডকে মৌখিকভাবে সেকথাও জানিয়ে দিয়েছেন সৌরভরা। শুধু তাই নয়, এই লীগে অংশগ্রহণকারী ক্রিকেটারদের ভারতে ক্রিকেট সম্পর্কিত সমস্ত কার্যকলাপে নিষিদ্ধ করা হবে বলেও হুমকি দেয়া হয়। সেই কথাও স্পষ্ট করে ঘোষণা দেয়া হয়। আর এবার এ ব্যাপারে সরাসরি আইসিসিকে চিঠি দিলো ভারতীয় বোর্ড। একটি ক্রীড়াবিষয়ক ওয়েবসাইটে প্রকাশিত প্রতিবেদন অনুযায়ী, চিঠিতে ভারতীয় বোর্ডের পক্ষ থেকে ক্রিকেটের সর্বোচ্চ নিয়ামক সংস্থাকে বলা হয়েছে, কাশ্মীর নিয়ে দীর্ঘ দিন ধরে রাজনৈতিক বিবাদ রয়েছে ভারত-পাকিস্তানের মধ্যে। তাই ওই অঞ্চলে আয়োজিত এই ক্রিকেট লীগকে যেন কোনোভাবেই স্বীকৃতি দেয়া না হয়। এদিকে এই লীগ আয়োজনে বাধা দেয়ার অভিযোগ তুলে বিসিসিআইয়ের বিরুদ্ধে সরব হয়েছে পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ড।কাশ্মীরে আয়োজিত ক্রিকেট লীগে না খেলার জন্য তার উপর চাপ সৃষ্টি করছে বিসিসিআই। এমনকি ভারতে প্রবেশের উপরও নিষেধাজ্ঞা জারি করা হতে পারে। এর আগে টুইটে এমনই অভিযোগ তুলেছিলেন দক্ষিণ আফ্রিকার প্রাক্তন ক্রিকেটার হার্শেল গিবস। শুধু গিবস নন, আরেক প্রাক্তন ক্রিকেটার পাকিস্তানের রশিদ লতিফও একই অভিযোগ করেছেন। আর এই নিয়েই উত্তাল ক্রিকেট দুনিয়া।

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ